পঞ্চাশ বোতল মদ গেল কই?

সোনারগাঁ প্রতিনিধি
ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের সোনারগাঁ উপজেলার আষাড়িয়ারচর এলাকায় গত রবিবার একটি সাদা মাইক্রোবাস সহ ১৬৮ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করেন। উদ্ধারকৃত ১৬৮ বোতল মদ থানায় নিয়ে আসার পর হয়ে গেল ১১৮ বোতল। মাত্র এক ঘন্টার ব্যবধানে ৫০ বোতল মদ উধাও হয়ে গেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মেঘনা টোল প্লাজার সামনে আষাঢিয়ার চর এলাকায় রোববার ভোর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ চেক পোষ্ট বসিয়ে বিভিন্ন যানবাহন চল্লাশী করছিল। তল্লাসীকালে ঢাকা থেকে কুমিল্লাগামী একটি মাইক্রোবাস তল্লাসীকালে ১৪টি কার্টুনে ১৬৮ বোতল বিদেশী মদসহ বিপ্লব খাঁন ও সবুজ মিয়া নামের দুইজনকে গ্রেফতার করে। এসময় অজ্ঞাতনামা এক আসামী পালিয়ে যায়। এসময় একটি সাদা রঙের প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়। এদিকে ১৪টি কার্টুনে ১৬৮ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার হলেও থানায় দায়ের করা অভিযোগে ১১৮ বোতল মদ উদ্ধার দেখানো হয়েছে। থানার এসআই আব্দুল আলীম ৫ লাখ টাকার মদ উধাও করে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। উদ্ধার হওয়ার মদের সঙ্গে দুইজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় ১১৮ বোতল মদ ও একটি সাদা রঙ্গের প্রাইভেটকার উদ্ধার দেখিয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি জানান, সোনারগাঁ থানার এসআই আব্দুল আলীম, সঙ্গীয় ফোর্স আবু হানিফ,ইউসুফ একটি সাদা রঙ্গের মাইক্রোবাস থেকে ১৪টি কার্টুনে ১৬৮ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করে। এ বিষয়ে সোনারগাঁ থানার এসআই আব্দুল আলিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি, উদ্ধার হওয়ার ৫০ বোতল মদ উধাও হওয়ার ঘটনাটি সত্য নয় বলে জানান। সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোর্শেদ আলম বলেন, সোনারগাঁ থানায় ১১৮ বোতল মদ উদ্ধার হয়েছে। তবে বেশি উদ্ধার করে কম দেখানোর বিষয়টি প্রমাণিত হলে এসআইর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *