News

ঈদে না’গঞ্জের বিনোদন কে›ন্দ্রলোতে উপচে পড়া ভীড়

ডান্ডিবার্তা | 08 June, 2019 | 9:52 am

হাবিবুর রহমান বাদল//
ঈদ মানেই খুশি, ঈদ মানেই আনন্দ আর ঈদ মানেই ঘুরাঘুরি। ঈদের আমেজ তো এমনিতেই সাতদিন পর্যন্ত থাকে। সেই আমেজের জেরে ঈদের দ্বিতীয় দিনে শহরের সকল বিনোদন কে›ন্দ্রলো দুপুরের পর থেকেই দেখা যায় কানার কানার পরিপুর্ণ। দুপুরের পর থেকেই শহরের আশেপাশের সকলেই পরিবার পরিজন নিয়ে বের হয়ে যান ঘুরতে। এদের বেশীরভাগই শিশুদের নিয়ে হানা দেন শহরের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে। গত বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকে শহরের খানপুর বরফকল মাঠের পাশে চৌরঙ্গী পার্ক (ইকো পার্ক), লিংক রোডের পাশে নম পার্ক ও পঞ্চবটির অ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড পার্কে দেখা যায় প্রচুর মানুষের ভীড়। পার্কগুলোর বাইরে থেকেই মানুষের লাইন লেগে রয়েছে টিকেটের জন্য। বাড়তি মানুষের চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে দেখা যায় পার্কের নিরাপত্তাকর্মীদের। তবে এত চাপের মধ্যে শহরে পরিবার নিয়ে ঘুরতে বেড়িয়ে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছেন শহরবাসী। পার্কগুলোতে ঈদের দিন থেকে চলমান এই মানবশ্রোত ঈদের দ্বিতীয় দিন গতকাল রবিবার যেন আরো বেড়ে গিয়েছিল। বাচ্চা থেকে শুরু করে বয়স্করাও বাদ পড়েনি ঈদ পরবর্তী বিনোদন থেকে। পার্কগুলোর বিভিন্ন রাইডে চড়ে ঈদের অবসর সময়ে মন মাতানো বিনোদন নিতে ভুল করেনি কেউ। কেউ কেউ বাইরে থেকে অভিযোগ করছিল পার্কে টিকেটের এবং রাইডের জন্য বাড়তি চার্জ নেয়া হচ্ছে। কিন্তু সরেজমিনে দেখা যায় টিকেটের নির্ধারিত মুল্যের বেশী নেয়া হয়নি এক টাকাও। তবে মানুষের চাপ বেশী থাকার টিকেট ব্যবস্থাপনায় কিছুটা অব্যবস্থাপনা দেখা দেয়। কর্তৃপক্ষ বলছে মানুষের বাড়তি চাপের কারণেই এমনটা হচ্ছে। তবে এটা তারা সামলে নিচ্ছেন বলেও জানান। বরফকল চৌরঙ্গী পার্কে ঘুরতে আসা ডন চেম্বার ব্যাংকলনী এলাকার বাসিন্দা হিমেল জানান, আমি আমার বন্ধুদের নিয়ে দুপুরের পর এখানে ঘুরতে এসেছি। ভালো মজা করেছি, রাইডেও চড়েছি। তবে টিকেটের জন্য দীর্ঘ লাইনে দাড়াতে হয়েছে। সোনারগাঁ থেকে পার্কে পরিবার নিয়ে নম পার্কে ঘুরতে আসা শিকদার সাহেব জানান, আমার ছেলে মেয়েরা বায়না ধরেছে ঘুরতে যাবে তাই নিয়ে আসলাম। এখানে ভালো মজা করেছে ওরা। বিভিন্ন রাইডে উঠেছে, ঘুরাঘুরি করছে। মুলত বাচ্চাদের আনন্দ দেখলেই আমাদের ঈদ হয়ে যায় তাই চেষ্টা করি ওদের আবদার সাধ্যমত পুরণ করতে। পার্কে কোন সমস্যা হয়নি বলে জানান তিনি। সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে ঘুরতে আসা নতুন দম্পতি শায়লা ও রফিক জানান, বিয়ের পরের প্রথম ঈদ এটি। কোন প্ল্যান ছিলনা এমনিতেই চলে এসেছি। ভালোই লাগছে, আগে তো শহরে ঘুরার যায়গা ছিলনা এখন পার্কটা পাওয়াতে অনেক ভালো লাগছে। এদিকে পঞ্চবটির অ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড পার্কেও দেখা যায় অনেক ভীড়। সেখানেই বাইরে থেকে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন পার্কে ঘুরতে আসা মানুষরা। পার্কে আসা পুলিশ লাইন এলাকার মাসুম জানান, স্ত্রী বাচ্চাদের নিয়ে ঘুরতে আসলাম। শহরেতো আর ঘুরার তেমন কোন যায়গা নেই তাই এসেছি। মানুষের ভীড় আছে একটু, তবুও ভালো লাগছে। পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরতে পারাটাই শান্তি। একই পার্কে আসা সোনালি জানান, বান্ধবীদের নিয়ে ঘুরতে এসেছি। ঈদের পরতো বাসা থেকে বের হতে দেয়না তাই সবাই বাসার অনেক কষ্টে বলে এসেছি। এখানে ভালোই লাগছে, সবাই মিলে ঘুরবো, খাবো। ঈদের দিন বোরিং লাগলেও দ্বিতীয় দিন গতকাল ঈদ ঈদ লাগছে বলে উৎসাহ প্রকাশ করে সোনালি ও তার বান্ধবীরা। এ ছাড়াও শহরের আশেপাশে থাকা ছোট ছোট বিনোদন কে›ন্দ্রলোতেও ব্যাপক ভীড় লক্ষ্য করা গেছে।

[social_share_button themes='theme1']

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *