Home » প্রথম পাতা » পদ্মা সেতু জাতির আরেক বিজয়

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ হলেও কার্যকারিতা না থাকায় বাড়ছে জনদূর্ভোগ

১৯ নভেম্বর, ২০২১ | ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 130 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

আকস্মিকভাবে দেশে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বৃদ্ধিতে নারায়ণগঞ্জে একদিকে বেড়েছে পরিবহনের ভাড়া, অন্যদিকে বেড়েছে ভোগ্যপণ্যসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য। মানুষের আয় না বাড়লেও দৈনন্দিন জীবনযাত্রার খরচ বৃদ্ধিতে জনদূভোর্গের মাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে কয়েকগুণ। মানুষের জনদূর্ভোগের মাত্রা হ্রাসে জ¦ালানির মূল্য ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে জেলায় একের পর এক কর্মসূচি ও মানববন্ধন হচ্ছে। কিন্তু প্রতিবাদ কর্মসূচি হলেও এ বিষয়ে প্রশাসনের ভ্রুক্ষেপ না থাকায় মানুষের দৈনন্দিন খরচ বেড়েই চলছে, তা নিয়ে ক্ষুব্ধ জেলার নি¤œ ও মধ্য আয়ের মানুষ। ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন জারির পরদিনই নারায়ণগঞ্জে ডিজেল চালিত পরিবহনের ভাড়া বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে জেলার সর্বস্তরের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে মানুষ প্রতিবাদ জানিয়েছে। নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন রূটের সঠিক দূরত্ব নিরুপণ করে বিআরটিএর প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী নির্ধারিত পরিমাণে পরিবহনের ভাড়া নির্ধারণ ও জ্বালানি তেলের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবিতে  নারায়ণগঞ্জ যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম সমাবেশ ও সংবাদ সম্মেলন করেছে। একই দাবি জানিয়ে ৭ নভেম্বর সকালে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের প্রতিনিধিরা নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন। গত ৬ নভেম্বর শহরের চাষাঢ়া শহীদ মিনারে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন হয়। সমাবেশ শেষে একটি মিছিল নিয়ে নেতৃবৃন্দরা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। ৯ নভেম্বর একই দাবি জানিয়ে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম ছাড়াও জেলার বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক সংগঠনগুলো পরিবহনের ভাড়া নির্ধারণ  ও জ্বালানি তেলের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবিতে সমাবেশ করে।  গত ৯ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে জেলা কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃবৃন্দরা পরিবহনের বর্ধিত ভাড়া ও জ্বালানির মূল্য হ্রাসের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। গত ৮ নভেম্বর জেলা বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দরা ডিজেল, কেরোসিনের বর্ধিত মূল্য ও পরিবহনের বর্ধিত ভাড়া কমানোর দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। এছাড়াও নেতৃবৃন্দরা সকল নিত্যপণ্যের দাম কমানোর দাবি করেন। গত ১২ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জে গণসংহতি আন্দোলন জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি এবং ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বাসের ভাড়া বৃদ্ধিকে প্রত্যাখ্যান করে সমাবেশ করেছে। গত মঙ্গলবার নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য, জ্বালানি তেল ও বাস ভাড়া কমানোর দাবীতে সমাবেশ করে নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটি। কমিটির নেতৃবৃন্দরা দ্রব্যমূল্য, জ্বালানি তেল ও বাস ভাড়া হ্রাস করে মানুষের জীবনযাত্রাকে স্বাভাবিক করার আহ্বান করেন। নেতৃবন্দরা তাদের বক্তব্যে বলেন, ডিজেলের দাম বৃদ্ধিতে বাড়ছে পরিবহন ভাড়া। এর ফলে বাড়বে মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য। যা মানুষের জীবনযাত্রায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করবে। মানুষের দূর্ভোগ কমাতে জ¦ালানি তেলের মূল্য হ্রাস করতে হবে। যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের আহবায়ক রফিউর রাব্বী এ বিষয়ে বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বাসভাড়া নিয়ে অরাজকতা চলছে। এখানে চিহ্নিত মাফিয়াচক্রের বানানো পরিবহন সিন্ডিকেটের হাতে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষ এমনকি কতিপয় বাস মালিকও জিম্মি হয়ে রয়েছে। পরিবহন মালিকেরা তাদের অতিরিক্ত ভাড়াকে বৈধ করতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটের মিথ্যা দূরত্ব একবার ২১ কিলোমিটার পরে ১৯ কিলোমিটার দাবী করে। কিন্তু ২০১৩ সালের মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার হওয়ার পর এ দূরত্ব ১৫ কিলোমিটার হয়। গত ৭ নভেম্বর বিআরটিএ গণপরিবহনের ভাড়ার নতুন তালিকা ঘোষণা করে যা সাধারণ মানুষের জন্য অত্যন্ত অসহনীয় এবং তাদের প্রতি অন্যায় ও নিষ্ঠুরতা। তার পরেও এ মূল্য তালিকা মেনে নিলেও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের নির্ধারিত ভাড়া দাড়ায় ৩০ টাকা ৬২ পয়সা। টোল সহ ভাড়া হবে ৩৫ টাকা ৮২ পয়সা।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *