বিতর্কে আইভী- প্রশংসিত সেলিম ওসমান

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

প্রাক্তন ছাত্রী হওয়া স্বত্বেও বাণিজ্যিক স্বার্থে যেই স্কুলের একটি ভবন ভেঙ্গে দিয়ে বিতর্কিত হলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আলোচিত প্রভাবশালী মেয়র ডা: সেলিনা হায়াত আইভী, এখন সেই স্কুলেরই ব্যাপক উন্নয়ণের আশ^াস দিয়ে প্রশংসিত হলেন সদর-বন্দর আসনের সেলিম ওসমান এমপি। শুধু উন্নয়ণের আশ^াসই নয়, প্রায় ১০৮ বছরের ঐতিহ্যবাহী মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের দ্বিতল ভবন রাতের আঁধারে ভাঙ্গার কারনে মেয়রের সমালোচনা করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আঘাত না করার আহ্বানও জানান জেলার প্রভাবশালী এই এমপি। জানাগেছে, নারায়ণগঞ্জ নগরীর প্রায় ১০৮ বছরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হচ্ছে মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ। আর এই স্কুলেরই প্রাক্তন শিক্ষার্থী হচ্ছেন সিটি মেয়র আইভী। যেই স্কুলের গাঁ ঘেসে নির্মিত হয়েছে আইভীর পিতার নামে প্রয়াত পৌর পিতা আলী আহাম্মদ চুনকা নগর মিলনায়তন। কিন্তু বহুতল এই মিলনায়তনের ভেতর কোন পার্কিংয়ের স্থান রাখেনি কর্তৃপক্ষ। ফলে মিলনায়তনটির পাশেই সিটি কর্পোরেশনের খালি জায়গায় (উচ্ছেদকৃত বিনোদন সুপার মার্কেট) পার্কিংয়ের মার্কেট নির্মানের পরিকল্পনা করে সিটি কর্পোরেশন। আর এই বাণিজ্যিক স্থাপনা নির্মানের জন্য মর্গ্যান স্কুলের একটি দ্বিতল ভবনের অংশ সিটি কর্পোরেশনের জমিতে থাকার দাবী করে ভবনটি ভেঙ্গে ফেলার লক্ষ্যে স্কুল কৃর্তপক্ষকে চিঠি দেয় মেয়র। পরবর্তীতে স্কুল কর্তৃপক্ষ মানবিক বিবেচনায় ভবনটি না ভেঙ্গে স্কুলের স্বার্থে তা রেখে দিতে স্কুলের প্রাক্তন ছাত্রী মেয়র আইভীর নিকট আবেদন করেছিলেন। কিন্তু মেয়র স্কুল কর্তৃপক্ষের আবেদনের কোন জবাব না দিয়েই স্কুলের ভবনটি জরাজীর্ণ দাবী করে গত ১৯ মে রাতের আঁধারে তা ভেঙ্গে দেয়। আর রাতের আঁধারে কেন স্কুলের ভবন ভেঙ্গে ফেলার প্রতিবাদে ২০ মে দুপুরে বিক্ষোভ করেন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, স্কুল পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দরা। পরবর্তীতে তারা ভেঙ্গে ফেলা ভবনের পুন:নির্মানের দাবীতে মেয়রকে স্মারকলিপি প্রদান করেন। তারপর পূর্র্ব নোটিশ না দিয়ে রাতের আঁধারে ভবন ভেঙ্গে ৬ লাখ টাকার মামলামাল ক্ষতি সাধন করায় ২০ মে বিকেলে নাসিকের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দেন স্কুলের অধ্যক্ষ অশোক কুমার তরু। গত ২১ মে বিকেল ৩টায় নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের তৃতীয় তলায় শীতলক্ষ্যা কমিউনিটি সেন্টারে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে অসহায় মানুষের মাঝে সহায়তা পৌছে দিতে এমপি সেলিম ওসমানের আহবানে তাঁর নির্বাচনী এলাকার আওতাধীন নাসিকের ১৭টি ওয়ার্ড এবং ৭টি ইউপি এলাকার জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভায় মর্গ্যান স্কুল প্রসঙ্গে বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি উন্নয়ণের এই ঘোষণা দেন। সেলিম ওসমান বলেন, ‘আমি মেয়রের কাছে অনুরোধ রাখবো, আপনি যেই কাজই করতে চান আলোচনার মাধ্যমে করেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আঘাত করবেন না। সম্পদটা আমার আপনার নয়। সম্পদটা জনগনের এবং ভবিষ্যত প্রজন্মের। স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মন্দির, গীর্জায় যদি জনগনের সম্পত্তি থাকে তাহলে সিটি কর্পোরেশনের মালিক কিন্তু জনগন। জনগনের সম্পত্তিতে যদি এসব প্রতিষ্ঠান হতে পারে তাহলে সিটি কর্পোরেশনের জায়গায় একটি স্কুল, বা মসজিদ অথবা মন্দির হতে আপত্তি নাই।’ প্রভাবশালী এই এমপি উন্নয়ণের আশ^াস দিয়ে অনুরোধ করে আরো বলেন, ‘আমি মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের কাছে অনুরোধ রাখবো উনি যাতে উত্তেজিত না হন। ঈদ শেষে আমরা সবাই মিলে বসবো, ইনশাল্লাহ মর্গ্যান স্কুল আগের থেকে বেশি উন্নত হবে। এখানে উপস্থিত কাউন্সিলরবৃন্দরা মেয়রকে কথা গুলো জানাবেন। উনি যাতে উত্তেজিত না হন। প্রয়োজনে উনি আমার সহযোগীতা নিবেন আমিও উনার সহযোগীতা নিবো। আমি আপনাদের সামনে কথা দিলাম, আনোয়ার ভাই আমাদের সকলের গুরুজন। উনার সম্মানে সরকারী ভাবে হোক আর আমার ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সহযোগীতা নিয়ে হোক মর্গ্যান স্কুলের উন্নয়ন আমি করবো।’ আর এমপির এমন আশ^াসে সভায় উপস্থিত বিএনপির একজন জনপ্রতিনিধি মন্তব্য করেন, ‘স্কুলের ভবন ভেঙ্গেছেন মেয়র আইভী, আর গড়তে যাচ্ছেন এখন এমপি সেলিম ওসমান।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *