ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজটে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ

 

 

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মেঘনা সেতুর টোল প্লাজা এলাকা থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত গত সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ৩০ কি.মি. যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে কর্মস্থলে যাওয়া মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অনেক যাত্রীরা পায়ে হেটে গন্তব্যে যেতে হয়েছে। কুমিল্লাগামী তিশা পরিবহনের যাত্রী সুমন মিয়া ও কাদির হোসেন জানান, কাচঁপুর সেতু থেকে মেঘনা সেতু পার হতেই আমাদের ৫ ঘন্টা সময় বাসে বসে থাকতে হয়েছে। নোয়াখালীর যাত্রী আমেনা আক্তার ও সাথী বেগম জানায়, তীব্র যানজট ও গরমে আমাদের সাথে থাকা নারী, শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়েছে।চট্টগ্রাম পরিবহনের যাত্রী সুলতানা আক্তার ও রাজিয়া বেগম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এত পুলিশ সদস্যরা মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করার পরও কেন যানজটের কবলে পড়তে হয় আমাদের।চট্টগ্রামগামী দেশ ট্রাভলস্ পরিবহনের বাস চালক হামিদ আলী জানান, কাঁচপুর সেতু থেকে মেঘনা সেতু পর্যন্ত আসতে  আমাদের দীর্ঘ সময় বসে থাকতে হয়েছে। মহাসড়কের গাড়ীর চাপ বেশি থাকার কারনে এ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া শিমরাইল থেকে কাঁচপুর ও মেঘনা সেতু পার হতেই ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকতে হয়। সরকারী চাকুরীজীবী কুমিল্লাগামী যাত্রী সাহেদ মিয়া জানান, রাত সাড়ে ১২টায় তিনি কমলাপুর থেকে বাসে উঠে সকালে ৬টার দিকে মেঘনা টোল প্লাজায় এসে পৌঁছেন। কাচঁপুর হাইওয়ে থানার আব্দুল কাইয়ুম সরদার জানান, অতিরিক্ত গাড়ির চাপ ও রাস্তা সংস্কারের কারনেই তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তবে আমাদের প্রচেষ্ঠায় (দুপুরে) পরিবহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *