আজ: শনিবার | ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১০ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি | সকাল ৬:৩৬

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

কর্মীদের আস্থা হারাচ্ছে নেতারা

১৩ জানুয়ারী, ২০২১ | ৭:২৮ পূর্বাহ্ন | ডান্ডিবার্তা | 149 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

বার বার ব্যর্থতার কারণে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ নেতাদের প্রতি আস্তা রাখতে পারছেন না মাঠ পর্যায়ের নেতারা। এবাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে নারায়ণগঞ্জ বিএনপিকে সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী করতে বিভিন্ন উদ্যোগ নিলেও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতারা। সর্বশেষ জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠনের মধ্যদিয়ে নতুন করে ঘুরে দাঁড়ানোর পরিবর্তে নেতারা নিজেরাই দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েছেন। গত সোমরা জেলা বিএনপির কর্মসূচীতে দুই নেতার সমর্থকদের সধ্যে সংঘর্ষের ঘটনার পর ফের হতাশ হয়েছেন সাধারণ কর্মীরা। সাংগঠনিক ভাবে ঘুরে দাঁড়াবে- নেতাদের প্রতি এমন আস্তা রাখতে পারছেন না সাধারণ কর্মীরা। একাদশ সংসদ নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়ের পর থেকে নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে প্রায় জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বিএনপি। এর ফলে জনসমর্থন হারানোর শঙ্কায় পড়েছে দলটি। কেবল সঠিক সিদ্ধান্তের অভাবে দলটি জনগণের মন জয় করার সুযোগ হারাচ্ছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। জেলা বিএনপির কয়েকজন কর্মী জানান, কমিটির প্রথম অনুষ্ঠানেই সংঘর্ষের ঘটনায় আমরা হতাশ হয়েছি। আগামীতে আরো সংঘর্ষের ঘটনা ঘটার আশঙ্কা করছি। জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জে বিএনপির রাজনৈতিক অবস্থা খুবই খারাপ। বিএনপির তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতে, দীর্ঘ সময় দল ক্ষমতার বাইরে থাকায় অনেকেই পুলিশি হামলা-মামলা, জেল-জুলুম সহ্য করেছেন। অনেকে আবার সরকারী দলের সাথে আতাঁত করে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত রয়েছেন বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত এমন নেতার সংখ্যাও কম নয়। তাই পরীক্ষিত, ত্যাগী, নবীন-প্রবীণ নেতাদের সমন্বযয়ে থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন তৃণমূল বিএনপির এসব নেতাকর্মীরা। এসব নেতাকর্মীরা মনে করেন, ১৪ বছর যাবৎ দল ক্ষমতায় নেই তারপরও সরকারবিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে দলের অনেক নবীন-প্রবীণ নেতা-কর্মী ও সমর্থক জুলুম-নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, অনেকেই হামলা-মামলার কারণে বাড়ী ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। সব জুলুম-নির্যাতন উপেক্ষা করে নারায়ণগঞ্জ জেলার বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে ত্যাগী ও পরীক্ষিতরা ঠিকই আন্দোলন করেছেন, রাজপথে নেতৃত্ব দিয়েছেন। বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। বর্তমান সময়কে চ্যালেঞ্জ হিসেবে আখ্যা দিয়ে তৃণমূলের এসব নেতাকর্মীরা বলেন, বর্তমানে রাজনীতি করাটা বেশ কঠিন হয়ে গেছে। একদিকে ক্ষমতাসীনদের নানা ভয়ভীতি অন্যদিকে প্রশাসনের বাধার মুখে থাকতে হচ্ছে। যারা বিগত দিনে আন্দোলন-সংগ্রামে ছিলেন না তাদের কমিটিতে স্থান দেওয়ার আহবান জানান তারা। যদিও জেলা বিএনপির আহবায়ক ও সদস্য সচিবকে নিয়ে নানা বিতর্ক রয়েছে। নারায়ণগঞ্জ বিএনপির ধ্বংসের নেপথ্যে আহবায়ক তৈমূর আলম খন্দকারকেও দায়ী করছেন। তাই তৈমূরের হাতে নেতৃত্ব থাকায় আস্তা নেই কর্মীদের।

 



Comment Heare

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।