Home » শেষের পাতা » বন্দরে ২৭টি পূজামন্ডপে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

আইভীর গডফাদার মন্তব্য টক অব দ্যা টাউন

০৯ জানুয়ারি, ২০২২ | ৮:১০ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 120 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনী প্রচারনাকালে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভী গতকাল বন্দরের দেওলী চৌড়াপাড়া এলাকায় সাংবাদিকদের বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার বিএনপি কিংবা স্বতন্ত্র নয়। তিনি গডফাদার শামীম ওসমান ও সেলিম ওসমানের প্রার্থী। মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভীর এই বক্তব্যে নগরজুড়ে চলছে আলোচনা সমালোচনা। আইভীর এ বক্তব্য গতকাল শনিবার ছিল টক অব দ্যা টাউন। আইভীর এ বক্তব্য সম্পর্কে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের প্রতিক্রীয়া কি এ সম্পর্কে জানতে চাইলে অনেকেই মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে যারা মন্তব্য করেছেন তারা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একটি শান্তিপূর্ন পরিবেশ বজায় ছিল। কিন্তু আইভীর এ বক্তব্যের পর পরিস্থিতি ঘোলাটে হতে পারে। একটি কলেজের শিক্ষক জানান, শামীম ওসমান একজন সংসদ সদস্য। এ কারনে প্রকাশ্যে তিনি নির্বাচনে নামতে পারছেন না এমন মন্তব্য একাধিকবার মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভী নিজেই একাধিকবার বলেছেন। হঠাৎ করে কেন নিজ দলের সংসদ সদস্যকে আবার গডফাদার বললেন তা বোধগম্য নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।  আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভীর মন্তব্য সম্পর্কে একেএম শামীম ওসমান এমপির মন্তব্য চাওয়া হলে তিনি কোন মন্তব্য না করে বলেন, আগামী সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন করে বিস্তারিত বলবেন। শামীম ওসমানের একাধিক অনুসারি আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, যুবমহিলালীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের পদধারী নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। দলের মধ্যে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকতেই পারে। কিন্তু দলীয় সভানেত্রী যাকে মনোনময়ন দিয়েছেন আমরা তার পক্ষেই নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে চলেছি। তাছাড়া শামীম ওসমান তার রাজনৈতিক জীবনে শেখ হাসিনার একনিষ্ট কর্মী হিসাবে আমাদের নৌকার পক্ষে কাজ করতে বলেছেন। আমরা সেই ভাবে নৌকার পক্ষে ভোট চাইছি। বিএনপির এক প্রভাবশালী নেতা বলেন, ২০১১ সালে আমাদের বিএনপির ভোটে আইভী মেয়র নির্বাচিত হয়েছিল। তখনতো তিনি শামীম ওসমানের বিরুদ্ধে নির্বাচনী লড়াইয়ে নেমেছিলেন। এখন আমাদের প্রার্থীকে শামীম ওসমান আর সেলিম ওসমানের প্রার্থী বলে যে অপপ্রচার চালাচ্ছে তার জনগণ বুঝে গেছে। তৈমূর আলম খন্দকার বিএনপির পাশাপাশি বিভিন্ন দল ও শ্রেনী পেশার মানুষের প্রার্থী। তৈমূর আলম খন্দকার নিজেই বার বার দাবি করছেন আমি কারো পায়ে ভর করে নির্বাচনে দাঁড়াইনি। জনতার চাপে আমি প্রার্থী হয়েছি। সাধারণ একজন ব্যবসায়ী বলেন, আমরা নির্বাচন শান্তিপূর্ন ভাবে হোক তাই চাই। কোন প্রকার হানাহানি ছাড়া আমাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেব। একজন রিকশা চালক আলাল বলেন, খেটে খাওয়া মানুষ আমরা। যাকে সব সময় পাব তাকেই ভোট দেব। আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভীর একাধিক অনুসারি বলেন, মেয়র প্রার্থী আইভী আজ সাধারণ মানুষের মনের কথা স্পষ্ট করেছেন। এতে তার ভোট বাড়বে। সব মিলিয়ে আইভীর গডফাদার মন্তব্যে শহর আস্তে আস্তে সরগম হচ্ছে। ২০১১ সালের নির্বাচনের পর একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশোতে এই মন্তব্য নিয়ে শামীম ওসমান ও আইভীর এই ধরনের মন্তব্য নিয়ে তুমুল বির্তকের পর নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগে উত্তর মেরু ও দক্ষিণ মেরু প্রকাশ্যে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়ে।

 

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *