আজ: শনিবার | ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৭ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি | দুপুর ২:৪৭

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

কুড়িপাড়া বাজার মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনা

ডান্ডিবার্তা | ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৭:১৫

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
বন্দরের-নাসিক ২৭নং ওয়ার্ডের কুড়িপাড়া বাজার মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনার খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার বাদ জুমআ সৃষ্ট এ ঘটনার প্রেক্ষিতে দিনভর উক্ত অঞ্চলে বিষয়টি সাধারণ মানুষের মধ্যে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে এবং মসজিদ কমিটিতে জেলা পরিষদের সদস্য আলাউদ্দিনের নিজস্ব লোককে দায়িত্ব দিয়ে এলাকায় ক্ষমতা ও প্রভাব বিস্তার করার হীন মানসিকতার প্রতি ক্ষোভ জানানো হয়। নাসিক ২৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল সাংবাদিকদেরকে জানান, কুড়িপাড়া বাজার মসজিদটি অন্য সকল মসজিদের মতই একটি পরিচালনা কমিটি দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে। এক্ষেত্রে মুসল্লিদের পক্ষ থেকে মসজিদের উন্নয়নের স্বার্থে সাধারণ সম্পাদক পদে অন্য একজনকে দায়িত্ব দেয়ার দাবী উঠলে সর্বসম্মতিক্রমে কুড়িপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য ও ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান (জামান) কে উক্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়ার বিষয়ে স্থির করা হয়। উক্ত কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে আলাউদ্দিনের ভাতিজা আসাদুজ্জামানের নাম প্রথমে এবং স্থানীয় শফিকুল ইসলামের নাম দ্বিতীয়তে ছিলো। কমিটির নামের তালিকা নতুন করে করার ক্ষেত্রে কম্পিউটারে টাইপ করার সময় সহ-সভাপতি পদে শফিকুল ইসলামের নাম প্রথমে ও আসাদুজ্জামানের নাম দ্বিতীয়তে চলে আসে। এনিয়ে জেলা পরিষদের সদস্য আলাউদ্দিন ক্ষিপ্ততা প্রকাশ করেন। যেহেতু মসজিদের কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে মসজিদের মুসল্লীদের মাঝে কোন সমস্যা নেই, সেখানে সহ-সভাপতি পদের বিষয়ে উচ্চবাচ্য করা একেবারেই অপ্রয়োজন বলে আমরা মনে করি। তথাপিও আলাউদ্দিন সাহেব যদি বলতেন যে তার ভাতিজা আসাদুজ্জামানের নামটি পুনরায় আগে এবং শফিকুলের নামটি ২য় অবস্থানে দেয়া হোক। সেটা করতে আমরা রাজি। কিন্তু শুক্রবার বাদ জুমআ অহেতুক সহ-সভাপতির বিষয়ে তিনি মসজিদে সকলের সম্মুখে অশোভনীয় বক্তব্য দেন এবং মুসল্লিদের অনুরোধে উক্ত মসজিদ কমিটি গঠনের বিষয়ে আমি ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে ও মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মাকসুদ হোসেন উক্ত মসজিদে উপস্থিত থাকায় তিনি আমাদেরকে উদ্দেশ্য করে অপমানজনক বক্তব্য দিয়েছেন। এখানে আমাদের কোন স্বার্থ জড়িত নয়। আমরা মুসল্লিদের অনুরোধে উক্ত মসজিদে গিয়েছি। তার বক্তব্যে মুসল্লীরা ক্ষিপ্ত হয়ে এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং তার আত্মীয়স্বজনরা তুমুল হট্টগোল করে মুসল্লিদের সাথে খারাপ আচরণ করেন। এনিয়ে তুমুল হট্টগোল দেখা দিলে বন্দর থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মসজিদ কমিটিতে নিজস্ব লোক রাখা নিয়ে এ কোন ধরণের ষড়যন্ত্র তিনি করছেন এবং কেমন খেলায় তিনি মেতে উঠেছেন তা নিয়ে আমরা শংকিত। আলাউদ্দিনের কারণে শান্ত কুড়িপাড়া এলাকা আবারও অশান্ত হয়ে উঠেছে এবং চতুর্দিকে আজ আমাদের এলাকা নিয়ে মানুষ নানান কথা বলছে। এলাকার শান্তি বিনষ্ট করায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে আমরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *