কতিপয় শয়তান আজমেরীকে বিপথে নিচ্ছে

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
সদর-বন্দর আসনের এমপি সেলিম ওসমান বলেছেন, আমার চিন্তা ধারনা একটাই কিভাবে মানুষের সেবা করা যায়। তাই বলে আমার সাথে যারা জাতীয় পার্টি করেন তারা যদি মনে করেন আমি তাদেরকে ছেড়ে দিয়েছি সেটা ভুল ধারণা। তবে আমার পরিবারকে ধ্বংস করার জন্য আমার জাতীয় পার্টির কিছু নেতাকর্মী আমার নমিনেশন নিয়েও খেলা করেছে। নোংরা লোক সেলিম ওসমানের সাথে কাজ করতে পারবে না।
সেলিম ওসমানের সংসদ সদস্য হওয়া বড় কথা না। দলের চেয়ারম্যান এই বন্দরের মাটিতেই বলে গিয়ে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মানেই ওসমানলীগ, নারায়ণগঞ্জ মানেই ওসমানপার্টি। আপনারা আমাদের পরিবারকে সব সময় সম্মান করেছেন। প্রত্যেকটা জায়গাতেই শয়তান কাজ করে। কোন শয়তান কাজ করছে আমার পরিবারকে ধ্বংস করার জন্য। আপনাদের সকলের প্রিয় নাসিম ওসমানের ছেলেকে দিয়েও অনেকে ব্যবসা
বাণিজ্য করার সুযোগ খুঁজছেন। তাকে বিপথে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। আমার রক্ত, আমার ভাতিজা। আমি তাকে কিছু বলবো না। কিন্তু যে সমস্ত শয়তানরা আমার পরিবারকে ধ্বংস করার চেষ্টা করতেছে আল্লাহ যদি আমার হায়াত আর শরীরে শক্তি রাখেন আজকে পর থেকে আমি আর কাউকে ছাড় দিবো না। তিনি আরো বলেন, অনেকে আমাদের পরিবারকে খুনি পরিবার বলেন। যারা বলেছেন, আরো বলেন। যারা
পোস্টকোয়াটারের ব্যবসা করতো, যারা মাদক বিক্রি করেন আজকে যাদের পেটে লাথি পড়েছে তারা আমাদের পরিবার সম্পর্কে বলবেই। আর অপকর্ম যারা করবে তাদেরকে আমরা ধ্বংস করবো নারায়ণগঞ্জের মানুষদের সাথে নিয়ে। সুতরাং ভবিষ্যতে যারা খেলবেন তারা মনে রাখবেন আমি মরে যাই নাই। আমি মরে গেলেও নারায়ণগঞ্জ জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা যে ত্যাগ শিকার করেছে তারা ভবিষ্যতেও থাকবে এবং তারা বন্দরের ভবিষ্যত প্রজন্মকে শিক্ষিত হিসেবে গড়ে তুলবেন। অশিক্ষিত মানুষের হাতে আর নেতৃত্ব থাকবে না। নারায়ণগঞ্জের মানুষই নারায়ণগঞ্জকে পরিচালনা করবে। টেনে খাবো লুটে খাবো সেটা আর হবেনা।

সেজন্য আমি বলবো জাতীয় পার্টিকে জেগে উঠতে হবে। আগেও বলেছি এখনো বলছি নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টির অফিস হতেই হবে। কমিটি হবে, অফিস হবে আর কোন সময় নষ্ট করা চলবে না। তিনি আরো বলেন, একটা করে নির্বাচন আসে আর আমাদের মাঝে বিভেদ সৃষ্টি করা হয়। আমি একটা কথা স্পষ্ট করে বলতে চাই। আওয়ামীলীগ এবং জাতীয় পার্টি আমরা দুটি দলই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে চাই। গত ১০ বছর ধরে আওয়ামীলীগকে সহযোগীতা করে আওয়ামীলীগকে ক্ষমতায় রেখেছি। আমরা লোভ করি নাই।

এবার আমরা মন্ত্রীত্বও নেই নাই। আমরা ঢাল হয়ে আছি। আওয়ামীলীগ যদি কোন ভুল করে তবে সেটা ধরিয়ে দেওয়ার জন্য আমরা সংসদের বিরোধী দল হয়েছি। আমরা চাই দেশের উন্নয়ন হোক। আমরা আওয়ামীলীগ ও প্রধানমন্ত্রীকে সহযোগীতা করবো। কিন্তু ব্যক্তি স্বার্থে যারা কাজ করবেন, যারা স্বাধীনতা বিরোধীর কথা বলবেন বলেন কিন্তু যারা জনগনের সমস্যা সৃষ্টি করবেন তাদেরকে কোন ছাড় নাই। গতকাল বৃহস্পতিবার
সন্ধ্যায় বন্দর খেয়াঘাট সংলগ্ন সুরুজ্জামান টাওয়ারের রাত্রি কমিউনিট সেন্টারে জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির উদ্যোগে সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *