আজ : মঙ্গলবার: ৮ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ইং | ২ জমাদিউস-সানি ১৪৩৯ হিজরী | ভোর ৫:৫০
fevro
শিরোনাম
12

আ’লীগের ছয় ও বিএনপির এগার পদে জয়

Badal-nj | ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ | ১২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

ডান্ডিবাকর্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি পদে এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক পদে এড. মোহসীন মিয়া সহ ৬টি পদে জয়লাভ করেছে আওয়ামীলীগ সমর্থিত সম্মিলিতি আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ। অপরদিকে বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সহ-সভাপতি সহ মোট ১১টি পদে জয়লাভ করেছে। গত মঙ্গলবার সকাল ৯টা ১০ মিনিট থেকে বিকেল ৪টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত বার ভবনের ২য় তলায় ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ৪৬৬ ভোট পেয়ে সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগ সমর্থিত এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল। তার প্রতিদ্বন্ধি বিএনপি সমর্থিত এড. জহিরুল হক পেয়েছেন ৪৩৫ ভোট। সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগ সমর্থিত এড. মোঃ মোহসীন মিয়া পেয়েছেন ৪৭৯ ভোট। তার প্রতিদ্বন্ধি বিএনপি সমর্থিত এড. আবদুল হামিদ খান ভাষানী পেয়েছেন ৪১৬ ভোট। কার্যকরী পরিষদে মোট ১৭টির মধ্যে সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ ১টি সম্পাদকীয় এবং ৩টি কার্যনির্বাহী সদস্য পদে জয়লাভ করেছে এবং বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ ৯টি সম্পাদকীয় এবং ২টি কার্যনির্বাহী সদস্য পদে জয়লাভ করেছে। জেলা আইনজীবী সমিতির ২০১৮-২০১৯ সালের নির্বাচনে নব নির্বাচিত আ’লীগ সমর্থিত বিজয়ীরা হলেন সভাপতি এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারন সম্পাদক এড. মোহসিন মিয়া, যুগ্নসাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান, ক্রিড়া সম্পাদক এড.আবুল বাসার রুবেল, কার্যকরী সদস্য মোঃ রাশেদ ভুইয়া। বিএনপির সমর্থিত বিজয়ীরা হলেন, সিনিয়র সহ সভাপতি এড. রেজাউল করিম খান রেজা, সহ-সভাপতি এড.আজিজ আল মামুন, কোষাধ্যক্ষ নুরুল আমীণ মাসুম, আপায়্যন সম্পাদক এড. সুমন মিয়া, লাইব্রেরী সম্পাদক এড. একেএম ওমর ফারুক নয়ন, সাহিত্য সাংস্কৃতিক সম্পাদক এড. নজরুল ইসলাম মাসুম, সমাজ সেবা সম্পাদক এড. শারমিন আক্তার, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এড. জাহিদুল ইসলাম মুক্তা, কার্যকরী সদস্য এড. আমেনা আক্তার, কার্যকরী সদস্য এড. রফিকুল ইসলাম আনু। সকাল থেকেই আদালত পাড়ায় বিরাজ করে উৎসবের আমেজ। আওয়ামীলীগ, জাতীয় পার্টি ও বিএনপির দলীয় নেতাকর্মীদের মিলন কেন্দ্রে পরিণত হয় আদালত পাড়া। নির্বাচন কমিশনার এড. মাহবুবুর রহমান মাসুম জানান, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উৎসবের মধ্য দিয়ে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সর্বমোট ভোট পড়েছে ৯১২টি। নির্বাচনে ১৭ টি পদের বিপরীতে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি সমর্থীত দুটি প্যানেল থেকে ৩৪ জন ও সদস্য পদে একজন স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ মোট ৩৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধীতা করেন।
নির্বাচনে আওয়ামীলীগ সমর্থীত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক পদে এড. মোহসীন মিয়া, সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রার্থী এড. আব্দুল লতিফ মিয়া, সহ-সভাপতি প্রার্থী এড. মোঃ ছালাহউদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এড. মাহাবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ প্রার্থী এড. জসীম উদ্দিন, আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. মনিরুজ্জামান কাজল, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. মোঃ আবুল বাশার রুবেল, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. মোঃ সাজ্জাদুল হক সুমন, লাইব্রেরী বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. সুভাষ বিশ্বাস, আইন ও মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. স্বপন ভূঁইয়া, সমাজ সেবা বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. ইসরাত জাহান হক এবং কার্যকরী সদস্য পদ প্রার্থী এড. মোঃ মুশিউর রহমান, এড. রাশেদ ভূইয়া, এড. শোয়েব আহাম্মেদ শুভ, এড. আব্দুল মান্নান ও এড. রোমানা আক্তার।
অপরদিকে, বিএনপি সমর্থীত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ প্যানেলের সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্ধীতা করেন, এড. জহিরুল হক, সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এড. আব্দুল হামিদ খান ভাষানী, সিনিয়র সহ সভাপতি প্রার্থী এড. রেজাউল করিম খান রেজা, সহ সভাপতি প্রার্থী এড. আজিজ আল মামুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এড. আব্দুস সামাদ মোল্লা, কোষাধ্যক্ষ প্রার্থী এড. নুরুল আমিন মাসুম, আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. সুমন মিয়া, লাইব্রেরী বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. একেএম ওমর ফারুক নয়ন, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. সাইদুল ইসলাম সুমন, সমাজ কল্যান সম্পাদক প্রার্থী এড. শারমিন আক্তার, আইন ও মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক প্রার্থী এড. জাহিদুল ইসলাম মুক্তা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক প্রার্থী এড. নজরুল ইসলাম মাসুম এবং কার্যকরী সদস্য প্রার্থী এড. আল আমিন, এড. রফিকুল ইসলাম আনু, এড. আহসান হাবীব ভূইয়া, এড. ফজলুর রহমান ফাহিম ও এড. আমেনা আকতার শিল্পী। নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন ৯২৭ জন আইনজীবী। নির্বাচনে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে প্রথম বারের মত সিসি টিভি ক্যামেরায় নির্বাচন পর্যবেক্ষন করার ব্যবস্থা করেন নির্বাচন কমিশন। গত ২ জানুয়ারী আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করা হয়। এরপর ৫ জানুয়ারী থেকে ৭ জানুয়ারী পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন প্রার্থীরা। ৮ জানুয়ারী মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বৈধ প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়। এরপর ১২ জানুয়ারী নির্বাচনের জন্য চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ ও প্রার্থীদের মাঝে ক্রমিক নম্বর বরাদ্দ দেয়া হয়। এ বারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, এড. আক্তারুজ্জামান। নির্বাচন কমিশনার হিসেবে ছিলেন, এড. মোফাজ্জল হোসেন নান্নু, এড. নুরুল হুদা, এড. মাহাবুবুর রহমান মাসুম ও এড. কামরুন্নাহার বেগম। এছাড়াও নির্বাচনে আপিল বোর্ডের দায়িত্ব পালন করেন এড. শওকত আলী, এড. রমজান আলী ও এড. হারুন উর রশিদ। আওয়ামীলীগ সমর্থিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের জয়লাভের ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান ও ৩ আসনের সাংসদ লিয়াকত হো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *