Home » প্রথম পাতা » পদ্মা সেতু জাতির আরেক বিজয়

ডিজেল-কেরোসিনের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সিপিবির বিক্ষোভ

০৬ নভেম্বর, ২০২১ | ১০:১১ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 41 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি জেলা শাখা। গতকাল শুক্রবার বিকাল চারটায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি জেলা সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শিবনাথ চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মন্টু ঘোষ, জেলা কমিটির সদস্য দুলাল সাহা, জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য বিমল কান্তি দাস, শহর কমিটির সভাপতি আ. হাই শরীফ, জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য আ. সালাম বাবুল, জেলা কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ বলেন, জ্বালানি তেল ডিজেল, কেরোসিন ও এলপিজি গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সরকারি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে। সরকারি এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। অবিলম্বে বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার করে দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার দাবি জানাচ্ছি। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ডিজেল-কেরোসিন ও এলপিজি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ফলে পরিবহনে যাত্রী ভাড়া ও পণ্য পরিবহন ব্যয় বাড়বে। এলপিজির দাম বৃদ্ধিতে পরিবহন ও গৃহস্থালীতে, হোটেল রেস্টুরেন্টে রান্নার ব্যয় বাড়বে, এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে নি¤œবিত্ত, মধ্যবিত্ত ও সাধারণ জনগণ। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, এমনিতেই চাল, ডাল, তেল, পিয়াজসহ দ্রব্য মূল্যের উর্ধ্বগতিতে জনগণ দিশেহারা। ডিজেল-কেরোসিনের দাম লিটার প্রতি ১৫ টাকা বাড়িয়ে ৮০ টাকা করায় এবং এলপিজি’র দাম বাড়ানোয় এটা মরার উপর খাড়ার ঘা হিসেবে জনগণের জীবন যাত্রাকে বিপন্ন করে তুলবে। তারা বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধির অজুহাতে মূল্য সমন্বয়ের নামে ডিজেল, কেরোসিন ও এলপিজি’র দাম বাড়ানোর কথা বলছে সরকার অথচ যখন বছরের পর বছর আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির দাম কমে কমে অর্ধেকে নেমে এসেছিল তখন মূল্য সমন্বয় করে দাম কমানো হয়নি। বরং সরকার তখনো মূল্য বৃদ্ধি করেছে। সরকারের এই স্বেচ্ছাচারিতার সুযোগে যানবাহনের মালিকরা ভাড়া বৃদ্ধির পাঁয়তারা না করতে পারে সে বিষয়ে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাস্তায় নামার জন্য কমিউনিস্ট পার্টি আহ্বান জানাচ্ছে। যানবাহন মালিকদের ভাড়া বৃদ্ধির পাঁয়তারা ঐক্যবদ্ধভাবে রুখতে হবে। আরও বৃহত্তর আন্দোলনের জন্য আমরা জনগণকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নারায়ণগঞ্জ শহর প্রদক্ষিণ করে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *