আজ: শুক্রবার | ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৯শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী | দুপুর ২:৫৯

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

না’গঞ্জবাসীর পাশে অয়ন ওসমান

ডান্ডিবার্তা | ০১ জুন, ২০২০ | ২:২৩

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
করোনা সংক্রমনের প্রভাব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় হটস্পট জেলা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ। প্রতিদিনিই আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সংক্রমনে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি দীর্ঘ হচ্ছে লাঁশের মিছিলও। কোন ভাবেই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হচ্ছে না মরনঘ্যাতি করোনা ভাইরাসকে। এমন অবস্থায় সরকারের অনিদিষ্টকালের লক ডাউনের গ্যাড়াকালে বন্দী জীবন অতিবাহিত করেছে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষ। খেটে খাওয়া মানুষগুলো যেতে পারছে না তাদের কর্মস্থলে। দিনের পর দিন কর্মহীন থাকার কারনে খাদ্য সংকটের মধ্য দিয়ে অনাহারে পার করছে জেলার মধ্যবিত্ত ও নি¤œ আয়ের মানুষ গুলো। ঠিক সাধারণ মানুষের ক্লান্তিলগ্নে আলোর দিশারী হয়ে পাশে দাড়িয়েছেন ওসমান পরিবারের একমাত্র যোগ্য উত্তরসূরী সাংসদ পুত্র অয়ন ওসমান। জেলায় করোনা প্রার্দুভাবের শুরু থেকেই সাধারন মানুষকে এ মহামারি থেকে দূরে রাখতে চালিয়ে যচ্ছে সচেতনতামূলক প্রচারনা। বিতরণ করা হচ্ছে ভাইরাসমুক্ত রাখার জন্য বিভিন্ন স্যানিটেশন সামগ্রী। এমনকি খোঁজ নিচ্ছে জেলার মধ্যবিত্ত ও নি¤œ আয়ের সাধারণ মানুষের। অনেকটা মিডিয়ার চোঁখকে ফাঁিক দিয়েই সাধারণ মানুষের ঘরে পৌছে দিচ্ছে খাদ্য সামগ্রী। পবিত্র ঈদুল ফিতরে সাধারণ মানুষের ঘরে খাদ্য সামগ্রীর পাশাপাশি বিতরন করেছেন নতুন জামা কামড়। তারুন্যের অহংকার ওসমান পরিবারের একমাত্র কর্ণধার অয়ন ওসমানের এমন মহানুভবতার কারনে তরুনরা একদিকে যেমন উচ্ছসিত ঠিক একই ভাবেই ওসমান পরিবারের পরবর্তী প্রজন্মের নেতৃত্বে প্রদানে যোগ্যতার প্রমানে সফলতা অর্জন করেছেন। জানা যায়, খান সাহেব ওসমান আলী থেকে শুরু। এরপর তার ছেলে সামসুজ্জোহা। অত:পর প্রয়াত সামসুজ্জোহার তিন ছেলে নাসিম ওসমান, সেলিম ওসমান এবং শামীম ওসমান, বংশ পরম্পরায় তারা প্রত্যেকেই আসন গ্রহণ করেছেন দেশের জাতীয় সংসদে। দেশের ইতিহাসে অদ্বিতীয় এক ঘটনা এটি। এই বংশ পরম্পরায়ের ধারাবাহিকতার সমাপ্তি এখানেই শেষ নয় বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। আগামীতে ওসমান পরিবারের সেই পরম্পরায় ধরে রাখতে যাচ্ছেন শামীম ওসমান পুত্র অয়ন ওসমান। যা অনেকে আগে থেকেই ধারণা করে রেখেছেন। তবে বিভিন্ন সভা সমাবেশে তরুন নেতৃত্বের অহংকার অংন ওসমানকে নিয়ে সাংসদ শামীম ওসমানের বিভিন্ন বক্তব্যে আরো জোড়ালো হয়েছে সেই সম্ভাবনাটি। এমনকি তা আগামী সাংসদ নির্বাচনেই প্রতিফলিত হওয়ার আভাসও পাওয়া গেছে। দলীয় বিভিন্ন মতবিনিময় সভায় নিজের ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করেন ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। দলীয় আলোচনা সভা-গুলোতে সাংসদ শামীম ওসমান বলেছেন, ‘আমরা নারায়ণগঞ্জে ইমেজটা চেঞ্জ করতে চাই। আমি সবাইকে নিয়ে বসবো। আমি আগামীতে নির্বাচন নাও করতে পারি এবং ওপেন ডিক্লিয়ার দিচ্ছি নির্বাচন করবো না। আমি গতানুগতিক ভাবে রাজনীতি করতে আসিনি। আমার কাছে এমপি হওয়া বড় কোনো বিষয় না। বড় কথা হচ্ছে আমি নারায়ণগঞ্জের মোড় ঘুড়িয়ে দিতে চাই। যাতে আমি মারা যাওয়ার পরেও মানুষ আমাকে স্মরণ করে। আমার আগামীবার নির্বাচন করার কোনো টার্গেট নাই যেহেতু আমি সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। কেউ যাতে এখানে এসে ছুরি ঘোরাতে না পারে। ছুরি ঘোরানো যে কারও সম্ভব না। যদিও তিনি তার ছেলে অয়ন ওসমানকে নিয়ে এখনও স্পষ্ট কোন ইঙ্গিত দেননি। তবে রাজনৈতিক প্রসঙ্গে পরম্পরার ক্ষেত্রে সেই ইঙ্গিতের বিষয়টিও দিনের আলোর মতই পরিস্কার। তার এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা, আগামী সংসদ নির্বাচনে হয়তো শামীম ওসমানের আসনে তার একমাত্র পুত্র অয়ন ওসমানকে দেখা যেতে পারে। অন্যদিকে শামীম ওসমান পুত্র অয়ন ওসমানও নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে নানাভাবে নিজেকে সক্রিয় রেখেছন। বর্তমানে তার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি। অয়ন ওসমানের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী কোন রকম বিতর্কিত কর্মকান্ডে জড়ানো ছাড়াই নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগ পরিচালিত হয়ে আসছে। নারায়ণগঞ্জে ছাত্র সমাজে ব্যাপক জনপ্রিয় অয়ন ওসমান। নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগ সুশৃঙ্খলভাবে পরিচালিত হওয়ার নেপথ্যে রয়েছেন অয়ন ওসমান। অয়ন ওসমানের দিক-নির্দেশনায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ রাজনীতির মাঠে প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখছে। ছাত্রলীগের মাধ্যমে সাধারণ শিক্ষার্থী, মেধাবী শিক্ষার্থীদের সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন অয়ন ওসমান। এমনকি অসুস্থ্য শিক্ষকদের পাশে দাড়াচ্ছেন তিনি। সরকারি তোলারাম কলেজকে ওয়াইফাই জোন করে দেন অয়ন ওসমান। এসব কারনে ইতিমধ্যে ছাত্র সমাজ তথা তরুণ-তরুনীদের প্রিয় মুখ হিসেবে অয়ন ওসমান ব্যাপক জনপ্রিয় হয়েছেন। এর সব কিছুই পরিস্কার ইঙ্গিত, আগামীতে শামীম ওসমানের পরিবর্তে হয়তো দেখা যাবে ছেলে অয়ন ওসমানকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *