আজ: বৃহস্পতিবার | ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৭ই সফর, ১৪৪২ হিজরি | বিকাল ৩:০০

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

আ’লীগ নেতাদের প্রতি নাখোশ কর্মীরা

ডান্ডিবার্তা | ১০ আগস্ট, ২০২০ | ১১:০৪

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
টানা ১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায়। এরই মধ্যে নারায়ণগঞ্জে ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতাই আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে স্থানীয় আওয়ামীলীগের কতিপয় নেতারা নিজেদের সাধারণ মানুষের নেতা দাবী করলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে দেখা যাচ্ছে না তাদের। এতে করে স্থানীয় নেতাদের প্রতি সাধারণ মানুষের ক্ষোভ বাড়ছে। কেননা, রাজনীতি সাধারণ মানুষের কল্যাণে হলেও স্থানীয় কতিপয় নেতারা নিজের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছেন। অধিকাংশরাই তাতে সফল হয়ে নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে সফল হয়েছেন। কিন্তু এরপরও সাধারণ মানুষের পাশে তাদের এখনো দেখা যায়নি। জানাগেছে, বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপ নেয়া করোনা ভাইরাসের প্রকোপে বাংলাদেশেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পরছে সর্বত্র। স্কুল কলেজ বন্ধ হয়ে গেছে অনেক আগেই, ভাইরাসের কারণে দেশের সকল মার্কেট, সুপার মার্কেট ও দোকানপাট বন্ধ ঘোষনা করেছে দোকান মালিক সমিতি, বন্ধ হয়ে গেছে গন পরিবহন। শুধুমাত্র নিত্যপন্যের দোকান ও ঔষধের দোকান ছাড়া বাকী সব বন্ধ ছিল। সারাদেশের রাজনীতিবীদরা চেষ্টা করছেন করোনা প্রতিরোধে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জে এর সম্পূর্ণ উল্টো চিত্র। নারায়ণগঞ্জে ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য আর বিবৃতিতে সীমাবদ্ধ রাখছেন তাদের কার্যক্রম। জনগনের সেবায় তাদের তৎপরতা ছিল অনেক কম। করোনা বাংলাদেশে ছড়িয়ে পরার পর থেকে নারায়ণগঞ্জে দেখা মিলেনি নারায়ণগঞ্জের মেয়র কিংবা জেলা আওয়ামীলীগ বা মহানগর আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতাদের। যে সাধারণ মানুষের দোহাই দিয়ে তারা এতোদিন রাজনীতি করে এসেছেন সেই জনগনের এই চরম দু:সময়ে তাদের পাশ থেকে হারিয়ে গেছেন নেতারা। তবে রূপগঞ্জ আসনের সাংসদ এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান, সদর-বন্দর আসনের সাংসদ সেলিম ওসমান জনগনের পাশে দাঁড়ালেও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল হাই, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো: বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ানসহ ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের কাউকেই দেখা যায়নি খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়াতে। তবে সাংসদ শামীম ওসমানের পরিবর্তে তার স্ত্রী লিপি ওসমান ও পুত্র অয়ন ওসমান সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। অথচ নারায়ণগঞ্জে ক্ষমতাসীন দলের অধিকাংশ পদ পদবীধারী নেতারা এখানো রয়েছেন নিশ্চুপ। যার ফলে তাদের প্রতি নারায়ণগঞ্জবাসী ও কর্মীরা তাদের প্রতি নাখোশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *