না’গঞ্জ থেকে গাজীকে মন্ত্রী করায় উচ্ছ্বসিত শীর্ষ নেতারা

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

স্বাধীনতার পর আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে এই প্রথম মন্ত্রীপরিষদের স্থান পেয়েছেন রূপগঞ্জ আসনের এমপি গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতিক)। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী হিসেবে গত সোমবার বিকেলে শপথ নিয়েছেন তিনি। আওয়ামীলীগ সরকারেরর আমলে জেলায় প্রথমবারের মতো মন্ত্রী পেয়ে উচ্ছ্বসিত পুরো নারায়ণগঞ্জবাসী। আনন্দ আর উচ্ছ্বাস কমতি নেই নারায়ণঞ্জের শীর্ষ রাজনীতিকদেরও। মন্ত্রী পরিষদের আমন্ত্রণ পাওয়ার পর থেকেই সবদিক থেকে অভিনন্দন আর শুভেচ্ছা বার্তায় ভাসছেন গোলাম দস্তগীর গাজী। জেলায় মন্ত্রীত্ব আসার সংবাদে গোলাম দস্তগীর গাজীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন জেলার শীর্ষ আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ডা.সেলিনা হায়াৎ আইভী জানান, খুবই  ভালো লাগছে। নারায়ণগঞ্জ থেকে এবারই প্রথমবার কেউ আওয়ামী লীগ মন্ত্রীপরিষদে স্থান পেল। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দ ও গর্বের বিষয়। আমার পক্ষ থেকে তাঁকে (গোলাম দস্তগীর গাজী) শুভেচ্ছা এবং কৃতজ্ঞতা জানাই। সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বাবলী বলেন, নারায়ণগঞ্জবাসী এবং আমি খুবই আনন্দিত। নারায়ণগঞ্জবাসী ও আমার পক্ষ থেকে গোলাম দস্তগীর গাজীকে (বীর প্রতীক) অনেক অনেক শুভেচ্ছা। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের  সভাপতি  আনোয়ার হোসেন বলেন, গোলাম দস্তগীর গাজীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে জানাই, স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ থেকে কেউ মন্ত্রী সভায় যেতে পারেনি। কিন্তু এবারই প্রথমবার নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ থেকে মন্ত্রী নিার্বচিত করা হয়েছে পেল। এটা  আমাদের জন্য অনেক আনন্দের। নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য আনন্দ ও গর্বের।  নারায়ণগঞ্জ থেকে সবাই মন্ত্রী চেয়েছিলো এবং পেয়েছে। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞ।জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, নারায়ণগঞ্জের কেউ মন্ত্রিত্বের সাধ পেলো তাও আবার আমার এলাকার এমপি। এটা খুবই খুশির সংবাদ। আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী হিসেবে খুবই গর্বিত ও সম্মানিত বোধ করছি। একই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু বলেন, দীর্ঘদিন পর নারায়ণগঞ্জবাসী মন্ত্রী পেল। তাও এমন একজন মন্ত্রী যিনি কিনা  একজন মুক্তিযোদ্ধা। তিনি হলেন গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতিক)। এমন একজন মন্ত্রী পেয়ে নারায়ণগঞ্জবাসী উচ্ছ্বসিত এবং গর্বিত। আমিও খুব আনন্দিত ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু হাসনাত শহীদ মো.বাদল (ভিপি বাদল) বলেন, গোলাম দস্তগীর গাজীকে মন্ত্রী করায় নারায়ণগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের আক্ষেপ ঘুচঁলো। এটা আমাদের সকলের জন্য অত্যন্ত খুশির সংবাদ। নারায়ণগঞ্জ থেকে গোলাম দস্তগীর গাজীকে মন্ত্রীপরিষদে স্থান দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেন, গোলাম দস্তগীর গাজীকে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী করায় মহানগর আওয়ামীলীগের সকলেই অত্যন্ত আনন্দিত। মহানগর আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে তাকে অভিনন্দন জানাই। জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, যোগ্যতা ও দক্ষতার কারণেই গোলাম দস্তগীর গাজী সরকারের একটি অতীব গুরুত্বপুর্ণ মন্ত্রণালয় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন। উভয়ে অত্র মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমে পূর্বের চেয়ে আরও গতি সঞ্চার করবেন এবং তার নেতৃত্বে চলমান সফলতা অব্যাহত থাকবে ও ইতিবাচক উন্নয়ন ঘটবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। আমি গোলাম দস্তগীর গাজীর জন্য দোয়া ও সর্বাঙ্গীন সফলতা কামনা করছি। জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গোলাম দস্তগীর গাজীকে মন্ত্রী করায় আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী বাধভাঙা আনন্দে ভাসছে। এজন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষ সরকারের কাছে জেলা থেকে একজনকে মন্ত্রীপরিষদে দেখতে চেয়েছিলো। আমাদের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। আমরা খুবই খুশি। গোলাম দস্তগীর গাজীকে জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাই। মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহমুদা মালা তার শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন, এটা অবশ্যই আনন্দের ব্যাপার নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য এবং আমি ব্যক্তিগতভাবেও অনেক খুশি। কারণ প্রথমমত নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ থেকে প্রথমবারের মত মন্ত্রীত্ব দেয়া হয়েছে। তাও এমন একজনকে মন্ত্রীত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে যিনি হলেন একজন মুক্তিযোদ্ধা। আমি তাকে ব্যক্তিগতভাবে খুব পছন্দ করি। তিনি খুবই ভালো মনের একজন মানুষ। নারায়ণগঞ্জবাসী ও আমার দলের পক্ষ থেকে তার জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *