Home » শেষের পাতা » বন্দরে ২৭টি পূজামন্ডপে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

তৈমূরের অভিযোগ ভিত্তিহীন

১২ জানুয়ারি, ২০২২ | ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 60 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পুলিশ প্রশাসন জিরো টলারেন্স নীতিতে আছে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) জায়েদুল আলম। একই সঙ্গে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেও দাবি করেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে তিনি এসব কথা বলেন। আগামী ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের পরিবেশ এখনো পর্যন্ত কেমন দেখছেন? এই প্রশ্নের জবাবে এসপি জায়েদুল আলম বলেন, ‘নির্বাচনের পরিবেশ এখন পর্যন্ত উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে আছে। নির্বাচনের যে আমেজ সেটা আমরা দেখতে পাচ্ছি।’ বিশৃঙ্খলা হওয়ার কোন সম্ভবনা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এখনো পর্যন্ত বিশৃঙ্খলা হওয়ার মতো আমাদের কাছে কোন তথ্য নেই। পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।’ ওয়ার্ড পর্যায়ে কাউন্সিলরদের মধ্যে কোন বিশৃঙ্খলা হচ্ছে কি না বা সম্ভাবনা আছে কি না জানতে চাই জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দুই একটি ওয়ার্ডে টানটান উত্তেজনা আছে। আর সেখানে উৎসাহ উদ্দীপনাও আছে। আমরা সেগুলোর দিকে বিশেষ নজর রাখছি। সেইভাবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিচালনা করা হচ্ছে। নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসবে, সেখানে আরও বেশি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়ন করা হবে। নির্বাচনের দিন সেখানে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়ন করা হবে।’ পুলিশের চলমান অভিযান সম্পর্কে তিনি বলেন, এটা পুলিশের নিয়মিত কাজ। পুলিশ সব সময় অভিযান চালায়। বিশেষ করে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী, বহিরাগত সন্ত্রাসী, বড় কোন অপরাধী, বিভিন্ন মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এটা নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে আমরা বিভিন্ন ওয়ার্ডে অভিযান পরিচালনা করছি। তিনি বলেন, এসব অভিযানে এখনো পর্যন্ত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের অভিযোগ সরকারি দলের প্রার্থীকে সুবিধা দিতে কাজ করছে পুলিশ। এ জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থীর নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার, বাড়ি বাড়ি গিয়ে তল্লাশীর নামে হয়রানি করা হচ্ছে। তৈমূরের অভিযোগের বিষয়ে এসপি বলেন, ৭ জন মেয়র প্রার্থী এখানে নির্বাচন করছেন। তার মধ্যে একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী এ ধরনের অভিযোগ করছেন। এ ধরনের অভিযোগ সম্পূর্ণভাবে ভিত্তিহীন বলে আমরা মনে করি।’ তিনি আরও বলেন, পুলিশ বাহিনী কোন নির্দিষ্ট প্রার্থী বা কারও পক্ষে বিপক্ষে কাজ করে না। পুলিশ বাহিনী সম্পূর্ণভাবে নিরপেক্ষ দৃষ্টিকোণ নিয়ে নির্বাচনকে সুষ্ঠু, অবাধ এবং গ্রহণযোগ্য করার জন্য যা যা করণীয় সেই কাজ করে থাকে। আমরা সেই কাজ করছি। নির্বাচনকে ঘিরে পুলিশের বর্তমান অবস্থানের বিষয়ে তিনি বলেন, পুলিশ বর্তমানে নির্বাচনে যেকোনো ধরনের সহিংসতা বা নির্বাচনে যেকোন ধরনের বিশৃঙ্খলার ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতিতে আছে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *