Home » শেষের পাতা » হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে সড়ক-মহাসড়কে চলছে চাঁদাবাজী

আমার কাউন্সিলররাও আপস করে চলে: আইভী

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১০:২৯ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 51 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট নগরীজুড়ে চলমান লোডশেডিংয়ের মধ্যে এবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে লোডশেডিংয়ের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার নগরীর আলী আহমেদ চুনকা নগর পাঠাগারে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়। এ সময় বাজেট ঘোষণার মূল অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগে মেয়র বক্তব্য দেওয়া শুরু করলে বিদ্যুৎ চলে যায়। এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। মেয়র বলেন, আমার কোনো অনুষ্ঠান থাকলেই বিদ্যুৎ চলে যায়। এটা বারবার কেন আমার অনুষ্ঠানেই হয় আমি জানি না। এদিকে গত কয়েকদিন যাবৎ নারায়ণগঞ্জে লাগামহীন লোডশেডিংয়ে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে। সিটি করপোরেশনের বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানেও একই চিত্র দেখা গেল। এ সময় পুরো পাঠাগার অন্ধকার হয়ে পড়ে। প্রায় ১০ থেকে ১৫ মিনিট অন্ধকারে থাকে পাঠাগার। এ সময় বাজেট ঘোষণা থামিয়ে অপেক্ষা করেন মেয়রসহ অন্যরা। মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী আরো বলেন, জীবন বাজি রেখে উচ্ছেদে গিয়েছি। নারায়ণগঞ্জ থানা মামলা নেয়নি। চোখের সামনে আমার কর্মী ও সাংবাদিকরা আহত হয়েছে। দেড় বছর পর হাইকোর্টের অর্ডার নিয়ে মামলা করেছি। তাতে নাকি মহাভারত অশুদ্ধ হয়ে গেছে। নির্বাচনের সময় শর্ত ছিল মামলা উঠিয়ে নেওয়ার। কিন্তু আমি নেইনি, করবো না। আপনারা খেয়াল করবেন নাসিকে কী পরিমাণ হকার বসে। মীর জুমলা রোড আর নেই। এত কিছু করে যে রোড আমরা উদ্ধার করেছিলাম। আপনারা আমাকে এক রকম নাস্তানাবুদ করেছিলেন। আপনাদের সঙ্গে নিয়ে সে রোড উদ্ধার করেছিলাম। আমিতো সে রোড উদ্ধার করতে পারিনি। নাসিক মীর জুমলা রোড টেন্ডার দিত না। পরে যখন সিটি করপোরেশন হলো। সাময়িকভাবে যখন প্রশাসক ছিল তখন তারা টেন্ডার দিয়ে দিল। এখন সেখানে বাজার হয়ে গেছে। শায়েস্তা খান রোড তো পুরো কাঁচাবাজার। এর পেছনে কারা আপনারাও জানেন। প্রশাসনের সহায়তা ছাড়া সেখানে কেউ বসতে পারে না। নগর পরিষ্কারের দায়িত্বে সিটি করপোরেশন পুলিশ এসপি সাহেবের ম্যাজিস্ট্রেট ডিসি সাহেবের। আপনারা হাত পা বেঁধে ভোট দিয়ে আমাকে বসিয়ে দিয়েছেন। তিনি একা হয়ে গেছেন দাবি করে বলেন, প্রশাসনের মামলায় রিপোর্ট দিয়েছে। সেখানে বলা হয় এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। দিনে দুপুরে প্রকাশ্যে মেয়রের ওপর পিস্তল উচিয়ে আক্রমণ। তারপরেও বলে কিছু হয়নি। আপনারা সবাই চুপ। কারও সত্য বলার জো নেই। আমি একা হয়ে গেছি। আমার কাউন্সিলররাও আপস করে চলে। নয়তো মামলার আসামি হয়ে যাবে। এ সময় নাসিকের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ২০২২-২০১৩ অর্থ বছরের রাজস্ব ও উন্নয়নসহ মোট ৫৮৮ কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার ৬৩৮ টাকার বাজেট ঘোষণা করেছেন। প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব ও উন্নয়ন খাতে মোট ৫৮৮ কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার ৬৩৮ টাকা আয় এবং মোট ৫৫৯ কোটি ৪৫ লাখ ২৬ হাজার ৪৭৯ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে। বছর শেষে ঘোষিত বাজেটে ২৯ কোটি ২৩ লাখ ৮৪ হাজার ১৫৯ টাকা উদ্বৃত্ত থাকবে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *