গ্রিসে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উদযাপন

রেমিট্যান্স প্রেরণকারীদের পুরস্কার প্রদানের মধ্য দিয়ে গ্রিসে বাংলাদেশ দূতাবাসে ১৮ ডিসেম্বর পালন করেছে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৮। দিবসটি উপলক্ষে প্রবাসীদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন এবং রাষ্ট্রদূতের সহধর্মিণী মিসেস শায়লা পারভীন। রেমিট্যান্স প্রেরণকারী প্রবাসীদের সম্মানিত করার লক্ষ্যে ২০১৬ থেকে বাংলাদেশ দূতাবাস এ পুরস্কার প্রদান করে আসছে। প্রবাসীরা বিপুল উত্সাহের সঙ্গে এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

পুরস্কারপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, প্রবাসীরা আমাদের গর্ব। দেশের অর্থনীতিতে তাদের অবদানের স্বীকৃতি প্রদান করতে পেরে বাংলাদেশ দূতাবাস অত্যন্ত গর্বিত। রাষ্ট্রদূত আশা ব্যক্ত করেন যে, বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠাতে এ পুরস্কার প্রদান কার্যক্রম প্রবাসীদের আরো উত্সাহিত করবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প-২০২১ এবং রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে প্রবাসীদের অনস্বীকার্য ভূমিকার কথা উল্লেখ করে এই ভূমিকা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান তিনি।

রাষ্ট্রদূত সগৌরবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের রেমিট্যান্স প্রেরণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা ও দূতাবাস কর্তৃক গৃহীত অন্যান্য সফল কার্যক্রমের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত জনপ্রশাসন পদক ২০১৮ প্রাপ্তির কথা উল্লেখ করে পূর্বের ন্যায় ভাল কাজের সঙ্গে সর্বদা সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করেন।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন দূতাবাসের কাউন্সিলর ড. সৈয়দা ফারহানা নূর চৌধুরী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব সুজন দেবনাথ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করা হয়।

এ বছর দূতাবাস সাড়ম্বরে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালনের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। প্রবাসী শিশুদের (১২-১৮ বছর) জন্য ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে অভিবাসীরা’ শীর্ষক উপস্থাপনা প্রতিযোগিতা এবং প্রবাসী নারী-পুরুষের জন্য ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে পুরুষের চেয়ে  নারীরা অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে’ বিষয়ক একটি বিতর্ক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দূতাবাস কর্তৃক আয়োজিত এসব অনুষ্ঠানে গ্রিসে বসবাসকারী বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, আঞ্চলিক ও ব্যবসায়ী, নতুন প্রজন্মের শিশু কিশোর ও নারী নেতারা অংশগ্রহণ করেন।

এ বছর ব্যক্তি পর্যায়ে ৫ প্রবাসী বাংলাদেশিকে এবং প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে গ্রিসস্থ ২টি বাংলাদেশি মানি ট্রান্সফার এজেন্সিকে বাংলাদেশ দূতাবাস, এথেন্স কর্তৃক প্রবর্তিত আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মাননাপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছেন— মোসাম্মত মাহমুদা আক্তার, মিসেস শিল্পী বেগম, মো. শামসুল আলম, এম. এ. সামাদ, আলমাস কাজী, এনবিএল মানি ট্রান্সফার, এস.এ. গ্রিস এবং ইসলাম মফিদুল এজেন্সি। এ ছাড়া, অনুষ্ঠানে দূতাবাসের উদ্যোগে অনলাইনে বাংলায় গ্রিক ভাষা শিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষক হিসেবে অংশগ্রহণকারী দু’জন প্রবাসী নারী, শেখ শাহীন আক্তার এবং কাজী রিজওয়ানা বেগম হ্যাপিকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *