আজ: বুধবার | ২০শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৭ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি | রাত ১২:৩৩

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

একাধিক পদ দখলের ফলে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হচ্ছে না!

২৩ নভেম্বর, ২০২০ | ৭:১৫ পূর্বাহ্ন | ডান্ডিবার্তা | 227 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের কমিটিতে বেশকয়েকজন নেতা একাধিক কমিটির নেতৃত্বে রয়েছে। একজনই ২/৩ টি কমিটির নেতৃত্বে রয়েছেন। অপরদিকে অনেক ত্যাগী ও মেধাবীরা পদ-বঞ্চিত হয়ে আছেন দীর্ঘ সময় ধরে। ফলে আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের মাত্র কয়েকজন নেতার নেতৃত্বে চলছে। এ কারনে পদ বঞ্চিত নেতাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে বলে মনে করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক মহল। সুত্রমতে, ২০০৫ সালে গঠিত হওয়া জেলা যুবলীগের সর্বশেষ কমিটিতে সভাপতির পদে আসীণ থাকা আব্দুল কাদির প্রায় ৩ বছর ধরে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হয়েছেন। তিনি এখনও জেলা যুবলীগ থেকে অব্যাহতি নেননি। তবে, তিনি অব্যাহতি চেয়েছেন কিন্তু কেন্দ্র থাকে অব্যাহতি দেয়নি বলে দাবী আব্দুল কাদিরের। এদিকে, ১৫ বছর আগে গঠন হওয়া জেলা যুবলীগের সেই একই কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদলও ৩ বছরের বেশী সময় ধরে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হয়ে আছেন। তিনি কোন কমিটি থেকেই নিজেকে সরিয়ে নেননি বলে জানা যায়। এছাড়া যুবলীগের একই কমিটির সহ-সভাপতি জাকিরুল আলম হেলাল প্রায় ৫ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করছেন মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসাবে, এ কমিটির যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজামও ৫ বছর ধরে আছেন মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক পদে। এছাড়াও ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলীও ৩ বছর ধরে জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও আওয়ামীলীগের একাধিক নেতাকর্মী একাধিক অঙ্গসংগঠনের পদ বহন করছে বলে জানা যায়। যার কারনে দীর্ঘ সময় দল ক্ষমতায় থাকলেও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলো যথেষ্ট শক্তিশালী হচ্ছে না বলে মনে করে অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা। তৃণমূলের নেতাকর্মীদের দাবী, আওয়ামীলীগের মতো বড় একটি দলে সবসময় অনেক নেতাকর্মীরা পদ-পদবীর প্রত্যাশায় থাকে। এমন বড় একটি দলে এ ধরনের নেতারা একেকটি অঙ্গসংগঠনকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে বলে মনে করেন তারা। নেতাকর্মীদের মতে, একজন নেতা যদি একাধিক কমিটির নেতৃত্ব দিতে ব্যস্ত হয়ে পরেন তাহলে নতুন নেতৃত্ব তৈরি হবে কিভাবে। একইসাথে নতুন নেতৃত্বের অভাবে আওয়ামীলীগের অঙ্গ-সংগঠনগুলোর কার্যক্রমেও কিছুটা ভাটা পড়ে বলে জানায় তারা। রাজনৈতিক বিশ্লেষক মহল মনে করে, নেতাদের একাধিক কমিটি থেকে সরে আসতে হবে এবং তরুনদের সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে হবে তাহলেই আওয়ামীলীগ ও এর সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা সক্রিয় এবং শক্তিশালী হবে।



Comment Heare

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Top