ঐক্যবদ্ধ ভাবে না’গঞ্জের উন্নয়নে কাজ করতে চাই : সেলিম ওসমান

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
সদর-বন্দর আসনের এমপি সেলিম ওসমান বলেছেন, আমাদের মাঝে কোন ভেদাভেদ নেই। আমরা সকলেই একসাথে নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। আমি গত কয়েকদিন আগে শীতলক্ষ্যা এলাকায় এসেছিলাম সাবেক কাউন্সিলরের কাছে এববার আসলাম বর্তমান কাউন্সিলরের কাছে। আসলে রাজনীতিতে নীতি বলে একটা কথা কথা আছে। আর আমার নীতিই হচ্ছে সবাইকে নিয়ে কাজ করা। রাজনীতিতে যদি হিংসা ঢুকে যায় তবে সেটি আর রাজনীতি থাকে না। তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ রাখবো আপনারা ভুল বুঝবেন না। কোনো রকম দন্দ্বের মধ্যে যাবেন না। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ১৮নং ওয়ার্ডের শীতলক্ষ্যা এলাকায় ১৮নং ওয়ার্ডবাসীর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস ১৬ ডিসেম্বর উপলক্ষ্যে এলাকাবাসীর উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ১৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি শরফুদ্দিন আহমেদ রবির সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী, জেলা জাসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম.এ সাত্তার, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, সিনিয়র সহ সভাপতি চন্দন শীল, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, অ্যাডভোকেট মাহমুদা মালা, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ড. শিরীন বেগম, ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কবির হোসেন, ১৮নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ভুলু, বাংলাদেশ পাট আড়ৎদার সমিতির সভাপতি সালাউদ্দিন লাভলু, মহানগর যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী ইসরাত জাহান খান স্মৃতি সহ স্থানীয় অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। গত দিনে কি হয়েছে তার উপর ভিত্তি করে আপনারা সিদ্ধান্ত নেবেন সামনের দিনে কি হবে। আজ নারায়ণগঞ্জ কলেজের ১০ তলা ফাউন্ডেশন দিয়ে ৭ তলা সম্পন্ন করা হয়েছে। কলেজের শিক্ষার্থীরা দাবি তুলেছে সেই ভবনের নাম যেনো শেখ কামালের নামে নাম করন করা হয়। নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের কোনো ভবন ছিলো না। আজ সেখানে ব্যবসায়ীরা বসতে পারেন। যে কোনো ব্যবসায়ী সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। সেই বিল্ডিংয়েই ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে বিকেএমইএ’র মাধ্যমে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জের ছেলে মেয়েরা সেখানে ট্রেনিং নেয় না। নিজেদের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে না। এসময় তিনি বিকেএমইএ প্রতিষ্ঠার ইতিহাস বলতে গিয়ে উল্লেখ করেন, ১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বললেন, সেলিম একটা কাজ করে দিতে হবে। নারায়ণগঞ্জে চিত্তরঞ্জন, আদমজী, পাটের ব্যবসা সব হারিয়ে গেছে। কিন্তু তোমাদের হোসিয়ারী আছে। তুমি এই হোসিয়ারীকে নীট খাতে রূপান্তরিত করো। সেই দিন আমরা বিকেএমইএ প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। আজ আমরা সেই নীট রপ্তানিতে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে আছি। তাই নারায়ণগঞ্জের তরুণ ছেলে মেয়েদের বলি কোনো অবস্থায় বেকার থাকা যাবে না। যেকোনো কাজের মাধ্যমে নিজেকে সাবলম্বী করতে হবে, উপার্যন করতে হবে। এছাড়াও তিনি অন্যান্য সভা গুলোর মত স্থানীয়দের মঞ্চে ডেকে তাদের কাছ থেকে অতীতের ভুল ভ্রুটি এবং প্রয়োজনীয় উন্নয়ন সম্পর্কে জানতে চান। এ সময় বেশ কয়েকজন মঞ্চে উঠে তাদের এলাকার বিদ্যমান সমস্যা গুলো তুলে ধরেন।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *