আজ: রবিবার | ১২ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৮শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২১শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী | বিকাল ৫:৪৪

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

করোনা মোকাবেলায় মতবিরোধ নেই

ডান্ডিবার্তা | ০৪ জুন, ২০২০ | ১২:২৯

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
দলমত নির্বিশেষে নারায়ণগঞ্জে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ঐক্য হয়ে কাজ করছেন নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিকরা। যদিও হতেগুনা কয়েকজন দলীয় বিরোধ ভুলে গিয়ে এক্য হয়ে কাজ করছেন। যারমধ্যে উল্লেখ যোগ্য যে, করোনা বীর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আলোচিত কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ ও স্ত্রী আফরোজা খন্দকার লুনাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেছিলেন ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের এমপি শামীম ওসমান। ক্ষমাসীন দলের এমপি হলেও করোনা পরিস্থিতিতে বিএনপি নেতা খোরশেদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। আর শামীম ওসমানের এমক কাজের প্রসংশা করে শামীম ওসমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছিলেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল। তাদের মধ্যে দলীয় বিরোধ থাকলেও করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ঐক্য দেখা গেছে। একই ভাবে সদর ও বন্দরে বিভিন্ন দলের নেতাদের মাধ্যমে অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ পৌঁছে দিয়েছেন জাতীয় পার্টির দলীয় এমপি সেলিম ওসমান। সাংসদ সেলিম ওসমান জাতীয় পার্টির নেতা হলেও আওয়ামীলীগ ও বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের নেতাদের নিয়ে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কাজ করছেন। সূত্র বলছে, নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ করোনাভাইরাস নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাদের মধ্যে কাদা ছোড়াছুড়ি বন্ধ করে সবাইকে এক কাতারে নিয়ে এসেছে। এ ভাইরাসের সংক্রমণরোধে ক্ষমতাসীনদল আওয়ামী লীগ এবং বৃহত্তর রাজনৈতিক দল বিএনপি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কিছু দিন আগেও রাজনৈতিক নেতারা একে অপরকে ঘায়েল করতে তিরস্কার করে কথা বলেছেন। এখন জেলার অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোও সরকারের সঙ্গে সুর মিলিয়ে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছে। মোটকথা দলের আদর্শ ভিন্ন থাকলেও করোনা মোকাবিলার ক্ষেত্রে জেলার রাজনীতিবীদরা সবাই একই সুরে কথা বলছেন। ক্ষমতাসীন দলের জনপ্রতিনিধিরা স¤প্রতি দলমত নির্বিশেষে জেলার সর্বস্তরের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে বলেছেন। এদিকে, গত ২৪ ঘন্টায় নারায়ণগঞ্জে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কোন মৃত্যুর তথ্য পাওয়া যায়নি। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৮৫। নতুন করে ১০৬জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়াঁলো ৩১৫৩। সকালে নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এ জেলায় নতুন ভাবে আক্রান্ত হয়েছে ১০৬জন, মোট আক্রান্ত ৩১৫৩জন। মোট মৃত্যু ৮৫ জনের। নতুন করে কোন সুস্থ নেই, মোট সুস্থ ৮১৩জন। মূলত দিন যতই যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জের পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হচ্ছে। আর এমন পরিস্থিতিতে না রায়ণগঞ্জের সকল রাজনীতিদের এক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করা জরুরী হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েজন রাজনীতিক ঐক্যের পথে থাকলেও সকলকে ঐক্য হয়ে করোনা য়দ্ধে নামার আহবান জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *