Home » প্রথম পাতা » ওসমান পরিবারের সাথে কোন দ্বন্দ্ব নেই: আইভী

আইসিটি আইনের মামলায় সাংবাদিক লিংকন কারাগারে

২১ নভেম্বর, ২০২১ | ৩:০৭ অপরাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 41 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর ভাই আলী রেজা রিপনের দায়ের করা তথ্য প্রযুক্তি আইনের (আইসিটি অ্যাক্টে) মামলায় নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক সিফাত আল রহমান লিংকনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। গতকাল শনিবার বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহম্মেদ হুমায়ূণ কবিরের আদালতে শুনানী শেষে আদালত কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। ২০১৭ সালের ১৫ এপ্রিল আলী রেজা রিপন সদর মডেল থানায় আইসিটি আইনের ৫৭ ধারায় ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করেন। এর মধ্যে দৈনিক ইত্তেফাকের স্টাফ রিপোর্টার হাবিবুর রহমান বাদল ও দৈনিক যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি রাজু আহাম্মদ সংশ্লিষ্ট আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। গত শুক্রবার রাত ২টায় কলেজ রোডের বাসা থেকে সাংবাদিক লিংকনকে গ্রেফতার করে ফতুল্লা মডেল থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। কোর্ট ইন্সপেক্টর আসাদুজ্জামান জানান, আইসিটি মামলায় গ্রেপ্তারী পরোয়ানা ছিল। সেই পরোয়ানা বলে লিংকনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। গতকাল শনিবাব বিকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহম্মেদ হুমায়ূণ কবির আদালতে লিংকনকে কারাগারে প্রেরণ করেন। সে আনন্দ টিভির নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি। এছাড়া স্থানীয় দৈনিক সংবাদ চর্চার স্টাফ রিপোর্টারের পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জ বার্তা নামের একটি অনলাইনের সম্পাদক ও প্রকাশক। গ্রেফতারের আগে তিনি জানান, আমার বাড়িতে এখন তেমন কেউ নেই। আমার বাবা গুরুতর অসুস্থ। এর মধ্যে কিছুদিন আগে তাকে আইসিইউ থেকে বাড়িতে নিয়ে এসেছি। মধ্যরাতে পুলিশ আমাকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। গ্রেফতারের পর লিংকন জানান, এটি একটি মিথ্যা মামলা। সংবাদ প্রকাশের জের ধরে মেয়র আইভীর ভাই এ মামলা দায়ের করেন। এ ধরনের মামলা সাংবাদিক ও সংবাদকর্মীদের কাজের ক্ষেত্রে বাধা। পরে তাকে গ্রেফতারের পর শহরের আল্লামা ইকবাল রোডে পায়ে হাঁটিয়ে অনেক দূর নিয়ে গিয়ে গাড়িতে তোলে পুলিশ। এ ধরনের জেলার সংবাদকর্মীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, আদালত এখনো কোন সিদ্ধান্ত দেয়নি। পরে সিদ্ধান্ত দেয়া হবে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *