Home » প্রথম পাতা » পদ্মা সেতু জাতির আরেক বিজয়

আ’লীগে হাইব্রিডের ছড়াছড়ি!

২৩ জুন, ২০২২ | ৭:২৪ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 40 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে পেশীশক্তি, ক্ষমতার অপব্যবহার, প্রতিহিংসায় দলের মধ্যে নানা জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে নানা অজুহাতে সাজানো মামলা, ষড়যন্ত্রসহ একে অপরের বিরুদ্ধে কটুক্তিপূর্ন বক্তব্য দিয়ে দিন দিন জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। কতিপয় আওয়ামীলীগ নেতারা দলের ভাবমূতি ফুটিয়ে তোলার পরিবর্তে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত সময় পার করেছে। আজ আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। এ উপলক্ষে দলের কিছু নেতা নিজ নিজ এলাকায় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করবেন বলে অনেকে জানান। তবে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের বিরোধের ফলে তারা এক হতে পারছেনা। আর দলের মধ্যে অনেক হাইব্রিড ঢুকে গেছে তা নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা এক বাক্যে ষ¦ীকার করছেন। হাইব্রিডদের কারণে দলের মধ্যে অরাজকতা সৃষ্টিসহ দলের ভাবমূর্তি প্রতিমূহুর্তে ক্ষুন্ন করে চলেছে। আর এ কারণে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে নেতা দুরে সরে যাচ্ছে। আওয়ামীলীগ দেশের উন্নয়নে যে স্বাক্ষর রেখেছে তা বাংলাদেশের ইতিহাসে বিরল। কিন্তু নারায়ণগঞ্জের নেতারা দলের উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরতে ব্যর্থ হচ্ছে। বর্তমানে দেশে দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতি, বন্যায় দিশেহারা সিলেটের মানুষ। নারায়ণগঞ্জে বিএনপিসহ বাম দলগুলি বন্যার্থদের জন্য সাহায্য তোলার রাস্তায় নেমে পড়েছে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জের আওয়ামীলীগের নেতাদের মধ্য থেকে কাউকে এ পর্যন্ত এগিয়ে আসার সংবাদ পাওয়া যায়নি। তাদের কেহ কেহ আছে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে আর প্রতিপক্ষকে নাজেহাল করতে গিয়ে সাধারণ মানুষকে সেবা পাওয়া থেকে বঞ্চিত রাখা। নাসিক ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল কাউছার আশা একটি সাজানো মামলায় জেলে রয়েছে। এ কারণে ২৩নং ওয়ার্ডবাসী সেবা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ৩৪নং ওয়ার্ডবাসীর কাছে পরিস্কার হয়ে গেছে কাউন্সিলর আশাকে জেলে পাঠাতে সকল কলকাঠি নেড়েছেন সাবেক কাউন্সিলর সেচ্ছসেবকলীগ নেতা সাইফুদ্দিন আহাম্মেদ দুলাল প্রধান। তার প্রতিহিংসার জন্য আজ ২৩নং ওয়ার্ডবাসী সেবা বঞ্চিত। ২৩নং ওয়ার্ডে একাধিক ব্যক্তি জানান, কাউন্সিলর আশা বিএনপি নেতা হওয়ায় সে প্রতিহিংসায় দুলাল ষড়যন্ত্র করে আশাকে মামলায় জড়িয়ে জনগলের সাথে বেঈমানী করেছে। তাকে জনগণ বুঝে গেছে সে স্বার্থের জন্য সবকিছু করতে পারে। সে ক্ষমতার অপব্যহার করে জনগণকে সেবা পাওয়া বঞ্চিত করেছে। এদিকে জেলার শীর্ষ নেতারা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেছেন। তারা অকপটে স্বীকার করেছে হাইব্রিডদের কারণে দলের অনেক ক্ষতি হয়েছে এবং ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. সামসুর ইসলাম ভূঁইয়া বলেছেন, যেহেতু দল বড় হয়েছে তাই অনেক হাইব্রিড নেতারাও আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হয়েছে। বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলার চেয়ারম্যান এম. এ রশিদ বলেন, আমাদের সংগঠন আওয়ামী লীগের মধ্যে হাইব্রিড নেতা আছে। তারা আমাদের দলে অনুপ্রবেশ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, দলের সেক্রেটারী ওবায়দুল কাদেরসহ বিভিন্ন নেতা এটা উল্লেখ করেছেন। আমার ৫২ বছর রাজনীতিতে আমি প্রায় সময় দেখেছি যদি কোন দল ক্ষমতায় আছে, বিশেষ করে আওয়্মাী লীগের মতো একটা দল। সেখানে প্রচুর হাইব্রিড নেতাদের আগমন ঘটতে দেখেছি। তিনি বলেন, আমার নেতাকর্মীদের উদ্যেশে বলি আপনারা সজাগ থাকুন। আমরা যদি সবাই একটু সচেতন থাকি, সচেষ্ট থাকি। তাহলে আমাদের সেই ক্ষতিটা আর করতে পারবে না। তবে দলীয় কোন্দলে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ এগিয়ে যেতে পারছে না। দিন দিন শীর্ষ নেতারা নেতাকর্মীদের কাছ থেকে দুরে সরে যাচ্ছে। এ জন্য আগামী দিনে আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতাদের এর দায় বহন করতে হবে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *