না’গঞ্জে লাশের মিছিল লম্বা হচ্ছে

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জে লাশের মিছিলে নতুন নতুন সংখ্যা যুক্ত হচ্ছে। আর তাতে খুনের নানা লোমহর্ষক রহস্য উন্মোচিত হচ্ছে। এতে করে লাশের মিছিল দীর্ঘ হয়ে স্বজনহারাদের আহাজারিতে বহিঃপ্রকাশ ঘটছে। আর এভাবেই প্রতিদিন খুন গুমের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। গত ৭ মার্চ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া খুন ও লাশ উদ্ধারের ঘটনার সচিত্র তুলে ধরা হল। এ সপ্তাহে দুটি খুন সহ একটি লাশ
উদ্ধারের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রূপগঞ্জ উপজেলার টাওরা এলাকায় সোহেল মিয়া (২৭) নামে এক ছাত্রলীগ নেতার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে ধারণা পুলিশের। এ ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে। নিহত সোহেল মিয়া একই এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে। সে রূপগঞ্জের ভোলাব ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক। রূপগঞ্জ
থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহমুদুল হাসান জানান, কিছুদিন আগে সোহেলের নামে একটি চাঁদাবাজির মামলা হয়। ধারণা করা যাচ্ছে ওই মামলা ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে সোহেলকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় সন্ধেহজনক ৪জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এছাড়াও মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। গত মঙ্গলবার আড়াইহাজারে আছাড় দিয়ে নূরে আলম ওরফে নূরা (৩৫) নামের এক
অটো রিকশা চালককে হত্যা করা হয়েছে। উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের কালাপাহাড়িয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহত নূরে আলম ওই গ্রামের মৃত নোয়াব আলীর ছেলে। আড়াইহাজারের কালাপাহাড়িয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস আই বিজয় কুমার কর্মকার জানান, নূরে আলম পেশায় অটো চালক। সে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সফিকের গ্যারেজে গাড়ির চাকা ঠিক করতে যায়। চাকা ঠিক করাকে কেন্দ্র করে দুইজনের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয় ওই দুইজনের মধ্যে। পরে গ্যারেজ মালিক নূরাকে সজোরে আছাড় দেয়। এতে নূরা গাছের উপরে পরে গুরুতর আহত হয়। পরে খবর পেয়ে স্বজনরা আহত নুরাকে উদ্ধার করে
হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যান। গত ১১ মার্চ সিদ্ধিরগঞ্জে ফোরকান তালুকদার (৫২) নামে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তির বিবস্ত্র লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নাসিক ১০ নং ওয়ার্ড হাজারীবাগ এলাকার একটি ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই জয়নাল আবেদীন। পুলিশ জানায়, নিহত ফোরকান ঝালকঠি জেলার বাজিতপুর এলাকার মৃত-জব্বার আলীর ছেলে ও সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলী
এলাকার ইদ্রিস আলীর ভাড়াটিয়া। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে আল আমিন বাদি হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন। নিহতের ছেলে আল আমিনের বরাত দিয়ে এসআই জয়নাল আবেদীন জানান, তার বাবা ১২ থেকে ১৩ বছর ধরে মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় রয়েছেন। সকালে তার বাবা ফোরকান বাসা থেকে বাড়ি হয়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘খুনিরা একটি ব্যক্তিকে খুন করার সাথে সাথে তার পুরো
পরিবারও খুন হয়ে যায়। কারণে পরিবারের একজন সদস্যকে খুন করার ফলে পুরো পরিবার বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। আর যদি খুন হওয়ার ব্যক্তিটি সংসারের কর্তা ব্যক্তি হয়ে থাকে তবে পুরো পরিবার ধ্বংস হতে বেশি দিন সময় লাগেনা। এতে করে খুনের আড়ালে ধ্বংসলীলা দৃশ্যমান হচ্ছে।’

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *