Home » শেষের পাতা » অধিগ্রহণ হচ্ছে নদীর জমি

ত্যাগীদের ঐক্যে সুবিধাবাদিরা বিপাকে!

৩০ জুলাই, ২০২১ | ৮:৩৮ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 30 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতাদের দ্বন্দ্বের কারণে সুবিধাবাদি ও বিতর্কিত নেতাদের দাপট বেড়েছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে ঐক্যের সুর ভাসছে। এতে করে দলের বিতর্কিত নেতারা নিশ্চুপ থেকে পরিবেশ পর্যবেক্ষন করছে। মূলত নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হলেই রাজনীতিতে দাপট কমবে সুবিধাবাদি নেতাদের। সূত্র বলছে, টানা তের বছর আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকায় দলের সুবিধাবাদি ও অনুপ্রবেশকারীরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেলেও ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেনি নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের। মূলত নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারীদের দল থেকে বহিস্কারের কোন প্রকার পদক্ষেপ শীর্ষ নেতারা গ্রহণ না করায় মাঠ পর্যায়ের ত্যাগী নেতাকর্মীরা শীর্ষ নেতাদের উপর ফুঁসে উঠতে শুরু করেছে। বরং অনুপ্রবেশকারীদের বিরুদ্ধে ব্যস্থা না দিয়ে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ থেকে শুরু করে সহযোগি সংগঠনের নেতারা নিজেদের মধ্যে কোন্দল টিকিয়ে রাখাসহ প্রকাশ্যে না হলেও আড়ালে আবঢালে এক নেতা আরেক নেতার বিরুদ্ধে বিষোদগার করে চলেছে। বিভিন্ন আড্ডা খানায় কিংবা চা স্টলের সমানে নিজেরা সমানে অন্য নেতার বিরুদ্ধে বিষোদগার করলেও অনুপ্রবেশকারীদের বেলায় মুখে কুলুপ এঁটে রেখেছে। মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা অভিযোগ করেছেন, দলের শীর্ষ নেতারা হাইব্রিড, কাউয়া, কিংবা অনুপ্রবেশকারীদের দল থেকে বের করার জন্য যত সোচ্চার হচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগে বিভিন্ন কায়দায় অনপ্র্রবেশকালীরা স্থান করে নিচ্ছেন। এদের ব্যপারে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের যেন কোন মাথা ব্যথা নেই। মূলত জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতাদের বিরোধের কারণে বিতর্কিতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়নি। কিন্তু সম্প্রতি ঐক্যবদ্ধ হতে শুরু করেছে স্থানীয় নেতারা। অভিযোগে রয়েছে,আওয়ামীলীগে ত্যাগী নেতাদের ঠাঁই দেয়ার জন্য দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা নির্দেশ দিলেও দেখা যাচ্ছে কোথায়ও দলীয় প্রভাব আবার কোথায়ও টাকার জোরে ক্ষমতার শীর্ষে অবস্থান করে নিচ্ছেন প্রভাবশালীরা। আর এ কারণে দলের প্রতি মমতাবোধ হারিয়ে ফেলতে বসেছেন দলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা। নারাণয়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের একাধিক ত্যাগী নেতাকর্মী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, মাঠে ময়দানে কিংবা আন্দোলন সংগ্রামে আমরা থাকলেও ক্ষমতার স্বাধ নিচ্ছে সেই প্রভাবশালীরাই। বিভিন্ন সময়ে দলের ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়িত করা হবে- এমন বক্তব্য দিয়েছিলেন সাংসদ শামীম ওসমান। কিন্তু তা বাস্তবে দেখা যায়নি। এখনো মূল্যায়িত করা হচ্ছে না দলের ত্যাগীদের। তাই এখন ত্যাগী নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে এতে করে আরো সতর্ক হতে হবে ত্যাগীদের। কেননা বিতর্কিত ও সুবিধাবাদি নেতারা তাদের আধিপত্য ধরে রাখতে তৎপর রয়েছে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *