Home » শেষের পাতা » স্কুল ছাত্র ধ্রুব হত্যায় খুনিদের গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন

কেন্দ্রের নজর নারায়ণগঞ্জে!

০৫ জানুয়ারি, ২০২২ | ৮:১৫ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 69 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন এখন জাতীয় ইস্যুতে পরিনত হয়েছে। রাজনীতিক থেকে শুরু করে দেশের মিডিয়াগুলোর দৃষ্টি এখন নারায়ণগঞ্জের দিকে। নাসিক নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিস্থিতি কি হতে পারে তা নিয়ে পর্যবেক্ষণ পলছে। যার ফলে নাসিক নির্বাচন নিয়ে চলছে বহুমুখী মেকানিজম। প্রতিদিনই নির্বাচন ইস্যুতে নারায়ণগঞ্জে আসছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। অপরদিকে, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় বিএনপি নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলমকে দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হলেও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারাও নারায়ণগঞ্জের প্রতি নজর রয়েছে। এদিকে, নাসিক নির্বাচনে মেয়রপ্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারকে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তৈমূরের বিজয়ের কোনো সম্ভাবনা নেই। এটা অনুধাবন করতে পেরে আগেই তৈমূরকে পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তবে তৈমূর দাবী করেছেন, দল থেকে অব্যাহতি দেয়া তিনি এখন মুক্ত। তিনি এখন আওয়ামীলীগের ভোটও পাবেন। জানাগেছে, জাতীয় রাজনীতিতে প্রভাব রয়েছে নারায়ণগঞ্জের। তাই রাজনৈতিক দলগুলো বরাবরই নারায়ণগঞ্জ গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। তাই নারায়ণগঞ্জের রাজনীতি পদ দখলেও প্রতিযোগীতা রয়েছে ব্যাপক। এমনকি দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতার বাহিরে থাকলেও নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতারা পদ দখল নিয়ে প্রতিযোগীতায় ছিল। কিন্তু স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় বিএনপির নেতারা হতাশ হলেও আওয়ামীলীগের বিকল্পে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন বিএনপি নেতা তৈমূর। তাই তৈমূরকে দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হলেও বিএনপির নেতারা তৈমূরের পক্ষে রয়েছেন। এছাড়াও আওয়ামীলীগের একাংশ নেতা তৈমূরের পক্ষে রয়েছে বলে গুঞ্জন রয়েছে। মূলত রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের ক্ষেত্রে ঢাকার পরবর্তী অবস্থানেই নারায়ণগঞ্জ। নানা ইস্যু নিয়ে সর্বদাই নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে উত্তপ্ততা বিরাজ করে আসছে। রাজনৈতিক সহবস্থানের ক্ষেত্রে এই জেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অন্যতম একটি ঘাঁটি হিসেবে বিবেচিত। অবশ্য বিএনপির ক্ষেত্রে সেই প্রেক্ষাপটটি এখন আর তেমন বিবেচ্য বিষয় নয়। তবে বিএনপি নেতা তৈমূর স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্র আলোচনা শুরু হয়। সমালোচনা এড়াতে তৈমূরকে দল থেকে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে এতে তৈমূর তার অবস্থানে অনড় থাকায় কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। অপরদিকে, নারায়ণগঞ্জে প্রতিদিনই উপস্থিত থেকে আইভীর পক্ষে কাজ করছেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। এমনকি কেন্দ্রের চাপে শেষ পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগও নৌকা প্রতীকের প্রচারণায় মাঠে নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগ। গতকাল মঙ্গলবার ছাত্রলীরৈ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন শেষে নৌকা প্রতীকের প্রচারণা চালান স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *