লুৎফা ভাবীর পাঁচ বছরের জেল

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি
সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকায় ভাবী লুৎফা বেগম কর্তৃক দেবর কামাল হোসেনকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাবীকে ৫ বছরের কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত। গতকাল বুধবার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট বিচারিক আদালতে বিচারক অশোক কুমার এ রায় দেন। গত ২০১১ সালের ১১ আগষ্ট সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকায় বাদশা মিয়ার স্ত্রী লুৎফা বেগম তারই দেবর কামাল হোসেনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে কামাল হোসেন গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় কামালের স্ত্রী আফরোজা আক্তার পলি সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করলে গতকাল বুধবার আদালত এ রায় দেন।
জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকায় বাদশা মিয়ার স্ত্রী লুৎফা বেগম পারিবারিক কারণে তারই দেবর কামাল হোসেনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এ ঘটনায় কামাল হোসেন গুরুতর আহত হলে তাকে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় কামাল হোসেনের স্ত্রী আফরোজা আক্তার পলি বাদি হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় দঃবিঃ ৩২৩/৩২৬/৩০৭/৩৭৯ এবং ৩৫৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করে যার নং ১৫(১১)১১। এ মামলায় লুৎফা বেগম, নজরুল ইসলাম, বিলকিছ বেগম ও বাদশা মিয়াকে আসামী করা হয়। মামলাটি দীর্ঘ পরিচালনার গতকাল বুধবার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট বিচারিক আদালতের বিচারক অশোক কুমার লুৎফা বেগমকে ৫ বছরের কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জমিরানা ও অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। মামলা থেকে অপর আসামী নজরুল ইসলাম, বিলকিছ বেগম, বাদশা মিয়াকে বেকছুর খালাস দিয়েছেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামী লুৎফা বেগম পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করার পর থেকে তার সাজা কার্যকর শুরু হবে বলে আইনজীজী জানায়। রাষ্ট্র পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এপিপি মোঃ শামীম হোসেন এবং বাদী পক্ষে এ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান লিটন। মামলার রায়ে বাদী পক্ষ সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *