Home » প্রথম পাতা » ফতুল্লার কাশিপুরে মোস্তফার অত্যাচারে অতিষ্ট সাধারন মানুষ

দোষীদের বিচারের মুখোমুখি হতে হবে

১২ জুলাই, ২০২১ | ৬:২৬ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 250 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেন, আজকে এ জায়গায় ৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ধরনের মৃত্যু কামনা নয়, তারপরও এ ধরনের দূর্ঘটনা ঘটেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ইতিমধ্যে ৩টি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। সেই তদন্ত কমিটির মাধ্যমে যারা দোষি হবে তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। একইসাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবে। সরকার ইতিমধ্যে যারা ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে নিহত হয়েছে তাদের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা ও আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষনা দিয়েছে। এ ধরনের ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে না ঘটে, তার জন্য আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুর ১২টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। মির্জা আজম আরও বলেন, আমরা জেনেছি একটা ফ্লোরে অধিকাংশ মানুষের মৃত্যু হয়েছে, সেই ফ্লোরটি তালাবদ্ধ ছিলো। এর জন্য দায়ী কে? তাদের বিরুদ্ধে অব্যশই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সরকারে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে বিভিন্ন অনুমোদন নিয়ে কিন্তু এসব প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলা হয়। সেই জায়গায় যদি কারো অনিয়ম থাকে তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। আমরা শুনেছি এখানে কিছু শিশু শ্রমিক ছিলো, তারা কার মাধ্যমে এখানে কাজ করতে আসলো তাদেরকেও বিচারের আওতায় নিয়ে আসা হোক আমি মনে করি।  আওয়ামী লীগের এই নেতা দগ্ধরের উদ্ধারের ঘটনায় যারা জীবন বাজি রেখে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন শেখ হাসিনার ও আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তাদেরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। একই সাথে যারা নিহত ও আহত হয়েছেন তাদের পরিবারের প্রতি সহানুভূতি জানান। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস এমপি, দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যকমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রি গোলাম দস্তগীর গাজী এমপি, নারায়নগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ সদস্য নজরুল ইলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাধারন সম্পাদক অ্যাড. আবু হাসনাত শহীদ বাদল, রূপগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শাহজাহান, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য নূরে আলম, সোনারগাঁ আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য লায়ন মাহবুবুর রহমান বাবুল প্রমুখ। উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে রূপগঞ্জে সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকান্ড ঘটে। ঘটনার প্রথম দিন তিনজনের মৃত্যু হয়। আহত হন অর্ধশত শ্রমিক। ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের ১৮টি ইউনিট ২০ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন প্রাথমিকভাবে নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর গত শুক্রবার সকালে ওই ভবনের চারতলা থেকে ২৬ নারীসহ ৪৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সব মিলিয়ে এ ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৫২ জনে। ২৯ ঘণ্টা পর গত শুক্রবার রাতে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *