Home » প্রথম পাতা » শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী আজ

গিয়াসকে নিয়ে জাপায় তোলপাড়!

১৯ মে, ২০২২ | ১০:০৭ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 73 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

জাতীয়পার্টির নেতা হয়রানি মামলায় জেলে রয়েছেন। তার পক্ষে বিপক্ষে শহর ও বন্দরে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী রিমান্ড শেষে জেলে রয়েছেন। তাকে জালিয়াতি মামলায় সদর থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। এদিকে তার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বন্দরের র‌্যালী ও আমিন আবাসিক এলাকাসহ রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা চলছে। এলাকাবাসী জানান, গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী বন্দর র‌্যালী আবাসিক এলাকার পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি ও বন্দরের বিভিন্ন সংঘঠনের সাথে জড়িত সেই সাথে তিনি জেলা স্বেচ্ছা সেবক পার্টির আহবায়ক। রোটারিয়ান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীকে আর্থিক ও সামাজিক ভাবে ক্ষতি করার জন্য একটি মহল হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে জেলে রেখেছে। তাকে হয়রানি মামলা থেকে এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সংগঠনের লোকজন গত সোমবার বন্দর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে। এলাকাবাসী আরো জনানা, রোটারিয়ান গিয়াস উদ্দিন চৌধূরী একজন সমাজ সেবক। সে বন্দর আমিন আবাসিক এলাকায় ও ইস্পাহানিতে দু’টি স্কুল প্রতিষ্ঠা করে সামাজ সেবা করে যাচ্ছে। বন্দরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রাতষ্ঠান বি.এম ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও তিনি প্রকাশ্যে ও গোপনে হতদরিদ্র মানুষকে অর্থসহ ব্যাপক সহযোগিতা করেন। তিনি অতি অল্পসময়ে আর্ন্তজাতিক সংগঠন রোটারি ইন্টারন্যাশনাল এর মাধ্যমে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে রোটারিতে জায়গা করে সুনাম অর্জন করেছেন। এদিকে গিয়াস উদ্দিনের পরিবারের পক্ষ থেকে জানান, তাকে যে জালিয়াতি মামলা দিয়েছে তা সম্পূর্ন সাজানো। মামলার বাদী বলেছেন, গিয়াস উদ্দিন স্বাক্ষর জাল করে তাকে ঠকিয়েছেন কিন্তু পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় সেই স্বাক্ষরটি পরীক্ষাগারে পাঠানো হউক। পরিবারের দাবি স্বাক্ষরটি মামলার বাদীর। গিয়াস উদ্দিনকে আর্থিক ক্ষতিসহ তার কাছ থেকে অনৈতিক ভাবে টাকা হাতিয়ে নেয়ার জন্য এ হয়রানি মূলক মামলা দেয়া হয়েছে। এদিকে মহানগর জাপার একাধিক নেতা জানান, গিয়াস উদ্দিন মহানগর জাপার আহবায়ক। জেলা জাপার ক্ষতি থেকে যে মতামত দিয়েছে তা সঠিক নয়। কারণ গিয়াস উদ্দিন মহানগরের দায়িত্ব নিয়ে অনেক রাজনৈতিক কর্মকান্ড করেছেন। গিয়াস উদ্দিন হয়রানি মামলায় আটক হওয়ায় জেলা জাপার এ আচরণ ঠিক হয়নি। গিয়াস উদ্দিন এখনো জাতীয়পার্টির নেতা। আমরা গিয়াস উদ্দিনের মুক্তি দাবি করছি। তাকে জামিনে মুক্তি দিয়ে মামলাটি সঠিক তদন্ত করার আহবান জানান জাপার নেতাকর্মীরা। অপরদিকে  মামলার বাদি পক্ষের দাবি তিনি সাবেক সংসদ সদস্য আবুল কালাম, প্রয়াত সংসদ সদস্য নাসিম ওসমান, বর্তমান সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান ও প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা ও সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের নাম ব্যবহার করে সকল ধরণের অপরাধ অব্যাহতভাবেই চালিয়ে আসছিলো। এমন অপরাধের ধারাবাহিকতায় কেউ এতোদিন মামলা করার সাহস না পেলেও এবার তার মামলায় গ্রেফতার হলে আদালতের সিনিয়র জুডিশিযাল ম্যাজিস্ট্রেট শামসুর রহমানের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। প্রতারনা, জাল দলিল সম্পাদন করে বিক্রি, বিশ্বাস ভঙ্গ ও হত্যার হুমকির ঘটনার মামলায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী ওরফে ভেন্ডার গিয়াস কে কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোর্ট ইন্সপেক্টর আসাদুজ্জামান। তবে এ বিষয়ে দ্বিমত পোষন করেছে মহানগর জাতীয়পার্টির নেতাকর্মীরা। তারা সদর-বন্দর আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *