আজ: শুক্রবার | ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৯শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী | দুপুর ২:৫৫

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

করোনায় না’গঞ্জবাসীর পাশে ক্ষমতাসীনরা!

ডান্ডিবার্তা | ০১ জুন, ২০২০ | ১:৩৮

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
শিল্পাঞ্চল এলাকা হিসেবে ঢাকার পাশ্ববর্তী জেলা নারায়ণগঞ্জ। আলোচিত এ জেলাটি করোনা নামক এক মরনঘ্যাতি ভাইরাসের ছোবলে আক্রান্ত। দিনের পর দিন এর সংক্রমনের মাত্রা বৃদ্ধি পওয়ায় জেলা স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এ জেলাকে হটস্পট এলাকা হিসেবে ঘোষনা করেছেন। হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত হওয়া নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষ ভাল নেই। অনিদিষ্টকালের লক ডাউনের গ্যাড়াকলের কবলে পড়ে শিল্পাঞ্চলখ্যাত এ জেলার মানুষ ধাবিত হচ্ছে অনিশ্চিত ভবিষত্যের দিক। এদিকে দীর্ঘদীন ধরে কর্মহীন থাকার ফলে খাদ্য সংকটেও ভোগছে জেলার মধ্যবিত্ত ও নি¤œবিত্তের সাধারণ মানুষ। তবে নারায়ণগঞ্জবাসীর এমন দুঃসময়ে বটবৃক্ষের ন্যায় ছায়া হয়ে দাড়িয়েছে ক্ষমতাসীন দলের জনপ্রতিনিধি এবং নেতৃবৃন্দ। নারায়ণগঞ্জের মধ্যবিত্ত ও নি¤œবিত্ত মানুষের মাঝে স্থাণীয় সাংসদ থেকে শুরু করে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ নানা ভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। করোনা মহামারি যতদিন পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণে না আসছে ঠিক ঐ সময় পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষ না খেয়ে থাকবে না বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের ক্ষমতাসীনদলের জনপ্রতিনিধি এমনকি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংকট যতদিন থাকবে, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ততদিন নারায়ণগঞ্জবাসীর পাশে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সাংসদ একে এম শামীম ওসমান। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসোর কারণে শিল্পাঞ্চলখ্যাত জেলাটি মারাত্মক সংকটের মুখে। থমকে গেছে সব ধরণের স্বাভাবিক কার্যক্রম। কিন্তু মানব সভ্যতার অগ্রযাত্রা অবশ্যম্ভাবী। এ মানবিক বিপর্যয়ের মুখে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের সচেতনতামূলক ও সামাজিক কর্মসূচি সারাদেশে চলমান রয়েছে। শামীম ওসমান বলেন, বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্যবিধি আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা জেলাব্যাপী সাধারণ মানুষের মাঝে করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ ও খেটে খাওয়া অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। সদর-বন্দর আসনের সাংসদ সেলিম ওসমান বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বিভিন্ন দিক নির্দেশনা অনুয়ারী আমরা সাধারণ মানুষের পাশে দাড়িয়েছি। করোনা নামক এ সংক্রমন সহনীয় পর্যায়ে না আসা পর্যন্ত আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীকে নানাবিধ সহযোগিতা করে যাবো। বর্তমান শেখ হাছিনার সরকার জনগণের সুখ-দুঃখ আবেগকে ধারণ করেই রাজনীতি করে। বৈশ্বিক এ সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সার্বক্ষণিকভাবে সব পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে প্রযোজনীয় দিক নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছেন। গ্রহণ করছেন স্বল্পমেয়াদী ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা ও কর্মসূচি। যতদিন এ সংকট থাকবে শেখ হাসিনার সরকার ও ক্ষমতাসীনদলের নেতাকর্মীরা ততদিন জনগণের পাশে থাকবে এবং সরকারের গৃহীত কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আঃ হাই বলেন, অতীত ইতিহাস থেকে লক্ষ্য করা যায় এ জেলার মানুষ সব সময় ধৈর্য ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সব ধরণের দুর্যোগ মোকাবেলা করেছে। কোনও দুর্যোগের কাছেই তারা পরাজিত হয়নি। এ সময় নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতি তিনি আহ্বান জানিয়ে বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধভাবে সতর্ক থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। ধৈর্য ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল বলেন, নারায়ণগঞ্জে করোনা সংক্রমনের প্রার্দুভাবের পর থেকেই কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক সাধারন মানুষের পাশে রয়েছি। এমনকি দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক নারায়ণগঞ্জের মধ্যবিত্ত এবং নি¤œবিত্ত মানুষদের খাদ্য সামগ্রী সহযোগিতা করে এসেছি। উপজেলা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতৃবৃন্দকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সাধারণ মানুষের পাশে থাকে তাদের সুখ-দুখের ভাগীদার হওয়ার জন্য। নারায়ণগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এর ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে বলেও তিনি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *