না’গঞ্জ কলেজের স্মরণীয় নবীন বরণ অনুষ্ঠানে সেলিম ওসমান আমি তোমাদের মাঝেই বেঁচে থাকতে চাই

 

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

সাংসদ সেলিম ওসমানের উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ কলেজের স্মরণকালের বর্ণাঢ্য নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার শহরের ইসদাইর এলাকায় অবস্থিত পৌর ওসমানী স্টেডিয়ামে দিনব্যাপী নারায়ণগঞ্জ কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য বিপুল পরিমান সহায়তা দিয়েছেন ওসমান দম্পত্তি। এমপি সেলিম ওসমানের সহধর্মিনী নাসরিন ওসমানের পক্ষ থেকে উপহার হিসেবে সরকারী মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য ১টি, এবং নারায়ণগঞ্জ কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য ১টি বাস প্রদান করা হয়। সেই সাথে এমপি সেলিম ওসমানের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নারায়ণগঞ্জ কলেজের প্রশাসনিক কাজে ব্যবহারের জন্য একটি নোয়া গাড়ি প্রদান করেন। সেই সাথে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষ্যে আয়োজিত ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ঢাকা জোনে ক্রিকেট, ফুটবল, ও ভলিবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করায় কলেজের ৬৫জন শিক্ষার্থী খেলোয়াড়ের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে মোট ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকার চেক প্রদান করেন। আরো শিক্ষার্থীদের মাঝে কুপন প্রতিযোগীতায় ফ্রিজ, এলইডি টিভি, মাইক্রো ওভেন, রাইস কুকার সহ মোট ১০টি পুরস্কার। সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়া বর্ণাঢ্য এই নবীনবরণ অনুষ্ঠান চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। সংগীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী কাজী শুভ সহ পাওয়ার ব্যান্ডর শিল্পীরা। নবীনবরণ অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ কলেজ, সরকারী মহিলা কলেজ ও সরকারী তোলারাম কলেজের প্রায় ৭ হাজার শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী। প্রধান অতিথি হিসেবে সেলিম ওসমান তেমন কোন বক্তব্য না রাখলেও উপস্থিত শিক্ষার্থীসহ সকলের কাছে দোয়া প্রার্থনা করে বলেন, পাওয়ার আর জীবন দু’টিই আমার কাছে খুব। আমি কতদিন বাচঁবো তা জানি না। কিন্তু আমি তোমাদের মাঝে সারাজীবন বেঁচে থাকতে চাই। আমি ইউনিয়ন গুলোতে নিজস্ব অর্থায়নে স্কুল নির্মাণ শেষ করেছি এখন কলেজ গুলোতে হাত দিয়েছি। আমি চাই আমার নারায়ণগঞ্জের ছেলেরা উন্নত শিক্ষার জন্য ঢাকা যেতে না হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা যেতে হবে না। নারায়ণগঞ্জের কোন ছেলে মেয়ে বেকার থাকবে না। আমি শুরু করেছি। শেষটা তোমাদের করতে হবে। তোমরা সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ভবিষ্যতে তোমাদের মধ্য থেকেই কেউ এমপি, কেউ মেয়র, কেউ প্রধানমন্ত্রী হবে। তোমাদের হাত ধরে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। উন্নত দেশ হিসেবে মাথা উচু করে দাঁড়াবে বিশ্বের দরবারে। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিটের কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, নারায়ণগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হক রুমন রেজা সহ নারায়ণগঞ্জের পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ সহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *