না’গঞ্জ বিএনপিতে দল বদলে হিড়িক

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে এবার বিএনপিতে দেখা যাচ্ছে দল বদলের হিড়িক। বিএনপির তৃণমূলের নেতাকর্মী, কাউন্সিলরা হিড়িক দিয়ে দল বদলাচ্ছেন। ফলে ক্রমশ দুর্বল হয়ে পরছে বিএনপি। দলীয় কর্মীদের এমন কর্মকান্ডে দ্বন্দ্বে ভুগছে দলটির তৃণমূলের অন্যান্য নেতাকর্মীরা। টানা দুই মেয়াদে ক্ষমতার বাইরে থাকা দলটির উপর এবার আর আস্থা রাখতে পারছেন না দলের নেতারা। ফলে তৃণমূলের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীদের নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দলের নেতারা নেতৃত্ব দিয়ে দল বদলাচ্ছেন। আর এর মূল কারণ বিএনপি কর্মীদের পছন্দের প্রার্থীকে মনোনয়ন না দেওয়ার বিষয়টিকেও দেখছেন তারা বলে মনে করছেন অনেকে। সূত্র বলছে, আগে থেকেই বিএনপির নেতাকর্মীদের লাঙ্গলের প্রতি একটা টান ছিল। যে কারণে সদর-বন্দর আসনের সাংসদ সেলিম ওসমানের অনুষ্ঠানগুলোতে একাধিক বিএনপি নেতাকর্মীদের দেখা যেত। অনেকে আবার লাঙ্গলের পক্ষে ভোট চেয়েও বেড়াচ্ছেন। এই পথেই গত ১৬ ডিসেম্বর রাতে বন্দরে সুরুজ টাওয়ারে আতাউর রহমান মুকুলের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর সহ অন্তত এক হাজার লোকজন লাঙ্গলের পক্ষে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তখন মুকুল বলেন, জালাল হাজীর আমলের বিএনপির নেতৃত্বে ছিলেন আবুল কালাম। কিন্তু এখন আবুল কালামকে বাদ দিয়ে এমন একজনের হাতে ধানের শীষ তুলে দেওয়া হয়েছে যাতে করে প্রতীয়মান যে বিএনপিকে ধ্বংস করা হচ্ছে। এর আগে গত ১৫ ডিসেম্বর বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২১নং ওয়ার্ডে বন্দর শাহী মসজিদ এলাকায় সেলিম ওসমানের নির্বাচনী সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ও কাউন্সিলর হান্নান সরকার। ওই সময় হান্নান সরকার লাঙ্গল প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেন। এর আগে তিনি সেলিম ওসমানের নির্বাচনি প্রচারণার সকল খরচ বহনের ঘোষণাও দিয়েছিলেন। সবশেষ গত ১৭ ডিসেম্বর ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানের সহধর্মিনী সালমা ওসমান লিপির সাথে বিএনপির সাবেক এমপি গিয়াসউদ্দিনের ছেলে কাউন্সিলর সাদরিলও নৌকার পক্ষে মিছিল করে ভোট চেয়েছেন। দলের নেতাকর্মীদের এমন আচরণ দলের ভীতকে আরো নড়বড়ে করছে। ফলে নির্বাচনি মাঠে আবারো একা হয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা বলে মনে করছেন অনেকে। দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে ঐক্য দেখা না দিলে এর বড় ধরনের প্রভাব পরতে পারে আগামি ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এনমটাই বলছেন জেলার রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *