Home » প্রথম পাতা » পদ্মা সেতু জাতির আরেক বিজয়

তারা বাকশালে গিয়েছিলেন

২৩ জুন, ২০২২ | ৭:৫১ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 28 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট ১৯৮১ সালের ১৭ই মে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরেন। সে সময় বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্ব না মেনে মহিউদ্দিন আহমেদ ও আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে বাকশাল গঠন করা হয়েছিল। তখন সেই বাকশালে চলে গিয়েছিলো নারায়ণগঞ্জের গোপীনাথ সাহা, খোকন সাহা, এড. আনিছুর রহমান দিপু, শাহবুদ্দিনরা। আওয়ামী লীগের ৭৩ বছর উপলক্ষে এক প্রতিক্রিয়ায় গতকাল বুধবার বিকালে এ কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই। তিনি বলেন, ‘যদিও তারা পরবর্তীতে ফিরে এসেছে। তখন বঙ্গবন্ধু কন্যা আব্দুর রাজ্জাক সাহেবকে গ্রহণ করে বলেছিলো, ঘরের ছেলে ঘরে ফিরে এসেছে।’ আবদুল হাই আরও বলেন, ‘তারপরেও অনেক খারাপ সময় গিয়েছে আওয়ামী লীগে, অনেক হামলা-মামলা হয়েছে। ১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর অনেকে নির্যাতিত হয়েছি। ১৯৯৬ সালের পর কিছুদিন ভালো কাটলেও ২০০১ সালের পর আবারও বিএনপি ক্ষমতায় এসে বহু হামলা-মামলা করেছে। তখন যারা ত্যাগ শিকার করেছে, এখন তাদের অনেকেই বেঁচে নেই। অনেকে দল ছেড়ে চলে গেছেন। যেমন খাজা ভাই, গোলাম মোরশেদ ফারুকি, কবির ভাই, সাত্তার সাহেব। তারপরেও তাদের অবদান অস্বীকার করা যাবে না। আর ২১‘শে আগষ্ট আমাদের নেত্রীকে টার্গেট করে ভয়ঙ্কর বোমা হামলা করেছে। তার চার পাশের অনেকেই মারা গেছে। এখন আওয়ামী লীগ দীর্ঘদিন ক্ষমতায় রয়েছে, কিন্তু আগের জায়গায় নাই।’ মহিউদ্দিন আহমেদ ও আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে বাকশালে নারায়ণগঞ্জের অনেকে চলে গিয়েছিলো বলে স্বীকারে আওয়ামী লীগের প্রবীন নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান বাচ্চু বলেন, ‘যারা চলে গিয়েছিল, তাদের নাম এখন বলা যাবে না।’ প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগের মধ্যে তখন শেখ হাসিনার কর্তৃত্ব যতই সংহত হতে থাকুক না কেন, তরুণদের মধ্যে, বিশেষ করে ছাত্রলীগের কর্মীদের মধ্যে  আব্দুর রাজ্জাকের অনুগতদের সংখ্যা ছিল অনেক বেশি। তাই মহিউদ্দন আহমদ এবং আব্দুর রাজাকের নেতৃত্বে একটি অংশ বেরিয়ে ‘বাকশাল’ নামে দল গঠন করার ফলে আওয়ামী লীগ একটু দুর্বল হয়ে যায়।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *