আজ : মঙ্গলবার: ১১ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৪ এপ্রিল ২০১৮ ইং | ৭ শাবান ১৪৩৯ হিজরী | সকাল ৯:১২
BADAL
শিরোনাম
ডিএনডি’র জলাবদ্ধতায় পঞ্চাশ বিঘা জমির ধান পানির নিচে-❋-আওয়ামীলীগে কোন্দল সৃষ্টিকারীদের কেন্দ্রীয় হুশিয়ারি...-❋-হকার ইস্যুতে আবারও অশান্ত হওয়ার পথে নারায়ণগঞ্জ !-❋-ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কের বেহাল দশা রোদে ধুলা-বৃষ্টিতে কাদায় জনভোগান্তি-❋-লন্ডনের কার্টেজ হোটেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সোনারগাঁয়ের উন্নয়ন নিয়ে ইঞ্জিনিয়ার শফিকুলের সাথে আলোচনা-❋-সকল মানুষেরই প্রাণের মায়া আছে :লিপি ওসমান-❋-নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহের উদ্বোধনীতে ডিসি : ফাস্টফুড আমাদের দেহের জন্য ক্ষতিকর-❋-সাড়ে চার কোটি টাকার মাদক ধ্বংস !-❋-মাঠে নামার প্রস্তুতিতে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি-❋-ওয়াসার দুর্গন্ধযুক্ত পানি ব্যবহারের অযোগ্য ॥ সীমাহীন ভোগান্তিতে নারায়ণগঞ্জবাসী
18

যানজট নিরসনে সেলিম ওসমানের পরামর্শ

Habibor badal | ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ | ১:২৭ পূর্বাহ্ণ

 

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

গত কয়েকদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জে তীব্র যানজট লক্ষ্য করা গেছে। বিশেষ করে বাংলা নববর্ষ পহেলা বৈশাখের আগের কয়েকদিন শহরের যানজট ছিল অসহনীয় মাত্রায়। এদিকে শহরের পুরনো রূপে ফিরতে শুরু করেছে শহরের নিতাইগঞ্জে অবৈধ ট্রাক স্ট্যান্ড এবং নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল। দীর্ঘ বছরের ভোগান্তির পর স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের হস্তক্ষেপে নিতাইগঞ্জ ট্রাকস্ট্যান্ড এবং কেন্দ্রীয় বাস স্ট্যান্ডটি গত কয়েক মাস ধরে শৃঙ্খলার মধ্য থাকায় যানজট অনেকটাই নিয়ন্ত্রিত অবস্থায় ছিল। কিন্তু বর্তমানে বিভিন্ন কারনে সেই শৃঙ্খলা অনেকটাই নষ্ট হওয়া যানজট সেই পুরনো রূপে ফিরতে শুরু করেছে। আগামী মে মাস থেকে শুরু হতে যাচ্ছে পবিত্র রমজান মাস। তাই বর্তমান সৃষ্ট সমস্যা এবং আসন্ন রমজান মাসের কর্মব্যস্ততা নগরীতে যানজট আরো তীব্র আকার ধারন করতে পারে আশংকা করা হচ্ছে। যদি গত কয়েক বছর রমজান মাসে নগরীকে যানজট মুক্ত রাখতে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে জেলা পুলিশকে আর্থিক সহযোগীতা দিয়ে আনসার এবং কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে রমজান মাসে নগরীকে যানজট মুক্ত রাখার চেষ্টা করে ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। বর্তমান যানজট পরিস্থিতি এবং রমজান মাসে নগরীকে যানজট মুক্ত রাখতে সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান কোন পরিকল্পনা করছেন কিনা এ বিষয়ে তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হলে নিউজ নারায়ণগঞ্জকে তিনি জানান, নগরীকে যানজট মুক্ত রাখার বিষয়টি সম্পূর্ন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এবং নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসনের দায়িত্বে মধ্যে পড়ে। আমাকে যে কেউ আহবান করলে যে কোন সহযোগীতা করতে আমি প্রস্তুত। তবে প্রথমেই বলবো সামনে রমজান মাসকে সামনে রেখে অনেকেই চেষ্টা করবে পুনরায় ফুটপাত দলখ করতে। নারায়ণগঞ্জ শহরের পাশের এলাকাগুলো আসা রিকশা এবং সিএনজি চালিত অটোরিকশার চলাচলের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। বৃষ্টির কারণে রাস্তার অবনতি ঘটবে ফলে মানুষের কষ্ট বেড়ে যেতে পারে। এমন পরিস্থিতির কারণে যদি কোন রোজাদার ব্যক্তি কষ্ট পান তাহলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন এর জন্য গুনাগার হবেন। সুতরাং আমি মনে করি সমস্ত বিষয়টি কঠোরভাবে দমন করতে হবে। সেই কারণে শবে-বরাত এর পূর্বেই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ প্রশাসনের আলোচনায় বসার প্রয়োজন রয়েছে। পূর্বের ব্যবস্থাপনা গুলো লক্ষ্য করলে দেখা যাবে কয়েকমাস নিতাইগঞ্জ ট্রাক স্ট্যান্ডটি শৃঙ্খলার মধ্যে পরিচালিত হলেও পরে কিছু সংখ্য চাঁদাবাজের চাঁদাবাজির কারনে নিতাইগঞ্জে পুনরায় একই পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। আমি বলবো সেই সময়টিতে পুলিশ এবং আনসার সদস্য দিয়ে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে ট্রাকে পণ্য লোডিং আনলোডিং ব্যবস্থা করা হয়ে ছিলো। বর্তমানে সে ব্যবস্থা না থাকায় এ যানজটের পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে বাসের মালিক এবং শ্রমিক কর্মচারীবৃন্দর আন্তরিকতা দেখালো সেখানে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার অভাব এবং অবহেলায় পুনরায় একই অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। আরো উল্লেখ করেন, শহরে অবৈধ অতিরিক্ত রিকশা প্রবেশ যানজটের একটি বড় কারণ। সাধারণ নিয়মানুযায়ী স্কুল কলেজগুলো রমজান মাসে বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। তবে সময়ের কারণে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা এগিয়ে নেওয়া বা পিছিয়ে দেওয়া উভয় দিকেই সমস্যা।  এ সময়টাতে স্কুল কলেজের কোচিংয়ের চাপ বেশি থাকবে। তাই এ রমজান মাসে যানজট বৃদ্ধি পাবে বলে আমি মনে করছি। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসন এবং পুলিশ প্রশাসনের সাথে আলোচনা সভা আয়োজনের অনুরোধ রেখে সেলিম ওসমান বলেন, প্রয়োজনে দিনের বেলায় নগরীতে কোন প্রকার ট্রাক চলাচল বন্ধ করতে হবে। পণ্য লোডিং-আনলোডিং সম্পূর্ন রাতের বেলায় করতে হবে। তারাবি নামাজের পর পর সকাল ৮টা পর্যন্ত লোডি আনলোডিং করতে হবে। অবৈধ রিকশা যাতে শহরে প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য নগরীতে প্রবেশের অত্যন্ত মূল ৪টি পয়েন্টে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে চেক পোর্ট বসানো যেতে পারে। যার মাধ্যমে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক প্রদত্ত বৈধ লাইসেন্স এবং অবৈধ রিকশা শর্ণাক্ত করা যেতে পারে এবং শুধুমাত্র বৈধ লাইসেন্স থাকা রিকশা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় চলতে পারবে এমন ব্যবস্থা করতে হবে। নারায়ণগঞ্জ-ফতুল্লা-ঢাকা পুরাতন সড়কটি দিয়ে সহজে বাস চলাচল করতে পারে তার জন্য পঞ্চবটি-পাগলা- পোস্তখোলা সড়কটি যানজট মুক্ত রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। শহরের বেশ কিছু স্থানে নতুন করে সিএনজি চালিত অটোরিকশা, টেম্পু ও ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকের স্ট্যান্ড গড়ে উঠেছে সেগুলোর ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। সেলিম ওসমান বলেন, সুতরাং আলোচনা ছাড়া কোন পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব বলে আমি মনে করি না। উক্ত আলোচনায় ট্রাক মালিক সমিতি, বাস মালিক সমিতি, নারায়ণগঞ্জ জেলা দোকান মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ সহ স্থানীয় সকল জনপ্রতিনিধির উপস্থিত থাকাটা একান্ত জরুরি বলে আমি মনে করি। তবেই নারায়ণগঞ্জ নগরীকে একটি যানজট মুক্ত পরিকল্পিত নগরীর রূপ দেওয়া সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *