আজ: সোমবার | ১লা জুন, ২০২০ ইং | ১৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৯ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী | সকাল ৯:০২

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

এপ্রিলে জেলা যুবলীগের নয়া কমিটি

ডান্ডিবার্তা | ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ১১:২২

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
অত:পর দীর্ঘ ১৫ বছর পর নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের কমিটি হতে যাচ্ছে। আগামী এপ্রিল মাসে জেলা যুবলীগের কমিটি নতুন কমিটি দেয়া হবে বলে কেন্দ্রীয় একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। এরই মধ্যে কমিটি নিয়ে একটি তালিকাও তৈরী করা হয়েছে বলে জানাগেছে। তাই জেলা যুবলীগের পদ পেতে গোপনে গোপনে স্থানীয় অনেক নেতা কেন্দ্র লবিং করছেন। জানাগেছে, জেলা যুবলীগের কমিটির অধিকাংশ নেতাই জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন। যার ফলে অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছে জেলা যুবলীগ। কমিটি থাকলেও দীর্ঘদিন কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে সংগঠনটির। ২০০৫ সালে নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়। সম্মেলনে আবদুল কাদির সভাপতি ও অ্যাডভোকেট আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। বৈরি সময়ে ওই সম্মেলনে ছিল আওয়ামীলীগের দুই পক্ষের অবস্থান। এছাড়াও সম্মেলনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করা জাকিরুল আলম হেলালকে করা হয় সিনিয়র সহ-সভাপতি, আসিফ হোসেন মানুকে সহ-সভাপতি ও শাহ নিজামকে করা হয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এরপর দীর্ঘ প্রায় ১৫ বছর পেরিয়ে গেলেও এরপর আর নতুন কমিটি গঠন করা সম্ভব হয়নি জেলা যুবলীগের। আবদুল কাদির বর্তমানে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি পদে, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ বাদল জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে, জাকিরুল আলম হেলাল মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে, শাহ নিজাম মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের পদে রয়েছেন। এছাড়াও জেলা যুবলীগের অনেক নেতাই আওয়ামীলীগের পদে রয়েছেন। তাই জেলা যুকলীগের কমিটি থাকলেও রাজনীতিতে তৎপরতা নেই দীর্ঘদিন ধরেই। তবে সম্প্রতি জেলা যুবলীগের ব্যানারে সাবেক ছাত্রলীগের নেতাদের শোÑডাউন করতে দেখা গেছে। আর শো-ডাউনকারীরাই জেলা যুবলীগের নতুন কমিটিতে থাকছেন বলে জানাগেছে। জেলা যুবলীগের শীর্ষ পর্যায়ের সূত্রে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির নবায়নের জন্য কয়েক দফায় কেন্দ্রীয় যুবলীগের কাছে তালিকা জমা দেয়া হয়েছিল। রাজধানী ঢাকার অভিজাত হোটেলে কয়েক দফায় কেন্দ্রীয় যুবলীগের নেতাদের সাথে আলোচনাও হয়েছে। কিন্তু কোন কিছুতেই নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির অনুমোদন মিলেনি। কিন্তু কেন্দ্রীয় যুবলীগের কমিটিতে নেতৃত্ব পরিবর্তন আসায় নতুন করে জেলা যুবলীগের কমিটি আলোচনায় এসেছিল। তবে গত এক মাস ধরে এনিয়ে তেমন তৎপরতা দেখা যায়নি। কিন্তু গত কয়েক দিন ধরেই যুবলীগের সম্ভাব্য নেতারা বেশ তৎপর হয়ে উঠেছেন। স্থানীয় পর্যায়ের শীর্ষ নেতাদের সাথে যোগাযোগ শুরু করেছেন। অনেকেই আবার ছুটছেন কেন্দ্রে। আর নতুন কমিটিতে আলোচনায় রয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হক নিপু, সাফায়েত আলম সানী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সুজন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মো: মোহসীন মিয়াসহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক অনেক নেতাই। তবে এপ্রিল মাসেই জেলা যুবলীগের কমিটি হলে সেই কমিটিতে সাংসদ শামীম ওসমানের অনুসারিদেরই দাপট থাকবে বলে জানিয়েছেন একাধিক সূত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *