আজ: রবিবার | ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৪ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি | সকাল ৭:১৮

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

আব্দুর রাজ্জাক জাতীয় দলের নতুন নির্বাচক হচ্ছেন !

ডান্ডিবার্তা | ১৬ অক্টোবর, ২০২০ | ৮:২০

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট বাংলাদেশের ইতিহাসের সফলতম সীমিত ওভারের বোলার তিনি। কিন্তু ক্যারিয়ারের শেষ কয়েকটা বছর দারুণ বঞ্চনায় কেটেছে তার। নির্বাচকদের ডাকই পাননি জাতীয় দলে নিজের সার্ভিস দেওয়ার জন্য। সময়ের কী খেলা! সব ঠিক থাকলে সেই আব্দুর রাজ্জাক হতে যাচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের নতুন নির্বাচক। ওদিকে নারী দলের নির্বাচক হিসেবে সুপারিশ করা হয়েছে সাবেক পেসার মঞ্জুরুল ইসলামের নাম।

অনেকদিন ধরেই বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার। কিন্তু পুরোদমে ঘরোয়া ক্রিকেট চললে দুজনের পক্ষে সব ম্যাচে নজর রাখা সম্ভব হয় না। এই কারণে অনেক দিন ধরেই তারা তৃতীয় একজন নির্বাচক চাচ্ছিলেন। সে জন্য করোনার আগেই একবার রাজ্জাকের নাম এসেছিল আলোচনায়। সে দফা অগ্রগতি না হলেও এবার রাজ্জাকের তৃতীয় নির্বাচক হওয়া একরকম নিশ্চিত। গতকাল এ বিষয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছে ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি। সেই আলোচনায় উঠে এসেছে মূলত দুটি নাম—আব্দুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফীস। এর মধ্যে রাজ্জাককে প্রথমে বিবেচনা করা হবে। তিনি ‘না’ বললে নাফীসের দিকে যাবে আলোচনা।

সভার পর ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেছেন, ‘আমরা বিবেচনা করছি দুজনের কথা। রাজ (রাজ্জাক) ও শাহরিয়ার নাফীস বিবেচনায় আছে। এর মধ্যে রাজের সঙ্গে একটু কথা হয়েছে। চূড়ান্ত আলাপ হয়নি। ও যদি সবকিছু মেনে রাজি হয়, তাহলে হয়তো সে দায়িত্বটা পাবে।’ রাজ্জাক বললেন, তিনি এমন একটা কানাঘুষা শুনেছেন। কিন্তু সিরিয়াস কোনো আলাপ হয়নি। এদিকে আকরাম বলেছেন, নির্বাচক হতে চাইলে খেলা ছেড়ে দিতে হবে। রাজ্জাক খেলা ছাড়বেন কি না, এ ব্যাপারেও মন্তব্য করতে চাইলেন না, ‘আমি আসলে এখনই মন্তব্য করতে চাচ্ছি না। আকরাম ভাইদের সঙ্গে চূড়ান্ত কোনো কথা হলে আমি সিদ্ধান্ত নিতে পারব।’

এদিকে বিসিবির উইমেন্স উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল ইসলাম চৌধুরী নাদেল বলেছেন, তারা নারী দলের নির্বাচক হিসেবে মঞ্জুর নাম সুপারিশ করেছেন। এখন বিসিবির অনুমোদনের অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *