আজ: মঙ্গলবার | ১১ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২১শে জিলহজ, ১৪৪১ হিজরি | সকাল ৭:২৪

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

দেওভোগ পানিরট্যাংকি এলাকায় আনোয়ারের মাদক ব্যবসা জমজমাট

ডান্ডিবার্তা | ০১ জুলাই, ২০২০ | ৮:১৭

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় লকডাউনেও চলছে মাদক বিক্রি। দেওভোগ পানিরট্যাংকি দাতা সড়ক এলাকায় জমজমাটভাবে চলছে আনোয়ারের মাদক ব্যবসা। এখানে হাত বাড়ালেই পাওয়া যায় ফেনসিডিল ও ইয়াবা। সদর মডেল থানা ও ফতুল্লা মডেল থানার সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় এখানে পুলিশের উপস্থিতি কম থাকার সুবাদে বীরদর্পে চলছে মাদক বিক্রি। এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, দেওভোগ পানিরট্যাংকি দাতা সড়ক ও এর আশপাশের এলাকায় একসময় মাদক ব্যবসা করতো ডিব্বা হালিম। ২০০৫ সালে ডিব্বা হালিম গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর বেশ কয়েকমাস এলাকাটি মাদকমুক্ত থাকলেও পরবর্তীতে এলাকাটি আবারো মাদকের স্বর্গরাজ্যে পরিনত হয়। ডিব্বা হালিম মাদকের ব্যবসা গুটিয়ে ফেললে সেখানে নতুন করে মাদক ব্যবসা চালু করে দাতা সড়ক পঁচাপট্টি এলাকার মৃত লতিফ বেপারীর ছেলে আনোয়ার। তবে সে একাধিকবার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হলেও মাদক ব্যবসা ছাড়েনি। এলাকাবাসী সূত্রে আরো জানাগেছে, প্রতিদিন সন্ধ্যার পর এলাকার চিত্র পাল্টে যায়। বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা মাদক সেবীরা ভিড় জমায়। মাদক কেনাবেচা ছাড়াও নির্বিঘেœ মাদকসেবন করার ব্যবস্থাও রয়েছে। দাতাসড়কের পঁচাপট্টিতে অবস্থিত আনোয়ারের বাড়িতে গোপন কক্ষে চলে মাদক সেবন,গভীর রাত পর্যন্ত চলে মাদক সেবন ও কেনাবেচার পালা। এতে করে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হওয়ায় পাশাপাশি নতুন প্রজন্ম মাদকে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতার ঝুঁকি রয়েছে। ফলে এখানকার অভিভাবকরাও উদ্বিগ্ন। তাই এলাকাবাসী আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি এলাকায় সাঁড়াশি অভিযানের দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *