আড়াইহাজারে হিন্দু পল্লীতে হামলা

স্টাফ রিপোর্টার
আড়াইহাজারে বিদ্যালয় এলাকায় প্রকাশ্যে ধুমপান করতে নিষেধ করায় নব্য আওয়ামী লীগ নেতা তানভীর আহমেদের নেতৃত্বে গোপালদী হিন্দু পাড়ায় হামলা চালিয়ে বাড়িঘরে ভাংচুর চালানো হয়েছে। আহত হয়েছে শিশু নারী সহ ৮ জন। জানা গেছে, গতকাল বুধবার উপজেলার সদাসদী উচ্চ বিদ্যালয়ে আঙ্গিনায় স্কুল চলাকালিন সময়ে গোপালদী পৌর ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী নেতা তানভীর আহমদ সহ ১০/১২জন মিলে ধুমপান করছিল। ঐ সময় বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য উত্তম কুমার বিশ্বাস তাদেরকে বিদ্যালয় আঙ্গিনায় ধুমপান না করার জন্য বলে। এ নিয়ে পাশ্ববর্তী নজরুল ইসলাম বাবু কলেজের সামনে তাদের দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার রেশ ধরে গতকাল বুধবার রাতে নব্য আওয়ামীলীগ নেতা তানভির আহমদ সহ শতাধিক লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে গোপালদী হিন্দু পাড়ায় হামলা চালায়। তারা গোপালদী পৌরসভার সাবেক যুবলীগের আহবায়ক উত্তম কুমার বিশ্বাসের বাড়ি ও তার শ্বশুর অরুন বিশ্বাসের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ৫টি ঘর ভাংচুর চালায় এবং মালামাল লুট করে নিয়ে যায় এ সময় শিশু নারীসহ ৮ব্যক্তিকে পিটিয়ে আহত করেছে। সন্ত্রাসীরা অরুন বিশ্বাসের বাড়ির রাধা গোবিন্দ মন্দিরটিতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভাংচুরের চেষ্টা চালায়। সন্ত্রসী হামলায় আহতরা হল সাধনা রানী বিশ্বাস(৬৫), সন্ধ্যা রানী বিশ্বাস(৫৫), নিয়তি রানী বিশ্বাস(৫২), দিপালী রানী বিশ্বাস(৫০), শিশু নিলয় বিশ্বাস(১৫) ও নিরব বিশ্বাস(১২)। সন্ত্রাসী তান্ডবে আতংকে হিন্দু পাড়ার কয়েকশ হিন্দু পরিবারের নারী-পুরুষ ও শিশুরা বাড়িঘর ছেড়ে আত্মরক্ষা করতে হয়েছে বলে উত্তম বিশ্বাস জানান। ঐ সময় গোপালদী বাজারে মাইকে লুটপাটের খবর প্রচার করলে গোপালদী ফাঁড়ি ও আড়াইহাজার থানার ওসির নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। তবে তানভির আহমদের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গোপালদী পৌরসভার মেয়র এম এ হালিম সিকদার জানান, বিকালের ঘটনাটি তিনি উভয়ের মধ্যে মিমাংসা করে দিয়েছিলেন। তবে রাতে লুটপাটের খবরটি গোপালদী বাজারে মাইকে শুনে স্থানীয়রা তাকে জানান বলে জানান। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আতংকিত কয়েকশ হিন্দু পরিবারের লোকজনদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য আড়াইহাজার থানার ওসি আক্তার হোসেন গোপালদীর উলুকান্দীতে কৃষ্ণ মন্দিরে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনদের সাথে সভা করছেন। তবে আড়াইহাজার থানার ওসি আক্তার হোসেন জানান, বাড়িঘরে কোন হামলা কিংবা ভাংচুরের ঘটনা ঘটেনি। তবে প্রতিপক্ষ ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। থানায় অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যপারে জেলা পুলিশের মিডিয়া সেলের প্রধান ইন্সপেক্টর সাজ্জাদুর রহমান জানান, আড়াহাজারে আওয়ামীলীগের দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি বর্তমানে পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। আসামীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *