Home » প্রথম পাতা » সামসুলের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ

দেশের প্রথম নারী মেয়রের খেতাব আইভীর ঘরে

২২ অক্টোবর, ২০২১ | ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 89 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বাংলাদেশের প্রথম নির্বাচিত নারী মেয়র। ২০১১ সালের নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচনে তিনি জয়ী হয়ে সততা ও উন্নয়ন কাজ দিয়ে বাংলাদেশে আলাদা এক পরিচিতি তৈরি করেছেন। এই পরিচিতির কারণেই বিশ্বের বিভিন্ন দাতা সংস্থা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে সংযুক্ত হয়ে নগর উন্নয়নে কাজ করতে চান। ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাংক, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, জাপানের জাইকা, ইউএনডিপি, যুক্তরাষ্ট্রের ইউএসএইড, জার্মান উন্নয়ন সংস্থা জিআইজেড এর মতো বিভিন্ন সংস্থা কাজ করছে। অনেক দেশের বরেণ্য ও রাষ্ট্রীয় ব্যক্তিবর্গ বাংলাদেশে এলে দেখা করেন নারীর ক্ষমতায়নের অনন্য নিদর্শন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে। সর্বশেষ ঢাকায় নিযুক্ত আমেরিকান রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার দেখা করেছেন মেয়র আইভীর সাথে। দীর্ঘক্ষণ আলোচনায় নাসিককে সহযোগিতার আশ্বাসও দিয়ে যান আর্ল মিলার। মেয়রের সাথে সাক্ষাৎ ও উন্নয়ন কাজে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন জাপানের নারোতো সিটির মেয়র মিচিহিকো ইজোমিও। ২০১৬ সালের আগস্টে প্রকাশিত দক্ষিণ কোরিয়ার সাময়িকি ‘দ্য এশিয়ান’ এর জরিপে এশিয়ার প্রবাবশালী ২০ নারী মেয়রের মাঝে সপ্তম স্থানে ছিলেন নারায়ণগঞ্জের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। তাঁর অনন্য কৃতি এবং কর্মনিষ্ঠা, সততার গুনে সারা বিশ্বের কাছে নতুন পরিচয়ে পরিচিত হচ্ছে নারায়ণগঞ্জ।  নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন সূত্রে জানা যায়, মেয়র আইভীর সততা ও কর্মনিষ্ঠার নিদর্শন সম্পর্কে অবগত বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ ও দাতা সংস্থাগুলো। তারা আইভীর সাথে কাজ করতে ব্যাপক আগ্রহী। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি উন্নয়নকাজে মেয়র আইভীকে অর্থায়ন ও পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন তারা। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে কাজ করেছে এডিবি অর্থ্যাৎ এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক। গত ২০১২ সালের ১১ নভেম্বর মেয়র আইভীর সাথে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সহযোগিতায় চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শনে এডিবি’র কান্ট্রি ডিরেক্টর এম টেরেসা খো। ২০১৩ সালের ২৯ এপ্রিল জাইকার প্রতিনিধি দল আসে নারায়ণগঞ্জ শহরে। তারা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন পরিদর্শন ও মেয়র আইভীর সাথেও সৌজন্য সাক্ষাত করেন। নারায়ণগঞ্জ নগরীর সৌন্দর্যবর্ধন ও বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে আলোচনাও করেন তারা। স্থানীয় সরকার পর্যায়ে বাংলাদেশে জাইকার সর্বোচ্চ ১০০ কোটি টাকার অর্থায়নে একক প্রকল্প সিদ্ধিরগঞ্জ খাল পুনরুদ্ধার ও সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ চলছে। ২০১৪ সালের ১ মার্চ নাসিক মেয়র ডা. আইভীর সাথে বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে বাস্তবায়িত ‘সম্ভব’ প্রকল্প পরিদর্শন করেন বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মি. জোহানেস জাট। বিশ্বব্যাংক, এডিবি ও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়নে নির্মিত হয়েছে বাবুরাইল খাল। এই খাল উদ্ধার ও সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ দু’টি আন্তর্জাতিক পুরস্কারও লাভ করেছে। ২০১৬ সালের ৩ সেপ্টেম্বর মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট। ২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর জার্মান উন্নয়ন সংস্থা জিআইজেড কর্তৃক চলমান এবিডিসি প্রকল্পের কর্মশালারও আয়োজন করা হয়। ২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর চায়না ইউনান বিশ্ববিদ্যালয়, নেপালের ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয় ও মায়ানমারের মান্দালয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ১২ জন শিক্ষক মেয়র আইভীর উন্নয়ন কাজের ধারনা নিতে নারায়ণগঞ্জে আসেন। এসময় তারা নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, শীতলক্ষ্যা নদী, পঞ্চবটি পার্ক ও জিমখানা লেক পরিদর্শন করেন। ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি বিদেশী বন্ধু পল কনেট ও এলেন কনেট মহান মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননা প্রদান করেন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। ওই বছরের ৭ আগস্ট মেয়র আইভীর সাথে সাক্ষাৎ করেন জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোইয়াসু ইজোমি। এছাড়া দুবাইভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘ইন্সপায়ার’ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জং-বক পার্ক এবং পরিচালক হিউ-জু, আন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সুইডেনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘হিফাব’ এর আঞ্চলিক পরিচালক নাথালি ট্রানিফেল্ড এবং ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মাজেদুল ইসলাম নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। সাক্ষাতকালে তারা নারায়ণগঞ্জ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পরিবহন ব্যবস্থা ও ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা করেন। পরবর্তীতে তা বাস্তবায়নে কাজ করেন। ফিলিপাইনের সরকার এবং জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি) এর একটি প্রতিনিধি দলও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন পরিদর্শন করেছে। গত বছরের ২৮ জানুয়ারি ঢাকায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ও জাপানের নারোতো সিটির সাথে ফ্রেন্ডশিপ সিটি সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশের সঙ্গে জাপানের এমন ফেন্ডশিপ চুক্তি এটাই প্রথম। নারায়ণগঞ্জের সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও নারোতো সিটির মেয়র মিচিহিকো ইজোমি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। এই চুক্তির আওতায় সংস্কৃতি, অর্থনীতি, শিক্ষা ও মানবসম্পদের বিষয়-আশয় দুটি শহর পরস্পরের সঙ্গে বিনিময় করতে সম্মত হয়। পরের দিন জাপানের নারোতো সিটির মেয়র মিচিহিকো ইজোমি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে সাক্ষাৎ করেন। এই সময় তারা জাপানের দাতা সংস্থা জাইকার অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন প্রকল্প কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। সর্বশেষ চলতি বছরের গত ৭ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত আমেরিকান রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। ওইদিন দুপুরে নগরীর নিতাইগঞ্জে অবস্থিত নগরভবনে আসেন রাষ্ট্রদূত মিলারসহ ছয় সদস্যের একটি দল। এ সময় তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান সিটি মেয়র ডা. আইভী। শুভেচ্ছাপর্ব শেষে আমেরিকান রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে নিজ কক্ষে বৈঠকে বসেন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এ সময় স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও দুর্যোগকালীন প্রস্তুতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। এছাড়া নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্যগত পর্যটনকেন্দ্রকে কেন্দ্র করে বাণিজ্যিক প্রসারের ক্ষেত্রে বর্তমান ও ভবিষ্যৎ সহযোগিতা প্রদানের বিষয়ে আলোচনা হয়। প্রায় দেড় ঘন্টা তাদের মধ্যে আলোচনা চলে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ঘোষণার ১০ বছরে মেয়র আইভীর হাত ধরে এই নগরীর তাক লাগানো উন্নয়ন আজকে বাংলাদেশ ছাড়িয়ে বিশ্বের বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার কাছে মডেল। পৃথিবীর বিভিন্ন সংস্থার আমন্ত্রণে বিদেশ সফরও করেছেন। সেখানে অভিজ্ঞতা বিনিময়ের পাশাপাশি নিজের দেশ বাংলাদেশ ও জন্মজেলা নারায়ণগঞ্জকে পরিচিত করেছেন বিদেশিদের কাছে। নিজের দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে তাঁর উন্নয়ন কর্মযজ্ঞের সহযোগী হিসেবে তিনি এসব কাজ করছেন বলে বহুবার বিভিন্ন সভা সমাবেশে বলেছেন। বিদেশিরা ইতোমধ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটির উন্নয়নে ব্যাপক অর্থায়ন করেছেন এবং ভবিষ্যতে আরও কাজের আশ্বাস দিয়েছেন। নগরীর চলমান স্বাস্থ্য-শিক্ষা-অবকাঠামো উন্নয়নের কর্মযজ্ঞ শেষ করতে মেয়র আইভীকে এই সিটির নেতৃত্বে আবারও দরকার বলে মনে করছেন নগরবাসীরা। সূত্র: প্রেস নারায়ণগঞ্জ

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *