মঙ্গলবার | ২০ নভেম্বর, ২০১৮ | ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ | ১১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ | রাত ১১:৫৬

একক সংবাদ

ভিন্ন কৌশলে নির্বাচনী মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে না’গঞ্জ বিএনপি!

Habib Badal | নভেম্বর ০৯, ২০১৮

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
পুলিশের দায়ের করার একের পর এক মামলায় নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতারা নির্বাচনী মাঠে পিছিয়ে পড়ছে। নির্বাচন ঘনিয়ে আসলেও দলের সক্রিয় নেতারাই আত্মপোগনে চলে গেছে। আবার কেউ কেউ জেল হাজতে রয়েছেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা হয়ে গেলেও নির্বাচনী মাঠে নিজেদের অবস্থান শক্ত করতে ব্যর্থ হচ্ছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি। যদিও গত মঙ্গলবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যাণে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ডাকা মহা সমাবেশে তাক্ লাগিয়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি। সমাবেশে নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করেছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি। নারায়নগঞ্জ টু ঢাকায় বাস ও ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকলেও ঢাকার রাজপথে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীদের উপস্থিতি দেখে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সকল নেতা ঐক্যব্ধ হয়ে কর্মীদের নিয়ে রাজপতে নামলে ঢাকার মত নারায়ণগঞ্জেও জনসমুদ্র সৃষ্টি করা সম্ভব। কিন্তু দলের এই দু:সময়েও নারায়নগঞ্জ বিএনপির নেতায় নেতায় কোন্দলে দূর্বল হয়ে পড়েছে। বর্তমানে পুলিশের করা একের পর এক মামলায় নেতারা আত্মগোপনে চলে যাওয়ায় নারায়ণগঞ্জের রাজপথে বিএনপির অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। এদিকে, নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যে নারায়ণগঞ্জকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা চালাচ্ছে একটি মহল। ইতিমধ্যে ২০১৫ সালের মত পুনরায় নারায়ণগঞ্জে নাশকতার চেষ্টা চলছে। গত সোমবার কাশিপুরের ভোলাইলে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দলের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় দুটি যাত্রীবাহী বাসে ভাংচুর চালায়। সন্ধ্যায় উত্তর কাশিপুর এলাকার সড়কে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ রুটে চলাচলকারী দীঘির পাড় এক্সপ্রেস নামের দুটি যাত্রীবাহী বাস ভাংচুর করা হয়। এর আগে একই স্থানে বিগত ২০১৫ সালে একাধিক বার গাড়িতে আগুন দিয়েছিল নাশকতাকারীরা। গত বুধবার সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে মধ্যরাতে ইপিজেডের একটি শ্রমিক বহনকারী পার্কিং করা বাসে (ঢাকা মেট্টো-ব-১১-২৪৭৯) আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শিমরাইল টু নারায়ণগঞ্জ আউলাবন সংযোগ সড়কের পাশে সিএনজি ষ্টেশনের উত্তর প¦ার্শে সড়কের উপর এ ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে আদমজী ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট এসে আধাঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এর আগে গত ৩০ অক্টোবর শহরের বিভিন্ন স্থানে আওয়ামীলীগে বিরোধী আপত্তিক মন্তব্যের পোষ্টার লাগিয়েছে জামাত-শিবির। যার মাধ্যমে নিজেদের শক্তির জানান দিয়েছে জামাত-শিবির। সূত্র বলছে, রাজপথে নামতে না পেরে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি এখন কৌশল অবলম্বন করবে এটাই স্বাভাবিক। তবে এতে করে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। কেননা তফসিল ঘোষনার আগেই গাড়িতে আগুন ও ভাংচূরের ঘটনায় শহরবাসীর মধ্যে আতংশ সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি জামাত-শিবিরও নির্বাচনের আগে শক্তির জানান দিতে গোপনে গোপনে শক্তি সঞ্চয় করছে। তবে জামাত নেতারা প্রকাশ্যে রাজপথে নামতে না পারায় বিএনপির সাথে সমন্বয় করেই বিভিন্ন পরিকল্পনা করছেন। আর বিএনপিও রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে জামাতে আশ্রয় দিচ্ছে। কেননা বিগত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর নারায়ণগঞ্জে বিএনপির চেয়ে ব্যাপক নাশকতা চালিয়েছিল জামাত-শিবিরের নেতারা। তাই সরকার দাবী না মানলে জামাতকে সঙ্গে নিয়েই নারায়ণগঞ্জের রাজপথে নামবে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি-এমনটা মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © দৈনিক ডান্ডিবার্তা, ওয়েব ডিজাইন: মো: নাসিরউদ্দিন-০১৭১২৫৭৪৯৯০

top