Home » প্রথম পাতা » পদ্মা সেতু জাতির আরেক বিজয়

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন হাতপাখার দুই প্রার্থী

১১ নভেম্বর, ২০২১ | ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 75 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কাশিপুর ও এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালেন হাতপাখার দুই প্রার্থী। এলাকার উন্নয়নের বৃহৎ স্বার্থে ও এমপি শামীম ওসমানের ‘শান্তি শৃঙ্খলা’ বজায় রাখার আহ্বানে সাড়া দিয়ে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ওই দুই প্রার্থী। গতকাল বুধবার বিকাল ৫টায় ফতুল্লা লামাপাড়া ইসলামী পাঠাগারে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এমন ঘোষনা দেন ইসলামী আন্দোলনের নেতৃবৃন্দরা। চরমোনাই পীর মনোনীত ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের ওই দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন- মো. ওমর ফারুক ও হাজী আ. ছালাম। সংবাদ সম্মেলনে দুই প্রার্থীর সাথে উপস্থিত ছিলেন, ‘ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’ নারায়ণগঞ্জের সভাপতি আনোয়্রা হোসেন জিহাদী, ইসলামী যুব আন্দোলন নাঃগঞ্জ জেলার সভাপতি মাওলানা শফিকুল ইসলাম, দ্বীনি ইসলাম সংগঠনের নায়েবে পদক শাহাদাত হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে আনোয়ার হোসেন জিহাদী বলেন, ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানের সাথে গত পরশু আমাদের সাথে এক মতবিনিময় সভা হয়েছে। তিনি আমাদের কাছে অনুরোধে করেছেন, ‘এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বজায় থাকবে এবং উন্নয়ন মূলক কাজ গুলো সম্পন্ন হবে’, এমন কর্মকান্ডে আমাদের যেন অংশ গ্রহন থাকে। তাই আমরা দলীয় ভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, কাশিপুর ও এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদ এলাকার উন্নয়ণের স্বার্থে এবং ইউনিয়ণবাসীর শান্তি-শৃঙ্খলায় আমাদের দুই প্রার্থী নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর। তিনি আরও বলেন, এই মূর্হুত থেকে এবং আগামীকালের নির্বাচনে আমাদের এ দুই প্রার্থীর ও ইসলামী আন্দোলনের পক্ষ থেকে কোন নির্বাচনী কার্যক্রম চলবে না, কোন পোলিং এজেন্ট নিয়োগ দেয়া হবে না কাশিপুর ও এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে। কোন চাপের কারণে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আনোয়ার হোসেন জিহাদী জানান, আমরা মানুষের স্বার্থে কাজ করি, আমরা কোন চাপে বা কোন ভয়েই এই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছি না। আমরা রাজনৈতিক দল। মাঠের রাজনীতিতে আমরা আছি। আমাদের প্রার্থীরা উন্নয়নের স্বার্থে স্বেচ্ছায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *