রাজনীতির মাঠে চাঙ্গা হওয়ার চেষ্টা মহানগর বিএনপির

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে গত ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ কর্মসূচী পালনের পর নিজেদের ব্যর্থতা ঘুঁচানোর চেষ্টা করছে মহানগর বিএনপি বলে মন্তব্য করেছেন তৃণমূল নেতৃবৃন্দ। যেই কারনে গুটি কয়েক নেতাকর্মী নিয়ে গত ৫ ডিসেম্বর রাজধানীর বকশি বাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সনের হাজিরা দিতে যাওয়ার পথে তার দৃষ্টি আকর্ষণের লক্ষ্যে হাইকোর্ট চত্ত্বরে অবস্থান করেছিলেন মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক এটিএম কামাল, সহ-সভাপতি আব্দুস সবুর খান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু ইউসুফ খান টিপু, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কাউসার আশাসহ স্বল্পসংখ্যক নেতাকর্মী। কিন্তু তাতেও কি নিজেদের ব্যর্থতা ঘুঁচাতে পেরেছে মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দরা, এমন প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে তৃণমূলের মাঝে। কারন, ১২ নভেম্বর রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবসের জনসভায় বিপুল সংখ্যক লোক সমাগমের দায়িত্ব কেন্দ্র থেকে দেয়া হলেও তা নিতে ব্যর্থ হয় মহানগর বিএনপি। তারমধ্যে খোদ মহানগর বিএনপির সভাপতি এড. আবুল কালাম নিজেও সমাবেশে যাননি। তাই প্রত্যাশার তুলনায় স্বল্প সংখ্যক লোকবল নিয়ে জনসভায় যোগ দিয়ে নিজেদের চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে মহানগর বিএনপির শীর্ষস্থানয়ি নেতৃবৃন্দরা বলে অভিযোগ করেন তৃণমূল নেতৃবৃন্দ। আর সর্বশেষ হাতে গোনা কয়েকজন নেতা নিয়ে গত ৩ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করতে এসে পুলিশের বাঁধার সম্মুখীন হন মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দরা। কিন্তু তখন পুলিশকে বুঝিয়ে এটিএম কামাল সমাবেশ করার অনুমতি নিলেও টিপু ভয়ে ব্যানার দিতে দেরী করায় কামাল ক্ষুব্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীতে পুলিশ বেষ্টনীর মধ্যেই মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দরা বিক্ষোভ সমাবেশ করলেও সেই সমাবেশে শেষ মূহুর্তে এসে মহানগর বিএনপির সভাপতি এড. আবুল কালাম নেতৃবৃন্দের সাথে দাঁড়িয়েই সমাবেশের ইতি টানায় ক্ষুদ্ধ হয়ে যান দলীয় নেতৃবৃন্দরা। এরপর তড়িঘড়ি করে সমাবেশ শেষ করতে বাধ্য হয় মহানগর বিএনপি। আর বিকেলে একই কর্মসূচী বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে জেলা বিএনপি করার সময় পুলিশ বাঁধা না দেয়ায় সমালোচিত হয়ে যান মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *