মেসির গোল বাতিল নিয়ে তুলকালাম

দু’দিন আগে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে লা লিগার ম্যাচ খেলতে গিয়েছিল বার্সেলোনা। শুরু থেকে দারুণ খেলেও ভ্যালেন্সিয়ার রক্ষণ দেয়াল ভাঙতে পারছিল না বার্সা। ম্যাচের ৩০তম মিনিটে বক্সের প্রান্ত থেকে আচমকা এক শট নিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। অপ্রস্তুত ভ্যালেন্সিয়া গোলরক্ষক গড় বড় করে বল ঠিকভাবে ধরতে পারলেন না। হাত ফসকে বল চলে গেল গোললাইন পেরিয়ে প্রায় ৬ ইঞ্চি দূরে। স্টেডিয়ামে যারা ছিলেন বা টিভি সেটের সামনে যারা ছিলেন সবাই পরিষ্কার দেখতে পারলেন বল ভেতরে চলে যাওয়ার বিষয়টা কিন্তু দেখতে পারলেন না খোদ রেফারি! সবাইকে অবাক করে মেসির ওই গোল দেননি রেফারি। হাত-পা ছুড়ে নিজে নিজে কিছুক্ষণ প্রতিবাদ জানালেন মেসি। তারপর তর্ক জুরে দেন রেফারি ও সহকারী রেফারির সঙ্গে। সেই যে তর্ক, বিতর্ক, সমালোচনা শুরু হয়েছে, সেটা চলছেই।

ম্যাচ শেষে জর্দি আলবা রেফারিকে রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছেন। ‘জঘন্য’ সিদ্ধান্ত বলেছেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার। বার্সেলোনা কোচ ভালভারদেও ছেড়ে কথা বলেননি। বিতর্কিত ওই গোল বাতিলে রেফারিং নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে সব মহল থেকে। প্রযুক্তি ব্যবহারে দাবিও উঠেছে। সেই দাবি মিটিয়ে লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাস ঘোষণাই দিয়ে ফেললেন, আগামী মৌসুম থেকে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) পদ্ধতি চালু করা হবে লা লিগায়। যাতে অমন বিতর্কিত বিষয়ের মুখোমুখি না হতে হয় আগামীতে। অবশ্য লা লিগায় এই প্রযুক্তি ব্যবহারে বিষয়ে টুকটাক আলোচনা হচ্ছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। তবে মেসির ওই গোল বিতর্ক না উঠলে এখনই হয়তো সেটা আলোর মুখ দেখত না!

ভিএআর প্রযুক্তি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ও জার্মান বুন্দেসলিগায় চালু করা হয়েছে ইতোমধ্যেই। দুই লিগে বেশ সুফলও পাওয়া যাচ্ছে এই পদ্ধতিটির। এই প্রযুক্তিতে বল গোল লাইন পেরিয়ে গেল কিনা ভিডিও রিপ্লেতে দেখে পরে সিদ্ধান্ত নেন রেফারি। ফাউল বা পেনাল্টির ক্ষেত্রেও ভিএআরের সাহায্য নিয়ে থাকেন রেফারিরা। এদিকে, ভিএআর চালুর ঘোষণা দেয়ার পাশাপাশি লা লিগা সভাপতিও সমালোচনা করেছেন মেসির সেই গোলটি না দেয়ার বিষয়ে। তেবাস বলেন, ‘স্পেনসহ সারা বিশ্ব গোলটি দেখেছে। আমি যদি বলি এটা গোল ছিল না, তবে আপনারা আমাকে অন্ধ বলবেন। নিশ্চিতভাবেই এটা গোল ছিল। আমরা আশা করছি, আগামী মৌসুম থেকে ভিএআর প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা এমন সমস্যার সমাধান করতে পারব।’ লা লিগা সভাপতি যোগ করেছেন, ‘আমরা কঠোর পরিশ্রম করছি, যাতে আগামী মৌসুম থেকেই ভিএআর প্রযুক্তি চালু করা যায়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *