Home » প্রথম পাতা » বন্দরে নাসিম ওসমান স্বরণে যুব সংহতির দোয়া

দেশের অবস্থা এখন বাকশালের প্রতিছবি: জাকির

২৬ জানুয়ারি, ২০২২ | ৮:৪৩ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 63 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এ্যাড. জাকির হোসেন বলেন, আজকের এই দিনটা বাংলাদেশের ইতিহাসের জন্য কালো অধ্যায় রচিত হয়েছিলো। ১৯৭৫ সালের এই ২৫ জানুয়ারী তৎকালিন আওয়ামীলীগ সরকার দেশে রাজতন্ত্র কায়েম করতে গিয়ে গণতন্ত্র হত্যা করে বাকশাল কায়েম করে ছিলো। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৪ টায় কালিবাজারস্থ মহানগর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে “ একদলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশাল সৃষ্টি করে গণতন্ত্র হত্যার প্রতিবাদে” আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আবু আল ইউসুফ খান টিপুর সঞ্চালনায় এ প্রতিবাদ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সহ-সভাপতি এ্যাড. রিয়াজুল ইসলাম আজাদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, হাজী ইসমাইল, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মুজিবুর রহমান, সহ-আইন বিষযক সম্পাদক এ্যাড. সুমন মিয়া, মহানগর যুবদলের আহবায়ক মমতাজ উদ্দিন মন্তু, মহানগর শ্রমিক দলের সদস্য সচিব আলী আজগর। সভাপতির বক্তব্যে এ্যাড. জাকির হোসেন আরও বলেন, ১৯৭১ সালে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনী যখন আমার দেশটাকে দখল করতে এসে অসহায় মানুষদের হত্যা ও তাদের উপর নিমর্ম নিযার্তন চালিয়ে যাচ্ছিল্ োঠিক তখন আওয়ামীলীগের নেতারা ভারতে জামাই আদরে ছিলো। তখন দিশেহারা জাতির পক্ষে এসে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষনা দিযে ছিলেন। শুধু তাই নয় স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে তিনি চুপ করে বসে থাকেন নাই, রনাঙ্গনে যুদ্ধ করে। বাঙ্গালী জাতির জয় ছিনিয়ে এনে ছিলেন। তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পরবর্তী সময় আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে মানুষের বাকস্বাধীনতা, গণতন্ত্র হত্যা, গুম খুন, লুট, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ছিনিয়ে নিয়ে দেশে বাকশাল কায়েম করেছিলো। বর্তমান দেশের অবস্থা তৎকালিন সময়ের বাকশালের প্রতিছবি আমি দেখতে পাচ্ছি। তবে ভয়ের কোন কারন নেই ইতিহাস স্বাক্ষী কোন অপশক্তি বেশি দিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি। আমরা দেখতে পাচ্ছি অন্ধকারের মধ্য থেকে আলোর প্রতিফলন হচ্ছে। এখনই সময় আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এদেশের গণতন্ত্র আবারো ফিরে আনবো। মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু বলেন, বর্তমান সরকার তাদের পুর্বের রাজনীতি ফলো করে দেশ পরিচালনা করছে যেটা করেছিলো ১৯৭৫ সালের আওয়ামীলীগ। এখন এদেশে মানুষের গণতন্ত্র নাই, ভোটাধিকার নাই, মৌলিক অধিকার নাই, বিচার ব্যবস্থার স্বাধীনতা নাই, সংবাদ পত্রের স্বাধীনতা নাই। গোটা বাঙ্গালী জাতি এই সরকারের বেড়া জালে বন্দি হয়ে আছে। এই সরকারের অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় আমাদের নেত্রী সাবেক ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বন্দি করা হয়েছ্।ে শুধু তাই নয় তিনি গুরুত্বর অসুস্থ্য হওয়ার পরও তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠাতে সরকার বাধা সৃষ্টি করছে। তিনি আরও বলেন, আওয়ামীলীগ দাবি করেন তারা স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি অথচ স্বাধীন দেশের জাতিকে পরাধীনতার ধু¤্রজালে বন্দি করে রেখেছেন। অথচ ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি হয়ে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান সহ এদেশের আপামোর জনতা যুদ্ধে জাপিয়ে পরে দেশকে স্বাধীন করেছিলেন্। তখন কোথায় ছিলো আপনাদের আওয়ামীলীগের নেতারা। এই মিথ্যা ভোট চোর সরকারের অধিন থেকে গোটা জাতিকে রক্ষা করতে হলে জনগণকে সাথে নিয়ে গণতন্ত্র উদ্ধার আন্দোলনে নামতে হবে। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, মনিরুজ্জামান মনির, যোগাযোগ বিষযক সম্পাদক বরকত উল্লাহ বুলু, সহ-প্রশিক্ষন বিষযক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বাবু, মহানগর বিএনপি নেতা জাহাঙ্গীর মিয়াজী, হারুন শেখ, হাবিবুর রহমান মিঠু,  আলী হোসেন, মানিক বেপারী, হাফেজ সিব্বির আহমেদ, মাহমুদ, মহানগর যুবদল নেতা  মিজানুর রহমান, নুরুজ্জামান, নবু হোসেন নবু,ফয়েজ উল্লাহ সজল, তাওলাদ হোসেন, মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি শাহিন শরিফ সহ  মাসুদ, আরিফ, আব্দুল কাদির সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *