News

নারায়ণগঞ্জ যুবলীগের নতুন কমিটি আসছে!

ডান্ডিবার্তা | 24 February, 2020 | 9:50 am

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে এক যুগ। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ভিড়েছেন মূলদলে। তারপরও নতুন কমিটি হচ্ছে না। তবে, এবার নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্র। অচিরেই হতে যাচ্ছে জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিকী সম্মেলন। অন্যদিকে জেলা কমিটি গঠনের পর নারায়ণশহর যুবলীগের কমিটি অনুমোদন করা হয় প্রায় একই সময়কাল অতিবাহিত হয়েছে। তবে, বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ শহর থেকে মহানগরে উন্নতী হলেও এখনও পর্যন্ত সেই পুরনো মেয়াদোত্তীর্ন শহর কমিটিই রয়েছে। এর সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া সাজনু ও সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ আলী রেজা উজ্জ্বল। এদিকে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, জেলা যুবলীগের নতুন কমিটি অচিরেই গঠন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। পাশাপাশি শহর যুবলীগকে বিলুপ্ত ঘোষণা করে মহানগর আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হবে। আর তা অতি অল্প সময়ের মধ্যেই হবে। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রতিনিধি সম্মেলন থেকে এমনই সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল কাদির নারায়ণগঞ্জ টুডে’কে বলেন, ঢাকায় যুবলীগের প্রতিনিধি সম্মেলন হয়েছিল। সেখান থেকে আমাদেরকে তিন মাসের সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে শহর যুবলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে সমন্বয় করে, সবার সাথে আলোচনা সাপেক্ষে মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে সিদ্ধিরগঞ্জেও আহ্বায়ক কমিটি গঠন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তবে, গড়মিল রয়েছে আব্দুল কাদির ও শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যে। শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ আলী রেজা উজ্জ্বল বলছেন, কেন্দ্র এক মাসের সময় দিয়েছেন কাদিন ভাইকে। এর মধ্যে কমিটি গঠন করতে হবে। এদিকে যুবলীগ কমিটি গঠন হবে, এমন সংবাদে নড়েচড়ে বসেছে অনেকেই। জেলা যুবলীগের কমিটিতে স্থান পেতে একটি গ্রুপ চালাচ্ছে লবিং। এখানেও রয়েছে উত্তর-দক্ষিণ মেরু বিভাজন। তবে, জেলা যুবলীগে সাবেক দুই ছাত্র নেতার নেতৃত্বে কমিটি আসতে পারে। এমনটাই শোনা যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, সাবেক ছাত্রনেতা এহসানুল হক নিপুকে সভাপতি ও সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাফায়েত আলম সানিকে সাধারণ সম্পাদক করার জন্য শামীম ওসমান পক্ষ থেকে চেষ্টা অব্যহত রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, যুবলীগের নতুন কমিটি এই দুইজনের নেতৃত্বেই আসবে। অন্যদিকে শহর যুবলীগ বিলুপ্ত করে মহানগরে উন্নতীকরণের নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্র। এখানে শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া সাজনুই সভাপতি হিসেবে এগিয়ে রয়েছে। সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আহম্মদ আলী রেজা উজ্জ্বলই আসতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে, তৃণমূল বলছে, যারাই আসুক নেতৃত্বে এতে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু নেতা যাতে কর্মী বান্ধব হয়। এটাই তাদের চাওয়া। প্রসঙ্গত, ২০০৫ সালে জেলা যুবলীগের সম্মেলন হয়। এতে সভাপতি হন আব্দুল কাদির এবং সাধারণ সম্পাদক হন আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদল। এছাড়াও কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি করা হয় জাকিরুল আলম হেলালকে এবং যুগ্ম সম্পাদক করা হয়েছিলো শাহ নিজামকে। তাদের মধ্যে এই চারজনই এখন আওয়ামী লীগের কমিটিতে গুরুত্ব পদে রয়েছে। তারমধ্যে আব্দুল কাদিও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি, বাদল সাধারণ সম্পাদক এবং মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম ও সাংগঠনিক সম্পাদকে রয়েছে জাকিরুল আলম হেলাল। সূত্র জানায়, জেলা যুবলীগের সম্মেলনের পর একই বছরের ২৫ জুলাই শহর যুবলীগ কমিটির অনুমোদন করেন কাদির ও বাদল। এই কমিটির সভাপতি করা হয় সাজনুকে আর সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল। কিন্তু কমিটি গঠনের ১৪ বছরেও দ্বিতী কোনো সম্মেলন হয়নি। তবে, আব্দুর কাদির জানিয়েছেন, ২০০৫ সালে জেলার সম্মেলন হওয়ার পাঁচ বছর পর তথা ১ অক্টোবর ২০১০ সালে পুনরায় সম্মেলন হয়েছিল তাদের। সে ক্ষেত্রে তাদের কমিটির মেয়াদ দশ বছর। মেয়াদোত্তীর্ণ ৭ বছর প্রায়।

[social_share_button themes='theme1']

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *