রবিবার | ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ | ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ | ৯ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ | বিকাল ৩:৪৪

একক সংবাদ

জয়নালসহ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

Habib Badal | নভেম্বর ০৪, ২০১৮

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জের বহুল আলোচিত বিতর্কিত জাতীয় পার্টি নেতা আল জয়নালের বিরুদ্ধে জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। রহমত উল্লাহ ফারুক নামে ভুক্তভোগী গতকাল রোববার নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় ওই অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, শনিবার এসসিধর রোড কালিরবাজারের স্বর্ণপট্টি এলাকায় ফারুকের জমি ও সম্পত্তি এবং দোকান দখলের উদ্দেশ্যে আল জয়নাল তার বাহিনীর লিপু, হাফিজুর রহমান লিখন, মনির, বাচ্চু, রুবেল, আসিফসহ ১৫/২০ জন সদস্য নিয়ে সম্পত্তি মার্কেটের দোকান দখলের চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে মার্কেটের ম্যানেজারকে মারধর করে চাবি ছিনিয়ে নিতে চায়। পরে সেখানে উপস্থিত পুলিশের উপ পরিদর্শক সাইফুল ইসলামের হস্তক্ষেপে তার সে চেষ্টা বিফল হয়। তবে সে ফারুককে ভূয়া মামলায় ওয়ারেন্ট এনে ধরিয়ে দেয়া, তার ও তার ছেলে মারধর ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। একই সাথে ভাড়াটিয়াদের মধ্যেও ভয়ভীতির সৃষ্টি করে জয়নাল। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন মন্ডল জানান,জমি দখল ও জমির মালিকের ছেলেকে হত্যার হুমকির ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। প্রসঙ্গত জয়নালের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ নতুন না। এর আগেও এ ধরনের প্রচুর অভিযোগ উঠেছিল। সদর উপজেলার ফতুল্লায় কাতার প্রবাসীর স্ত্রীর জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগে আল জয়নালের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে। দখলকৃত জমি থেকে কাতার প্রবাসীর স্ত্রী সুরাইয়া বেগমকে উচ্ছেদ করতে নানা ধরনের হুমকি দেয়ার কারণে থানায় সাধারন ডায়েরী দায়ের করেছে। ১০ অক্টোবর দুপুরে ফতুল্লার হরিহরপাড়া গুলশান রোড এলাকার আব্দুল ওহাবের স্ত্রী সুরাইয়া বেগম বাদী হয়ে আল জয়নালের বিরুদ্ধে সাধারন ডায়েরী দায়ের করে। ফতুল্লায় জীবিত ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে আম মোক্তার নামা দলিল করে  জমি দখলের অভিযোগে জামায়াতে ইসলামের পৃষ্ঠপোশকতাকারী আল জয়নাল সহ তার অনুগামী ৬ জনের বিরুদ্ধে প্রতারনা মামলায় ৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। উপেন্দ্র চন্ত্র সাহা বাদী হয়ে মামলা করলে গত ৪ এপ্রিল জেলা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত বিবাদী আল জয়নাল সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করা হয়। জানা গেছে, ২০১৩ সালের ১১ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনে প্রথমবারের মত মামলা হয়। মামলায় ১১ জনকে আসামী করা হয়। সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলায় আসামীদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ সংগঠন, গোপন ষড়যন্ত্র, অপরাধ সংঘঠেন পরস্পর সহযোগিতা ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে প্ররোচিত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলায় উল্লেখ করা হয়, আসামীদের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় আসামীরা নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনকে অস্থিতিশীল ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটায়। আসামীরা দীর্ঘদিন ধরে সরকারের বিরুদ্ধে গোপন সন্ত্রাসের মাধ্যমে ষড়যন্ত্র করে আসছিল। আসামীদের বিভিন্ন সন্ত্রাসীমূলক কর্মকান্ডে পৃষ্ঠপোশকতা ও আর্থিক সহায়তাকরী হিসেবে খবিরউদ্দিন, জয়নাল, আলমাস ও ইব্রাহিম সহ অনেকেই সক্রিয়ভাবে সম্পৃকত রয়েছে বলে জানা গেছে। সবশেষ নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনেও জয়নালের ছিল ভিন্ন আচরণ। ভোটের আগে আওয়ামীলীগের এমপি শামীম ওসমান যখন নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে জুয়েল মোহসীন পরিষদকে জয়ী করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চান তখন নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী আল জয়নাল এ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পরিষদকে পরাজিত করার ষড়যন্ত্রে নেমেছিলেন অভিযোগ তুলেছিলেন আইনজীবীদের মধ্যে থেকে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © দৈনিক ডান্ডিবার্তা, ওয়েব ডিজাইন: মো: নাসিরউদ্দিন-০১৭১২৫৭৪৯৯০

top