Home » প্রথম পাতা » ফতুল্লার কাশিপুরে মোস্তফার অত্যাচারে অতিষ্ট সাধারন মানুষ

কাঁচপুরে ছাত্রলীগ অফিস ভাংচুর

২৮ জানুয়ারি, ২০২২ | ১২:৪৪ অপরাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 102 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

সোনারগাঁ উপজেলার কাঁচপুর কলাপট্টি এলাকায় সন্ত্রাসীদের হামলায় ছাত্রলীগ অফিস ভাংচুরসহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে দু’জন গুরুত্বর আহত হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে কলাপট্টি এলাকায় ছাত্রলীগের অস্থায়ী কার্যালয় ৪ নংওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি শামীম(২৩) পিতা মজিবুর রহমান ও সহ-সভাপতি রায়হান (২২) পিতা রশিদ, উভয় সাং সোনাপুর, থানা সোনারগাঁ, জেলা নারায়ণগঞ্জকে। বিবাদী সন্ত্রাসী- সুমন (২৮) পিতা হাজী আমির হোসেন, বাপ্পী (২৮) পিতা আলী হোসেন, মোমিন (৩৩) পিতা মৃত সালাউদ্দিন, রেজা (৩০) পিতা মৃত নূর ইসলাম, নূরুজ্জামান (৩৫) পিতা মৃত নূর ইসলাম, মাদক ব্যবসায়ী বাংলা মনির (৩০) পিতা অজ্ঞাত, ডাকাত জামান (৩০) পিতা অজ্ঞাত ও মিজান (৪০) পিতা মৃত ওমর আলী গংরা। বাদী- ছাত্রলীগ নেতা শামীম ও রায়হান অফিস কক্ষে দু’জনকে পেয়ে এলোপাতাড়ি দা দিয়ে প্রথমে হাতে কোপ ও রড দিয়ে মারপিট করে গুরুত্বর আহত করেন অভিযুক্ত সন্ত্রাসীরা। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, কাঁচপুর লাভলী হল থেকে সোনারগাঁ পরিত্যক্ত পাম্প পর্যন্ত জোরপূর্বক দখলের চেষ্টায় দীর্ঘদিন ধরে মরিয়া হয়ে উঠেছেন অভিযুক্ত চক্রটি। ওই সন্ত্রাসী চক্রটি কাঁচপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোশাররফ ওমর ও সোনারগাঁ উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান বাবুল ওমর বাবুর নেতৃত্বে দীর্ঘদিন সন্ত্রাসী কর্মকা- চালিয়ে যাচ্ছেন। এ যেন তাঁদের রামরাজত্ব কায়েম হতে চলেছে। ইতিপূর্বেও কাঁচপুর বাসস্ট্যান্ডের বাস কাউন্টারসহ সকল প্রকার অবৈধ ফুটপাত আধিপত্য বিস্তারে খান বংশের সাথে ব্যাপক মারামারির ঘটনা ঘটে। এমন ঘটনায়ও কমপক্ষে ১০/১২জন গুরুত্বর আহত হয়েছিল। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এতে ধারণা করা যাচ্ছে- কাঁচপুর লাভলী হল থেকে কাঁচপুর চেঙ্গাইন সড়ক পর্যন্ত আধিপত্য দখলের কারণে প্রাণহাণির আশঙ্কা রয়েছে। এবিষয়ে কাঁচপুর ৪নং ওয়ার্ড সাবেক মেম্বার শাহ আলাম জানান, আমার সকল প্রকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ওই সকল সন্ত্রাসীরা দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে আমার লোকজন বাধাঁ প্রয়োগ করলে। তাঁদেরকে মারপিট করে ও জীবননাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। আমরা আপনাদের মাধ্যমে এধরনের অভিযুক্ত সন্ত্রাসীদের বিচার বিশ্লেষণের দাবি জানাচ্ছি এবং সোনারগাঁ থানায় মামলা করার কথা বলেন। এবিষয়ে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে মুঠোফোনে বিষয়টি অবহিত করা হলে, ফোনে কোন প্রকার দায়িত্ববোধ গ্রহণ করেননি।

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *