Home » প্রথম পাতা » প্রতিমন্ত্রী মুরাদের বহিষ্কার চাইলেন বাহাদুর শাহ

ঝালমুড়ি খাওয়ানোর কথা বলে দুই বান্ধবীকে ধর্ষণে ৪জন গ্রেপ্তার

১০ জুন, ২০২১ | ৬:৪৭ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 39 Views

বন্দর প্রতিনিধি
ঝালমুড়ি খাওয়ার কথা বলে বন্ধুর বাড়ীতে ডেকে নিয়ে বন্দরে দুই প্রেমিক কর্তৃক দুই বান্ধুবী ধর্ষনের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই ধর্ষক ও ধর্ষনের কাজে সহয়তা করার অপরাধে আরো ২ জনসহ মোট ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। গত মঙ্গলবার রাতে বন্দর থানার ২৪ নং ওয়ার্ডের নবীগঞ্জ ইসলামবাগস্থ আলাউদ্দিন মিয়ার বাড়ীতে এ ধর্ষনের ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ধর্ষিতা বাদী হয়ে গ্রেপ্তারকৃত ৪ জনসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে বন্দর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো নারায়ণগঞ্জ সদর থানার এম সার্কাস এলাকার গোপাল মিয়ার ভাড়াটিয়া টিটু মিয়ার ছেলে সিফাত হোসেন (১৮) হাজীগঞ্জ এলাকার রাজু মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া আব্দুল মান্নান সরদারের ছেলে সিফাত (২১) বন্দর থানার নবীগঞ্জ ইসলামবাগ এলাকার আলাউদ্দিন মিযার ছেলে সাকিব হোসেন (২৪) একই এলাকার মৃত বাহাউদ্দিন মিয়ার ছেলে নাইম (২৪)। অপর আসামী শাকিল (২২) পলাতক রয়েছে। পুলিশ ভিকটিমদের উদ্ধার করে ডাক্তারি পরিক্ষার পর ২২ ধারায় আদালতে প্রেরণ করেছে। জানা গেছে, গত ৮ দিন পুর্বে নবীগঞ্জ গুদারা ঘাটে নারায়নগঞ্জ সদর থানার এম সার্কাস এলাকার টিটু মিয়ার ছেলে সিফাত হোসেন ও হাজীগঞ্জ এলাকার আব্দুল মান্নান মিয়ার ছেলে সিফাতের সাথে মামলার বাদিনী ও তার বান্ধবী (১৭) সাথে পরিচয় হয়। পরে উভয়ের মধ্যে মোবাইল ফোন নাম্বার আদান প্রদান করা হয়। পরবর্তি সময়ে উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টায় ধর্ষণ মামলার বাদীনি ও তার বান্ধবী (১৭) মাজার দেখার জন্য নবীগঞ্জ ঘাটে আসলে ওই সময় সিফাত (১) ও সিফাত হোসেন (২)সহ তাদের বন্ধু সাকিব হোসেন, নাঈম ও শাকিলের সাথে দেখা হয়। পর সকলে মিলে নবীগঞ্জ ইসলামবাগ এলাকার আলাউদ্দিন মিয়ার বাড়ীতে ঝালমুড়ি খাওয়ার জন্য ডেকে নিয়ে যায়। পরে উল্লেখিতরা পাশাপাশি দুইটি রুমে দুই বান্ধবীর সাথে সিফাত (১) ও সিফাত (২) নামে তাদের দুই বন্ধুকে ঘরে ঢুকিয়ে বাহির থেকে দরজা লাগিয়ে দেয়। পরে উল্লেখিত দুই বন্ধু তাদের দুই বান্ধবীকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। পুলিশ গ্রেপ্তারকৃতদের গতকাল বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করেছে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *