ফতুল্লায় যুবলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

 

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

ফতুল্লায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে যুবলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের অন্তত অর্ধশতাধিক জন আহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে ফতুল্ল¬ার রামারবাগ শাহী মসজিদ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এসময় বেশ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর ও দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র সহ সন্ত্রাসীদের মহড়া দেখা যায়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, যুবলীগের মোস্তফা গ্রুপের সাথে দীর্ঘদিন ধরেই আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল প্রতিপক্ষ গিয়াসউদ্দিন গ্রুপের।  শুক্রবার চলাকালে মোস্তফা গ্রুপের এক সদস্যকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে গিয়াসউদ্দিন বাহিনীর সদস্যরা। এরপর রাত ৯টায় ফের গিয়াস উদ্দিনের লোকজন লাঠিসোটা সহ পাইপ, রামদা ধারালো অস্ত্রশস্ত্র সহ রামারবাগ শাহী মসজিদ এলাকায় আধা ঘন্টা তান্ডব চালায়।  মারধর শেষে যাওয়ার সময় মোস্তফা গ্রুপের সদস্যরা গিয়াসউদ্দিন গ্রুপের লোকজনদের উপর।  এসময় এক নারী সহ অর্ধশতাধিক জন আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ২ জনকে ঢাকা মেডিকেল ও ২ জনকে পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। শহরের খানপুরে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা আহতরা হলেন জুয়েল, দেলোয়ার, তমিজ, সজীব, আরিফ, আহাদ, সুমন, সুফিয়া, আলামিন, হারুন, রশিদ, আশরাফ, মোস্তফা, রাজিব, আজিম, বাবু, রাজ্জাকসহ  অনেকে। খানপুর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. অমির রায় বলেন, ফতুল্ল¬া থেকে আসা আহতদের অধিকাংশই ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়েছেন। মাথায় ও পায়ে গুরুতর জখম হওয়া রোগীই বেশী। আমরা ৪ জনকে ঢাকায় রেফার্ড করেছি বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, গিয়াসউদ্দিনের নেতৃত্বে বিলাশ সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকায বেপরোয়া হয়ে উছেঠে। পদ-পদবীতে না থাকলেও আওয়ামীলীগের নাম ভাঙ্গিনে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে গিয়াসউদ্দিন। এঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান রাজীব। বর্তমানে পুরো রামারবাগ এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ হয়ছে। এতে কয়েকজন আহত আছে। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *