Home » প্রথম পাতা » পদ্মা সেতু জাতির আরেক বিজয়

না’গঞ্জে তারা সবাই রাজা!

১১ মে, ২০২২ | ৯:২৩ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 68 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আছে এক যুগেরও বেশী। মাঠ পর্যায়ের ত্যাগী নেতাকর্মী থেকে শুরু করে কেন্দ্র পর্যন্ত দলের নিবেদিত প্রাণ নেতাকর্মীরা দল ক্ষমতায় গেলে পদ পদবীর পাশাপাশি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা বৈধ ভাবে ভোগ করবে এটাই স্বাভাবিক। গত এক যুগে দেশের সর্বত্র আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের অধিকাংশ নেতাকর্মীর ভাগ্য পরিবর্তন ঘটলেও দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ এমন অনেক ত্যাগী নেতাকর্মী এখনো দলকে ভালবেসে লোভ লালসার উর্ধে উঠে কাজ করে চলেছে। সারা দেশের মত নারায়ণগঞ্জেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। বরং গত একযুগে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের সিংহভাগ নেতাকর্মীই আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে। অথচ যারা আন্দোলন সংগ্রামে মাঠে থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাস্তবায়নের জন্য কাজ করেছে এমন অনেকেই এখনো দিন আনে দিন খায়। এমন কোন পেশা নেই যে পেশায় এখন ক্ষমতাসীন দলকে ব্যবহার করে কিছু লোক ফায়দা লুটতে ব্যস্ত। তবে এ একযুগে কারা কারা হঠাৎ করে অকল্পনিয় অর্থবিত্তের মালিক বনে গেল তাদের চিহিৃত  করে আইনের আওতায় আনা জরুরী হয়ে পড়েছে বলে মাঠ পর্যায়ের একাধিক নেতাকর্মীর মনে করে। সম্প্রতি ঝিনাইদহ পৌর যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর ইসলামের একটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ছবিতে দেখা যায় তৌহিদুর পেটের দায়ে রিকশা চালিয়ে জীবন যাপন করছে। এই তৌহিদুর দলের দু:সময়ে আন্দোলন সংগ্রাম করে পুলিশের লাঠিপেটা থেকে শুরু করে ক্ষমতাসীনদের নির্যাতনের শিকার হলেও দল ক্ষমতায় আসার পর তৌহিদুর ছিটকে পড়ে। জানা গেছে, তৌহিদুর দলের প্রভাবশালীদের তোষামদ করতে পারত না। ২০০১ সালে তিনি ছিলেন পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক, দুঃসময়ে দল করেছেন, তার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করে শেষ করে দিয়েছে জামাত-শিবির, আর দল ক্ষমতায় এসে তিনি বিতাড়িত হয়েছেন, পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন অবহেলা, অবজ্ঞা, হয়েছেন রিক্সাচালক। এর বেশী জানা না গেলেও নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের অধিকাংশ নেতাকর্মী বিভিন্ন কায়দায় একযুগে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে। কারো কারো বিরুদ্ধে দুদক তদন্তে নামলেও অজ্ঞাত কারণে এই তদন্ত থেমে আছে। নারায়ণগঞ্জে হাজারো তৌহিদ নিরবে কাঁদছে তা সহজেই অনুমেয়। রাতারাতি ভোল পাল্টে আবার অনেকে ক্ষমতার স্বাধ নিয়ে চলেছে। এক কথায় আওয়ামীলীগের একযুগের শাসনামলে হাট-মাঠ-ঘাট থেকে শুরু করে সকল সেক্টরে বিচরণ করে দলকে ব্যবহার করে যারা পথের টোকাই থেকে আজ কোটিপতি বনে গেছে তাদের চিহিৃত করা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকদের অন্যতম দায়িত্ব বলে মাঠ পর্যায়ের ত্যাগী নেতাকর্মীরা মনে করেন। যারা দলের নাম ভাঙ্গিয়ে একযুগে রাজার রাজা বনে গেছে তাদের চিহিৃত করা না গেলে আগামীতে আওয়ামীলীগকে যদি আন্দোলন সংগ্রামে নামতে হয় তবে এইসব কথিত রাজাদের খুঁজে পাওয়া দুস্কর হয়ে দাঁড়াবে। আর তখন তৌহিদুরের মত দল প্রেমিকরাই দলের শেষ ভরসা হয়ে দাঁড়াবে।

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *