এখনও শহরের শতাধিক স্পটে রমরমা জুয়ার আসর

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
এক শ্রেনীর প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় নারায়ণগঞ্জ শহরের অভিজাত ফ্ল্যাট বাড়ি, মার্কেটসহ বিভিন্ন স্থানে চলছে রমরমা জুয়ার আড্ডা। এই সকল জুয়ার আড্ডায় প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা খেলা হচ্ছে। জুয়া খেলার পাশাপাশি বসছে মাদকের আসর। কোথাও কোথাও এই সব জুয়ার আড্ডার আড়ালে অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডিবি পুলিশ শহরের আমান ভবনে অবস্থিত সিটি ক্লাবে অভিযান চালানোর পর পর দুই দিন ডান্ডিবার্তায় জুয়ার আসর নিয়ে সচিত্র প্রতিকেদন প্রকাশের পর অনেক গৃহবধূ টেলিফোন করে জানিয়েছেন, জুয়ার আসরের কারণে অনেকেরই সংসার ভাঙ্গার উপক্রম হয়েছে। অনেকের সংসার ভেঙ্গে গেছে বলেও কেউ কেউ অভিযোগ করেন। সিটি ক্লাব ও কালচারাল ক্লাবসহ শতাধিক স্থানে জুয়ার আড্ডা বসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনেকেই তা অবহিত। এব্যাপারে একজন উর্ধতন পুলিশ কর্মকর্তা ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, এই সব জুয়ার আড্ডায় অভিযান চালিয়ে লাভ কি? সিটি ক্লাবে অভিযানের পর দিন থেকেই আবার রমরমা জুয়ার আসর শুরু হয়ে গেছে। এইসব আসরে বড় বড় ঠিকাদাররাই মূলত প্রধান আকর্ষণ। শহরের সিটি ক্লাব নিয়ন্ত্রনকারী আলী হায়দার শামীম ওরফে পিজা শামীম হিসেবে পরিচিত ব্যাক্তিটি সমাজের সুশীল সমাজের দাবীদার। প্রচীণতম স্কুল বার একাডেমির পরিচালনা পরিষদের সদস্যও তিনি। আর কালচারাল ক্লাব যিনি নিয়ন্ত্রন করেন তিনি সরকারের পাটনার এমন একটি দলের স্থানীয় পর্যায়ের শীর্ষ নেতা। ডিবি পুলিশ সেই অভিযানে এমন সব রাঘব ভোয়ালকে ধরেছিল যাদেরকে শেষ পর্যন্ত ডিবি কার্যালয় পর্যন্ত নিতে পারেনি। নারায়ণগঞ্জের জুয়ার আসর যারা নিয়ন্ত্রন করছে তাদের সিংহ ভাগের পিছনেই রয়েছে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেতাদের আশির্বাদ। যাদেরকে এই সব জুয়ারীরা ব্যবহার করে চলছে। জানাগেছে, শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন স্থানে অন্তত শতাধিক স্পটে চলছে জুয়ার আসর। প্রভাবশালীদের পরোক্ষ ও প্রত্যক্ষ মদদে আইনশৃৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের নিরবতায় এসব স্পট চলছে। শহরের বিভিন্ন আবাসিক ও অফিসেও চলছে এসব জুয়ার আসর। শহরের একটি ক্লাবের জুয়ারির এক গডফাদার ক্ষমতার দাপটে শহরের ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী স্কুল বার একাডেমীর কমিটিতেও ঠাঁই করে নিয়েছে। গত রোববার রাতে নারায়ণগঞ্জ শহরের কালিরবাজার স্বর্নপট্টিতে সিটি ক্লাবে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অভিযানে ২১ জুয়ারীকে গ্রেফতার করার পরে বেরিয়ে আসছে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য।
একাধিক সূত্র জানান, বেশ কয়েক বছর ধরেই শহর ও শহরতলীর অনেক ক্লাবেই জুয়া খেলা যেন ওপেন সিক্রেটে পরিণত হয়েছিল। সন্ধ্যার পরপরই ওইসকল ক্লাবগুলোতে নিয়মিত বসতো জুয়ারীদের আসর। শুধু রাতের বেলায়ই নয় দিনের বেলাতেও চলতো জুয়া খেলা। ওইসকল ক্লাব থেকে নিয়মিত মাসোহারা নেয়ারও অভিযোগ রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অসাধু সদস্যদের বিরুদ্ধে। তবে শুধু যে ক্লাবগুলোতেই জুয়া চলে এমনটিই নয় শহর ও শহরতলীর অনেক ফ্ল্যাট বাসাতেও চলে জুয়া খেলা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক সূত্র জানিয়েছে অচিরেই ওইসকল ক্লাব ও ফ্ল্যাট বাসাতেও অভিযান চলবে।
গত রোববার রাতে নারায়ণগঞ্জ শহরের কালিরবাজার স্বর্নপট্টিতে সিটি ক্লাবে ডিবি পুলিশের হানায় ২১ জুয়ারী আটকের পর বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর নানা তথ্য।
নারায়ণগঞ্জ শহরের কালিরবাজারের স্বর্ণ পট্টিতে অবস্থিত সিটি ক্লাবেই শুধু নয় আমলাপাড়া ও কালিরবাজার এলাকাতেও আরো বেশ কয়েকটি ক্লাব ও ফ্ল্যাট বাসা রয়েছে যেগুলোতে জুয়া খেলা দীর্ঘদিন ওপেন সিক্রেটে পরিণত হয়েছিল। এছাড়াও শহর ও শহরতলীতে বিভিন্ন ক্লাবের নামেও অবাধে চলছে জুয়া। ওইসকল ক্লাব ও ফ্ল্যাট বাসাতে প্রভাবশালী ও এলিট শ্রেনীর লোকদের যাতায়াত থাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান তেমন একটা দেখা যেত না। আর ওইসকল ক্লাব ও ফ্ল্যাট বাসার জুয়ার গডফাদাররা জুয়ার টাকায় বনে গেছেন বিত্তশালী। কেউ কেউতো আবার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যাক্তিও বনে গেছেন। তবে ডিবি পুলিশ সিটি ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ২১ জুয়ারীকে গ্রেফতারের পরে মামলা দিয়ে যে ধরনের চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে সেটা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অব্যাহত রাখতে এমনটিই মনে করছেন সচেতন নাগরিকরা।
উল্লেখ্য, সিটি ক্লাব নিয়ন্ত্রনকারী আলী হায়দার শামীম ওরফে পিজা শামীমকে অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগে দল থেকে বহিষ্কার করেছিলেন প্রয়াত সাংসদ নাছিম ওসমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *